প্রোটিয়াদের জয়রথ থামালো নিউজিল্যান্ড
২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ইং
রস টেলরের অপরাজিত সেঞ্চুরি (১০২) ও বাঁহাতি স্পিনার মিচেল স্যান্টনারের নৈপুণ্যে নিউজিল্যান্ড ছয় রাতে হারালো দক্ষিণ আফ্রিকাকে। তাতে টানা ১৩টি ওয়ানডে জয়ের নতুন রেকর্ড গড়া হলো না দক্ষিণ আফ্রিকার।

নিউজিল্যান্ড ক্রাইস্টচার্চে নিজেদের পয়মন্ত মাঠ দ্য হ্যাগলি ওভালে জয়ের সুবাদে পাঁচ ম্যাচের এ সিরিজে ১-১ ব্যবধানে সমতা ফেরালো। হ্যামিল্টনে সিরিজের প্রথম ম্যাচটি জিতে নিজেদের টানা ১২ ওয়ানডে জয়ের পুরনো রেকর্ড ধরে রেখেছিল  প্রোটিয়ারা। কিন্তু রেকর্ড গড়ার খেলায় দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল পেরে উঠলো না। দুদলের তৃতীয় ওয়ানডেটি হবে ২৫ ফেব্রুয়ারি ওয়েলিংটনে।

টস হেরে ব্যাটিং নেওয়া নিউজিল্যান্ড দলীয় ১৩ রানে ওপেনার টম লাথামকে হারায়। ওপেনার ডিন ব্রাউনলি ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ৪০ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেন। ব্রাউনলি ৩৪ রানে ফিরে গেলে ক্রিজে উইলিয়ামসনের সঙ্গী হন টেলর।

টেলর ও উইলিয়ামসন তৃতীয় উইকেটে ১০৪ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়েন। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ২৯তম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে উইলিয়ামসন ফিরেন ৬৯ রানে। টেলর ১১০ বলে আটটি চারের মার মেরে শেষ পর্যন্ত ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৭তম সেঞ্চুরির তুলে ম্যান অব দ্য ম্যাচও হন।  তার ব্যাটিং নৈপুণ্যে ৫০ ওভারে চার উইকেটে ২৮৯ রান তোলে নিউজিল্যান্ড।

তিন অঙ্কের এ সংগ্রহের সুবাদে নিউজিল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক হলেন টেইলর। এ ছাড়াও নিউজিল্যান্ডের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে ৬০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি।

জয়ের জন্য ২৯০ রানের লক্ষ্যে ভালোই জবাব দিচ্ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু বড় ইনিংস খেলতে পারেনি কোনো  প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানই। ওপেনার কুইন্টন ডি ককের ৫৭ ও অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্সের ৪৫ রানে লড়াইয়ে ভালোভাবেই টিকে ছিল  প্রোটিয়ারা। কিন্তু দলীয় ১৯৯ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে ডি ভিলিয়ার্স ফিরে গেলে ম্যাচ থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। এরপরও নবম উইকেটে ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস ও আন্দিল ফেলুকুয়াইও’র ৪৪ বলে ৬১ রানের জুটিতে জয়ের ক্ষীণ আশা জেগেছিল সফরকারীদের। ৪৯তম ওভারের শেষ বলে প্রিটোরিয়াস ফিরে গেলে নয় উইকেটে ২৮৩ রানে থেমে যায় তারা। নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট তিনটি উইকেট নেন।-বাসস

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ইং
ফজর৫:১০
যোহর১২:১৩
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০১
এশা৭:১৪
সূর্যোদয় - ৬:২৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৬
পড়ুন