অন্দর সাজাতে...
০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ ইং
অন্দর সাজাতে...
l বনি আমিন l

 

একটি সাজানো গোছানো পরিপাটি ঘর কার না পছন্দ বলুন? আজকাল শুধু সাজ পোশাকেই চাকচিক্য থাকলে চলে না, নিজের অন্দরমহলটাকেও সাজানো চাই মনের মতো করে। আর সেজন্যই বাহারি সব উপকরণে ভরিয়ে তোলা যায় আপন আবাস। এক্ষেত্রে প্রয়োজন বহুমাত্রিক ভাবনা। ঘরকে কী দিয়ে সাজাবেন, কিভাবে সাজাবেন, বাহ্যিক সৌন্দর্য কেমন হবে, সময়ের সাথে মানানসই হবে কিনা—এসব ব্যাপারে কাজের পূর্বেই একটা ছক এঁকে নিলে কাজের সময় এক ধরনের উত্ফুল্ল ভাব কাজ করবে। যেহেতু নিজ রুচির প্রকাশটা এর মাধ্যমেই ফুটে উঠবে তাই ব্যতিক্রম কিছু ভাবনাই আপনার অন্দরকে সাজিয়ে তোলার ব্যাপারে সহায়ক হবে।

অন্দর সাজাতে খেয়াল রাখতে হবে উপকরণের প্রতি। বেছে নিতে হবে সময়ের সঙ্গে মানানসই উপাদানগুলোকে। সেগুলো খুব যে দামি হতে হবে তা কিন্তু নয়। কমমূল্যের একটি নান্দনিক উপকরণও হতে পারে ঘরের সৌন্দর্য় বাড়াতে সহায়ক। অর্থাত্ দাম মুখ্য নয়, নান্দনিকতাই বিবেচ্য বিষয়।

ঘরের অন্দরকে সাজাতে আপনি ব্যবহার করতে পারেন ওয়ালমেট। আপনার দেয়ালের রঙের সঙ্গে মানানসই ওয়ালমেট বেছে নিলে এর বাহ্যিক সৌন্দর্য সবারই ভালো লাগবে। ঋতুভেদে ভিন্ন ভিন্ন ওয়ালমেট ব্যবহার করতে পারেন। দেয়ালের কোনদিকে এটি সেট করবেন এটি নির্ভর করবে আপনার সুচারুতার ওপর।

অন্দরের দেয়ালে একটি পেন্টিং থাকবে এটা যেন অনেকেরই ভাবনা। এই ভাবনাকে উস্কে দিয়ে দেয়ালে সেট করতে পারেন বাহারি পেইন্টিং। এটি একদিকে যেমন সাজানোর উপকরণ অন্যদিকে রুচির প্রকাশ। রুমভেদে পেইন্টিংয়ের ধরনও ভিন্ন হবে। আপনার রুমের পরিবেশের সাথে খাপ খায় এমন পেইন্টিং বেছে নিতে পারেন।

ফটোট্রি অন্দর সাজানোর অন্যতম উপকরণ। এটি সাধারণত প্রজন্মের ক্রম অনুযায়ী সাজানো হয়ে থাকে। এতে একবার চোখ বুলালে অনেক স্মৃতি মনে পড়ে যায়। প্রিয়জনদের স্মৃতি ধারণ করতে এটি হতে পারে অন্যতম উপযোগ। 

স্টিকার বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় একটি উপকরণ। বর্তমান প্রজন্মকে এটি বেশ আকৃষ্ট করেছে। অন্দরের সৌন্দর্য বাড়াতে এটি হতে পারে সহায়ক একটি উপাদান। সোনামণিদের ঘরে বিভিন্ন কার্টুনের স্টিকার, পাখি-ফুলের স্টিকার কিংবা বাহারি প্রজাপতির স্টিকার রাখতে পারেন। তাতে করে আপনার সোনামণির আনন্দের মাত্রা অনেকাংশে বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি বেড়ে যাবে ঘরের সৌন্দর্যের মাত্রা।

আপনি যদি বৃক্ষপ্রেমী হোন তবে আপনার ঘরের এককোণে রাখতে পারেন ছোট ফুলের টব। আজকাল অনেকেই টেবিলে ছোট টব রাখতে পছন্দ করেন। এটিও সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে পারে। আপনার টি টেবিলে কাপড়ের উপর নকশা করা টেবিল ম্যাট ব্যবহার করে বাড়াতে পারেন আকর্ষণ। পড়ার টেবিলে রাখতে পারেন পছন্দের টেবিলল্যাম্প। সোফার কুশনে হাতের কাজ করা কাভার লাগাতে পারেন। এতে বাহ্যিক সৌন্দর্য অনেকটাই বেড়ে যাবে।

আপনি চাইলে অন্দরে ফুটিয়ে তুলতে পারেন বাঙালিয়ানা। পাটের শিকা, নকশী কলস, নকশী হাঁড়ি, একতারা-দোতারা ব্যবহার করতে পারেন। শোকেস সাজাতে পারেন মাটির পুতুল দিয়ে। কাগজের ফুল বানিয়ে সাজাতে পারেন অন্দর। বুকশেলফে প্রিয় লেখকদের বইগুলো পরিপাটি করে সাজিয়ে রেখে আপনার সৃজনের স্বাক্ষর রাখতে পারেন।

এছাড়া আরও দৃষ্টিনন্দনভাবে অন্দরকে উপস্থাপনের জন্য আপনার বেডে বাহারি রঙের চাদর ব্যবহার করতে পারেন। বিভিন্ন রঙের লাইট ব্যবহার করে ঘরকে করতে পারেন আলোকোজ্জ্বল। এভাবে অন্দর সাজানোর মাধ্যমে সৌন্দর্যের মাত্রা যেমন বাড়বে, তেমনি ঘটবে আপনার শৌখিনতার বহিঃপ্রকাশ।

 

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং
ফজর৪:২৬
যোহর১১:৫৭
আসর৪:২৫
মাগরিব৬:১৩
এশা৭:২৭
সূর্যোদয় - ৫:৪৩সূর্যাস্ত - ০৬:০৮
পড়ুন