রাজধানী | The Daily Ittefaq

যৌন নিপীড়ন রোধে তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসার আহ্বান

যৌন নিপীড়ন রোধে তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসার আহ্বান
ইত্তেফাক রিপোর্ট২৭ অক্টোবর, ২০১৮ ইং ০২:২৪ মিঃ
যৌন নিপীড়ন রোধে তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসার আহ্বান
ফাইল ছবি
এক সমীক্ষায় দেখা গেছে ২ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের মধ্যে শতকরা ৬৪ ভাগ নারী যৌন হয়রানির শিকার হয়। এটি দেশের সাফল্যের চিত্রের সাথে একেবারেই বেমানান। পিতৃতান্ত্রিক দৃষ্টিভঙ্গি সমাজে বিদ্যমান। নারী সভ্যতা ও উন্নয়নের বাহক। অথচ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি ও নির্যাতনের ঘটনায় সমাজ মনস্তত্ত্ব, রাষ্ট্র, পাঠ্যসূচির ভূমিকা রয়েছে। এখনো কোনো নারী নির্যাতনের শিকার হলে প্রশ্ন তোলা হয়। এ ধরনের পশ্চাত্পদ চিন্তা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে বলে জানান বক্তারা।
 
গত বৃহস্পতিবার ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ’৭১ মিলনায়তনে ‘উত্ত্যক্তকরণ, যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন প্রতিরোধে মহামান্য হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়ন’ বিষয়ক শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। ‘তরুণ সমাজ এগিয়ে আসুন; উত্ত্যক্তকরণ, যৌন নিপীড়ন সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ করুন’— এই স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি যৌথভাবে এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।
 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম বলেন, মানুষ যুক্তিবাদী, আমাদের যুক্তি দিয়ে সবকিছু বিচার করতে হবে। পশ্চাত্পদ ভাবনা, মন্দ কাজ থেকে দূরে থাকতে হবে। তিনি বলেন, ঘটনা না ঘটার জন্য প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা ও আমরা সবসময় সহিংসতা নিপীড়নমুক্ত শিক্ষাঙ্গন প্রত্যাশা করি।
 
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আয়শা খানম বলেন, রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন, নারীর অধিকারের যে স্বপ্ন দেখেছিলেন সেটা এখন বাস্তব। নারীরা এগিয়ে চলেছে। লাখ লাখ নারী বিভিন্ন পেশায় কাজ করছেন। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উজ্জ্বল চিত্র আমরা দেখতে পাই। পাশাপাশি সমাজে পিতৃতান্ত্রিক দৃষ্টিভঙ্গি বিদ্যমান। সমাজ মনস্তত্ত্ব, রাষ্ট্র, পাঠ্যসূচির এখানে ভূমিকা রয়েছে। এখনো কোনো নারী নির্যাতনের শিকার হলে প্রশ্ন তোলা হয়। তিনি বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি বা নির্যাতনের ঘটনা ঘটলে আমরা ব্যথিত হই। একটি সমীক্ষায় এসেছে ২ থেকে ১৮ বছর বয়সী মেয়েদের ৬৪ শতাংশই যৌন হয়রানির শিকার হয়।
 
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রক্টর অধ্যাপক ড. গোলাম মওলা চৌধুরী। বিশেষ আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন মহিলা পরিষদের ডিরেক্টর লিগ্যাল অ্যাডভোকেসি এন্ড লবি অ্যাড. মাকছুদা আখতার। মতবিনিম সভায় সভাপতিত্ব করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সহযোগী ডিন এবং যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধবিষয়ক অভিযোগ কমিটির চেয়ারপারসন অধ্যাপক ড. ফারহানা হেলাল মেহতাব। মতবিনিময় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু, সহ-সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মাসুদা রেহানা বেগম, অর্থ- সম্পাদক দিল আফরোজ বেগম, শিক্ষা ও সংস্কৃতি সম্পাদক বুলা ওসমান প্রমুখ। মতবিনিময় সভা সঞ্চালন করেন পরিষদের কেন্দ্রীয় লিগ্যাল এইড উপ-পরিষদের সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট দীপ্তি সিকদার।
 
ইত্তেফাক/আরকেজি
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৪ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৮
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪