আফগানিস্তানে তুষারধসে ২০০ জনের মৃত্যু
বিবিসি, আল জাজিরা২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫ ইং
আফগানিস্তানে তুষারধসে ২০০ জনের মৃত্যু
আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের উত্তরাঞ্চলে ধারাবাহিক তুষারধসে অন্ততপক্ষে ২০০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে প্রশাসন। তবে আকস্মিক তুষারপাতের ঘটনায় স্থানীয় অধিবাসীরা অনেকেই বিস্মিত। স্থানীয় গভর্নর আবদুল রহমান কাবিরি বলেছেন, মসজিদ, স্কুল এবং কমপক্ষে ১০০ ঘর-বাড়ি তুষারের নিচে চাপা পড়েছে। এর ফলে অনেকেই আটকা পড়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বড় একটি এলাকা ২৪ ঘণ্টাই তুষারে ঢাকা পড়ে আছে। এর মধ্যে সৃষ্ট ঝড় ওই এলাকায় মারাত্মক বিপর্যয় ডেকে এনেছে বলে জানানো হয়েছে। তুষারধসের পর উপদ্রুত এলাকায় গেছে উদ্ধারকারী দল। উত্তর আফগানিস্তানে তুষারধস একটি সাধারণ ঘটনা। ২০১০ এবং ২০১২ সালের তুষারধসে ডজন ডজন মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

গভর্নর কাবিরি বলেন, তিন দশকের মধ্যে পানিশর প্রদেশে এই মাত্রার তুষারধসের ঘটনা ঘটেনি। তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের ২৫ মাইলের মতো তুষার পরিষ্কার করতে হবে’।

দুর্যোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পানিশর প্রদেশের বাইরে অন্ততপক্ষে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে প্রাণহানির সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়ে গেছে। এই সংখ্যা সঠিক হলে কয়েক বছরের মধ্যে এটাই হবে দেশটিতে তুষারধসে সর্বোচ্চ প্রাণহানির ঘটনা। ২০১২ সালে বাদাকশান প্রদেশে তুষারধসে কয়েকডজন মানুষের মৃত্যু হয়। আর ২০১০ সালে সালাং অঞ্চলে ২০ দফা তুষারধসে অন্ততপক্ষে ১৬৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ইং
ফজর৫:০৭
যোহর১২:১২
আসর৪:২৩
মাগরিব৬:০৪
এশা৭:১৬
সূর্যোদয় - ৬:২২সূর্যাস্ত - ০৫:৫৯
পড়ুন