সঙ্গীতে আলোড়ন
২৭ আগষ্ট, ২০১৫ ইং
সঙ্গীতে আলোড়ন
আমেরিকান গায়িকা এরিয়ানা গ্র্যান্ড খুব কম সময়ের মধ্যে সাফল্যের অনেকগুলো ধাপ অতিক্রম করেছেন। এই মুহূর্তে তাকে অন্যতম সেরা জনপ্রিয় গায়িকা বিবেচনা করা হচ্ছে পপ মিউজিক অঙ্গনে। সুন্দরী প্রাণবন্ত আকর্ষণীয় মেধাবী কণ্ঠ তারকা এরিয়ানার কথা তুলে ধরেছেন

রেজাউল করিম খোকন

 

এরিয়ানা গ্র্যান্ডের বয়স মাত্র ২২ চলছে বর্তমানে। অথচ এই বয়সেই অনেকগুলো সাফল্য তাকে খ্যাতি ও জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে দিয়েছে। আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে সেরা নতুন শিল্পী বিবেচিত হয়েছেন দু’বছর আগেই। মিউজিক বিজনেস অ্যাসোসিয়েশনও তাকে সেরা নতুন গায়িকা নির্বাচন করেছে ২০১৩ সালে। গত বছর এমটিভি ভিডিও মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে ‘বেস্ট পপ ভিডিও’ পুরস্কার লাভ করেছে এরিয়ানার মিউজিক ভিডিও। একই সঙ্গে এমটিভি ইউরোপ মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে সেরা পপ ভোকাল, অ্যালবাম এবং সেরা দ্বৈত পপ স্বীকৃতি পেয়েছে। গ্রুপ পারফর্ম্যান্স ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন লাভ করেছেন এই তন্বী গায়িকা। ফ্লোরিডায় জন্ম এরিয়ানার। খুব অল্প বয়স থেকেই গানের প্রতি তার ঝোঁক লক্ষ্য করা যায়। মাত্র ১৩ বছর বয়সেই ব্রডওয়ে মিউজিক্যাল দিয়ে তার ক্যারিয়ার শুরু। অবশ্য তার আগেই বিভিন্ন টিভি সিরিজে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা হয়েছে তার। ২০০৯ সালে নিকোলোডিয়ান টেলিভিশনের ‘ভিক্টোরিয়াস’ সিরিজে ক্যাট ভ্যালেন্টাইন চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শক-সমালোচকদের প্রশংসা অর্জন করেন। এই সিরিজের চারটি সিজনেই তাকে দেখা গেছে। এ ছাড়া তার অভিনীত মঞ্চ নাটক, টিভি সিরিজ, সিনেমার সংখ্যা কম নয়। বিশেষ করে অ্যানিমেটেড সিরিজ এবং সিনেমায় বিভিন্ন চরিত্রের নেপথ্য কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। সুন্দরী গায়িকা অভিনেত্রী হিসেবে রীতিমতো আইকনে পরিণত হয়েছেন এরিয়ানা গ্র্যান্ড। এ পর্যন্ত বহু টিন এবং মিউজিক ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ কন্যা হয়েছেন তিনি। তার মিউজিক ক্যারিয়ারের শুরু ‘ভিক্টোরিয়াস’ টিভি সিরিজের গানে কণ্ঠদানের মাধ্যমে। ২০১৩ সালে রিপাবলিক রেকর্ড থেকে এরিয়ানার ডেব্যু স্টুডিও অ্যালবাম ‘ইয়ুরস ট্রুলি’ বের হয়। যা ইউএস বিলবোর্ড ২০০-এর শীর্ষে ঠাঁই পেয়ে যায় অনায়াসেই। ওই অ্যালবামে তার গাওয়া ‘দ্য ওয়ে’ গানটি বিলবোর্ড হট হানড্রেডের টপ টেন হিট গানের অন্যতম একটি হিসেবে গণ্য হয়। এরিয়ানার দ্বিতীয় স্টুডিও অ্যালবাম ‘মাই এভরিথিং’ প্রকাশিত হয় ২০১৪ সালে। এটাও আমেরিকান টপ চার্টে পৌঁছে যায় সহজে। এই অ্যালবামে তার হিট সিঙ্গেলসের মধ্যে ‘প্রবলেম’ এবং ‘ব্রেক ফ্রি’ গানগুলো রয়েছে। এছাড়াও তার গাওয়া উল্লেখযোগ্য গান ‘ব্যাং ব্যাং’, ‘লাভ মি হার্ডার’ও একটানা ৩৪ সপ্তাহ ধরে বিলবোর্ড হট হানড্রেডের টপ টেনে জায়গা দখল করেছিল। সেটা ছিল নজিরবিহীন একটি ব্যাপার। ২০১৪ সালে কোনো শিল্পীর সেরা দশটি সিঙ্গেলস থাকার অনন্য সৌভাগ্য অর্জন করেন এরিয়ানা। এ বছর তিনি উত্তর আমেরিকা এবং ইউরোপে তার নিজস্ব অ্যালবাম ‘মাই এভরিথিং’-এর প্রচারণা চালাচ্ছেন ‘দ্য হানিমুন ট্যুর’-এর মাধ্যমে। গানের পাশাপাশি অভিনয়েও সময় দিচ্ছেন এই মেধাবী জনপ্রিয় তরুণী। ফক্স টিভির প্রচারিতব্য নতুন কমেডি হরর টিভি সিরিজ ‘স্ক্রিম কুইনস’-এ তাকে দেখা যাবে বিশেষ একটি চরিত্রে। এর বাইরে বর্তমানে তৃতীয় স্টুডিও অ্যালবাম ‘মুনলাইট’-এর কাজ শুরু করে দিয়েছেন এরিয়ানা গ্র্যান্ডে। ধারণা করা যায়, তার আগামী অ্যালবামও সাফল্যের নতুন উচ্চতায় পৌঁছে দেবে তাকে। এরিয়ানা সাফল্যের মন্ত্র আয়ত্ত করে ফেলেছেন গানে এবং অভিনয়ে নিজেকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে দুনিয়াজুড়ে অগণিত শ্রোতা, ভক্ত, অনুরাগীকে সঙ্গে রাখতে চান তিনি।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪০
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পড়ুন