অভিনয়ের সারথি
০৩ মার্চ, ২০১৬ ইং
অভিনয়ের সারথি
টিভি নাটকের পরিচিত মুখ আইরিন তানি। ক্যারিয়ারের শুরুতে চলচ্চিত্র দিয়ে অভিনয়ে অভিষেক হলেও টিভিপর্দায় তার বেশি উপস্থিতি পাওয়া যায়। সদা হাস্যোজ্জ্বল এই অভিনেত্রীর হালের ব্যস্ততা নিয়ে লিখেছেন অজেয় চৌধুরী

 

সবসময়ই অভিনয়ের প্রতি তার আলাদা একটা ভালোবাসা কাজ করে। তাই তো অভিনয় ছাড়া কিছুই ভাবতে পারেন না। কাজ করছেন অসংখ্য ধারাবাহিকে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ‘লং মার্চ’, ‘রেড সিগনাল’, ‘হাডুডুু, ‘ফুল আর কাঁটা’ ইত্যাদি। তানির মিডিয়ায় পথচলা শুরু হয় এনটিভি প্রযোজনায় নির্মিত ‘বিদ্রোহী পদ্মা’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। সম্প্রতি শেষ করলেন জাহিদ হাসানের ‘সাহেব বাবুর বৈঠকখানা’ ধারাবাহিকের কাজ এবং সামনে অভিনয় করবেন ‘ভ্যাগাবন্ড’ নামের নতুন আরেকটি ধারাবাহিকে। এছাড়া সমাজ সচেতনতামূলক শর্ট ফিল্ম ‘চোখ’-এ কাজ করেছেন তিনি। বর্তমানে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন আসছে ঈদের জন্য নির্মিত কিছু নাটকে অভিনয় নিয়ে। অভিনয়ের পাশাপাশি তানি বেশ কিছু মানসম্পন্ন বিজ্ঞাপনচিত্রেও কাজ করেছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ মেলামাইন, ডিভাইন সিটি, প্রাণ আচারসহ বেশ কিছু কাজ করেছি। এরমধ্যে আরও দুটি বিজ্ঞাপনের কাজ করেছি, শীঘ্রই হয়তো প্রচার শুরু হবে, প্রস্তুতি চলছে। তবে বিজ্ঞাপন নিয়ে আমার স্বপ্ন অনেক বড়। ভালো বিজ্ঞাপনে কাজ করতে চাই, যে কাজ মানুষ বহুদিন মনে রাখবে। অপেক্ষার আছি সেরকম কাজের যেখানে নিজেকে তুলে ধরতে পারব। আমি পরিশ্রমে বিশ্বাস করি, সততায় বিশ্বাস করি, টিম স্পিরিটে বিশ্বাস করি। তাই সেরকম কোনো কাজ পেলে অবশ্যই নিজের সর্বোচ্চ পরিশ্রম দিয়ে কাজ করতে তৈরি আছি।’ সবকিছুর পর তানির কাছে থিয়েটারই আপন। তাই তিনি সুযোগ পেলে চট্টগ্রাম চলে যান। ওখানেই থিয়েটারে কাজ করেন। ওখানেই তার বেড়ে ওঠা। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে তানি অভিনয় করেছেন নিজের গ্রুপ ‘থিয়েটার চট্টগ্রাম’-এ। মুক্তিযুদ্ধ তানির বিশেষ আগ্রহের ক্ষেত্র। যুদ্ধে নারীর অবদান নিয়ে করা যেকোনো কাজে যুক্ত হতে চান। তার ভাষ্যে, ‘যদি হতে পারি কখনো, তাহলে এই জীবনের পথচলা সার্থক হবে বলে বিশ্বাস করি।’ অভিনয় ছাড়াও নিজের কিছু পরিকল্পনা রয়েছে তার। এ প্রসঙ্গে তানি বলেন, ‘আমি অভিনয়ের পাশাপাশি সমাজসেবামূলক কাজে ধীরে ধীরে আগ্রহী হয়ে উঠছি। ব্যক্তিগতভাবে আমি অসহায় বাচ্চাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি সবসময়। তবে ভাবছি এটাকে ছোট করে হলেও প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়া যায় কিনা। ইনশাল্লাহ সেটা করব। আমি খুবই ছোট মানুষ তবে বিশ্বাস করি, ছোট ছোট চেষ্টা সমাজকে বদলে দিতে পারে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমার স্বপ্ন অনেক বড়। আমি অনেক আত্মবিশ্বাসী। বিশ্বাস করি, মানুষ স্বপ্নের মধ্যে বাঁচে। বিশ্বাস করি নারী স্বাধীনতায়, নারী-পুরুষের সমতায়। আমি নিজের গাড়ি নিজে চালাই, নিজের কাজ নিজে করি। নারীকে যারা অসম্মান করে, তাদেরকে প্রশ্রয় দিই না। এরকম সাবজেক্ট নিয়ে যদি কেউ কাজ করতে চান এবং এরকম কাজে যদি যুক্ত হতে পারি তাহলে আনন্দচিত্তে সেই কাজ করব। বাচ্চাদের নিয়ে কাজ করতে আমি খুব আগ্রহী। শিশুদের কাজের প্রতি আমার বিশেষ আগ্রহ আছে।’

ছবি সোহেল মামুন

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩ মার্চ, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১২:১১
আসর৪:২৪
মাগরিব৬:০৫
এশা৭:১৮
সূর্যোদয় - ৬:১৯সূর্যাস্ত - ০৬:০০
পড়ুন