রোলবল বিশ্বকাপ
বাংলাদেশ চতুর্থ
সোহেল সারোয়ার চঞ্চল২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ইং
বাংলাদেশ চতুর্থ
রোলবল বিশ্বকাপের স্বপ্নের ফাইনালে খেলার বীজ বুনেছিলেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা। কিন্তু সেটা তো হলোই না শেষ পর্যন্ত চতুর্থ স্থান নিয়ে শেষ করল বাংলাদেশ। শেষ হয়ে গেল বাংলাদেশে রোলবল বিশ্বকপের চতুর্থ আসর। ফাইনালে ভারত ৮-৭ গোলে ইরানকে হারিয়ে হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

এর আগে মেয়েদের ফাইনালে ভারত ইরানকে হারিয়ে দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হয়।

গত দুটি বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলেছে ইরান। কাল দুপুরে মিরপুরে ইনডোর স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে শক্তিশালী ইরানকে হারিয়ে ফাইনালে উঠার যে সাহস নিয়ে নেমে ছিলেন খেলোয়াড়রা, ম্যাচ শেষে তার উল্টোটা দেখেছেন দর্শক। ইরান ১১-৩ গোলে বাংলাদেশকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে।

বাস্তবতার কাছে হার মেনেছে মাহাদী, হূদয়, সোহাগের বাংলাদেশ। তারা পেরে উঠতে পারেনি। বাংলাদেশের চেয়ে ইরান অনেক এগিয়ে। ইরানের জালে বল রাখা কতোটা কষ্টসাধ্য তার সহজ উদাহরণ দেখা গেছে কাল। ইরানী গোলকিপার দুর্দান্ত খেলেছেন। তার সামনে রক্ষণভাগ ছিল নিশ্ছিদ্র। সোহাগ, হূদয়, মাহাদীরা চেষ্টা করেও ভাঙ্গন ধরাতে পারেননি। বল ছুড়লেই কারো না কারো গায়ে লাগবেই।  ২-০ গোলে পিছিয়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশের হূদয় ব্যবধান কমিয়েছিলেন ১-২। এরপর চতুর্থ ও পঞ্চম গোল হজম করে বাংলাদেশ। দলের গোলকিপার ইন্তিসার কি কারণে পোস্ট ছেড়ে উপরে উঠেও নামতে পারেননি। পুরো ম্যাচটা ঘুরে যায় ইরানের পক্ষে। ইন্তিসারকে বদল করে নতুন গোলকিপার নামিয়ে উল্টো গোলের পর গোল হজম করে বাংলাদেশ।

হূদয়, মাহাদীদের চেয়ে ইরানী খেলোয়াড়রা লম্বায় অনেক বেশি। মাসল অনেক শক্তিশালী। তার পরও ক্ষিপ্রগতির ইরান পেশী শক্তি ব্যবহার করে খেলেছে। নিয়ম অনুসারে ৬ বার ফাউল করলে পেনাল্টি পাবে প্রতিপক্ষ। পেনাল্টি হতে গোল করতে পারেননি হূদয়। ইরান স্কোর লাইন বেড়ে বড় হতে থাকে। গোলকিপার ইন্তিসারকে পুনরায় নামানো হলে থেমে যায় ইরান ঝড়। হূদয় আবার পেনাল্টি হতে গোল করেন। ম্যাচের তিন গোল হূদয়ের। বিশ্বকাপে ২৯ গোল হূদয়ের। দলের হেড কোচ আশরাফুল আলম মাসুম এবং দলের ভারতীয় কোচ সূনীল ছেলেদের খেলায় খুশি। যতটুকু এসেছে এটাই অনেক বেশি মনে করছেন তারা। ভারতীয় কোচ বললেন, ‘ইরান গত দুই ফাইনাল খেলেছে। তাদের বিপক্ষে আমাদের ম্যাচ ফাইনালের মতোই। আমার ছোটখাটো ভুলের জন্য হেরেছি।’ মাসুম বললেন, ‘ইরান অনেক কোঁচা দিয়ে খেলেছে। আমাদের ফেলে দেয়। ওরা উচ্চতায় অনেক বেশি এবং আমাদের চেয়ে শক্তিশালী।’ হূদয়ের কথা হচ্ছে আমরা পারি নাই। যা খেলেছি অনেক বেশি।’ ইরানী কোচ রোজা জাফরীও বলে গেলেন ইরানের চেয়ে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের শারীরিক উচ্চতা কম শক্তিও কম।’

দুপুরে ফাইনালে উঠতে না পারা বাংলাদেশ বিকালে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ খেলেছে কেনিয়ার বিপক্ষে। সেখানে হেরেছে ৭-১ গোলে। এখানেও ইরানী খেলোয়াড়দের মতোই লম্বা কেনিয়ার খেলোয়াড়রা। গোলকিপারের কানের কাছে গোলপাস্ট। 

মেয়েদের বিভাগে ভারত চ্যাম্পিয়ন

রোলবল বিশ্বকাপে মেয়েদের বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত। মেয়েদের গতকাল মিরপুরে ইনডোর স্টেডিয়ামে ভারত ৬-৪ গোলে ইরানকে হারিয়ে দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। 

যেখান থেকে বিশ্বকাপ শুরু

১৬ দেশ নিয়ে রোলবল বিশ্বকাপ শুরু হয়েছিল ২০১১ সালে। ভারতে হয় প্রথম আসর। ডেনমার্ক চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। ২২ দেশ নিয়ে ২০১৩ সালে নাইরোবিতে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় আসরে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত এবং রানার্সআপ হয় ইরান। ২০১৫ সালে ৩২ নিয়ে তৃতীয় আসর বসেছিল ভারতের পুনেতে। চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত এবং রানার্সআপ হয়  ইরান। বাংলাদেশ সপ্তম স্থান পেয়েছিল সেবার। এবার চতুর্থ আসরেও ফাইনাল খেলল ভারত এবং ইরান। পঞ্চম আসর কোথায় হবে সেটা ঢাকায় আসা আন্তর্জাতিক রোলবল ফেডারেশন কর্মকর্তারা গতকাল জানায়নি।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ইং
ফজর৫:১০
যোহর১২:১৩
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০১
এশা৭:১৪
সূর্যোদয় - ৬:২৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৬
পড়ুন