চিরায়ত ভাবকথা
যার যেমন ভাবনা
কাজী কেয়া০৬ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
যার যেমন ভাবনা
 

এক গেরুয়া বসন পরা সন্ন্যাসী  গেঁয়োপথ ধরে হেঁটে চলেছেন। গলায় তাঁর রুদ্রাক্ষের মালা। হাতে  ত্রিশূল।  গাঁয়ের উত্তরে ছোট্ট এক নদী, দক্ষিণে ঘন বন। অপরূপ প্রাকৃতিক দৃশ্যে সাধুবাবা মোহিত হয়ে পড়েছেন।  থেমে  থেমে তিনি চলছিলেন। হঠাত্ খুব কাছ থেকে মনকাড়া এক পাখির ডাক ভেসে এল। ডাক শুনেই বোঝা যায় পাখিটা হট্টিটি। সে একভাবে হট্টিটি হট্টিটি... করে ডেকে চলেছে। সাধুবাবা পথে থেমে পড়লেন এবং মুগ্ধচিত্তে পাখির ডাক শুনতে থাকেন।

সেই পথ দিয়ে এক আদার ব্যাপারী  যেতে যেতে সাধুবাবাকে দেখে প্রণাম জানাল। সাধুবাবা মৃদু হেসে তাকে বললেন, হে পথিক, তুমি কি শুনতে পাচ্ছ পাখিটা  বলছে, রাম-লক্ষণ-দশরথ... রাম-লক্ষণ-দশরথ...।  লোকটা বস্তুত আদার ব্যাপারী তবে পিঁয়াজ-রসুনেরও ব্যবসা আছে তার।  আদা-রসুন-পিঁয়াজ নিয়েই তার কারবার। সে সাধুবাবার কথাটা মানতে পারল না। তার কাছে পাখির ডাকটা ‘পিঁয়াজ-রসুন-আদা’ বলে মনে হচ্ছে। সে তাই বলল, বাবা, আপনি ভুল শুনছেন। পাখিটা আসলেই  বলছে, পিঁয়াজ-রসুন-আদরত.. পিঁয়াজ-রসুন-আদরত..।

ব্যাপারীর কথায় সন্ন্যাসী রেগে গেলেন এবং বললেন, তোমার মনটা পরিষ্কার করো এবং কানটা খাড়া করো। শোনো ভালো করে। পাখিটা ‘রাম-লক্ষণ-দশরথ’ই বলছে। ব্যাপারী এটা মানতে নারাজ। সে তার ভাবনায় অনড় থাকল এবং সন্ন্যাসীর সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়ল।

তাদের তর্কের মধ্যেই পথচারী এক বিদেশি এসে দাঁড়ালেন। তাঁর বাড়ি ইরানের নিজাম শহরে। তিনি পাখির ডাকটা মন দিয়ে শুনে বললেন, আপনারা অযথা বচসা করছেন। পাখিটা ওসব কিছুই বলছে না। সে বলছে, নিজাম শহর বদরত... নিজাম শহর বদরত...। অর্থাত্ নিজাম শহর বৃহত্... নিজাম শহর বৃহত্। এমন অবস্থায় তর্কের পরিধি দুই মুখ থেকে তিন মুখে দাঁড়াল। ত্রিমুখের বিতর্কের তোড় যখন আরো তুঙ্গে, তখন এক হুজুর তাদের দিকে এগিয়ে এলেন। তিনি মসজিদের  দিকে যাচ্ছিলেন। তিনি তাদের তর্কের হেতুটা সম্পর্কে জানতে চাইলেন। তারা নিজ নিজ পক্ষে যুক্তি দেখিয়ে আসল ঘটনা খুলে বলল।

হুজুর তাদের কথা শুনে একটু থামলেন। পাখিটা তখনও নাগাড়ে ডেকে চলেছে। হুজুর বার-কয়েক হট্টিটির ডাক শুনে বললেন, ভুল সবই ভুল। তোমরা তিনজনই ভুল শুনেছ। পাখিটা  স্রষ্টার স্তুতি গাচ্ছে। সে  বলছে—সব খোদাকি কুদরত... সব খোদাকি কুদরত...। অর্থাত্ সবই আল্লাহর অবদান... সবই আল্লাহর অবদান। হুজুর পাখির ডাকের এই ব্যাখ্যা দিয়েই মাথার টুপিটা ঠিক করতে করতে ছুটলেন মসজিদের দিকে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৬ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৬
যোহর১১:৪৭
আসর৪:০৩
মাগরিব৫:৪৫
এশা৬:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৫১সূর্যাস্ত - ০৫:৪০
পড়ুন