‘উত্তরবঙ্গের আদিবাসীরা বৈষম্যের শিকার’
২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫ ইং
g ইত্তেফাক রিপোর্ট

রাজশাহীর রাজৈর সম্প্রদায়ের শিশুরা স্কুলে ভর্তির সুযোগ পায় অন্য শিশুরা ভর্তির পর। কলকামরা সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীরা বৈষ্যমের শিকার হচ্ছে স্কুলে কম্পিউটার শিক্ষায়। সাধারণ শিশুরা নতুন বই পেলেও বাঘধি সম্প্রদায়ের শিশুরা পাচ্ছে পুরাতন বই। শিক্ষকরাও তাদের শিশুদের প্রতি কম গুরুত্ব দিচ্ছেন। এখানকার আদিবাসীরা অর্থনৈতিক, সামাজিকসহ সরকারি চিকিত্সাসেবা গ্রহণেও বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন। হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট রিসার্চ সেন্টারের এক গবেষণায় এ তথ্য ফুটে উঠেছে।

গতকাল রাজধানীর একটি কনভেনশন সেন্টারে আনুষ্ঠানিক ভাবে এ প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন গবেষণা দলের প্রধান অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আশরাফ উদ্দিন চৌধুরী।

ড. আবুল বারকাত উল্লেখ করেন, ২০১২-১৩ সালের সরকারি হিসেবে দেশে আদিবাসীর সংখ্যা আড়াই লাখ। কিন্তু আমাদের হিসেবে পাঁচ লাখ। সরকারি হিসেবে ২৭টি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী থাকলেও আমাদের হিসেবে ৪৯টি। এভাবে অনেক ভুল তথ্য রয়েছে।  তিনি বলেন, রাজশাহী, নওগাঁ এবং দিনাজপুরের ৪৮টি গ্রামে এ জরিপ করা হয়েছে। এতে অনেকেই উল্লেখ করেছেন, তারা সমান পরিশ্রম করলেও তুলনামূলক কম মজুরি পাচ্ছেন। আাাইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছেও তারা কম গুরুত্ব পেয়ে থাকেন। সামাজিক সুরক্ষা সহায়তার ক্ষেত্রেও তারা বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ইং
ফজর৫:০৭
যোহর১২:১২
আসর৪:২৩
মাগরিব৬:০৪
এশা৭:১৬
সূর্যোদয় - ৬:২২সূর্যাস্ত - ০৫:৫৯
পড়ুন