এক বিকেলে দুজনের সঙ্গে
২১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
এক বিকেলে দুজনের সঙ্গে
মোশাররফ করিম ও তারিন, দুজনই একে অন্যের অভিনয়ের ভক্ত। খুব বেশি নাটকে যে তারা একসঙ্গে অভিনয় করেছেন এমনটি নয়। তবে এটা বলতেই হয়, যে কাজগুলো তারা একসঙ্গে করেছেন, সেগুলো দর্শকপ্রিয় হয়েছে। সম্প্রতি শীতের এক বিকেলে তাদের সঙ্গে দেখা হওয়ার গল্প নিয়ে লিখেছেন নূপুর বন্দ্যোপাধ্যায়

বেশ কিছুদিন যাবত অসুস্থ ছিলেন মোশাররফ করিম। ডাক্তারের নির্দেশে কিছুদিন বিশ্রামেও থাকতে হয় তাকে। তবে চলতি মাসের শুরুতে তিনি গিয়েছিলেন মালয়েশিয়ায়, স্ত্রী ও সন্তানসহ। সেখানে নিজের মতো করে সময় কাটিয়েছেন তিনি। তবে দেশে ফেরার আগে শামীম জামানের নির্দেশনায় তিনি ‘মওকা মালয়েশিয়া’ নামের একটি ধারাবাহিক নাটকের কাজ করেন সেখানে। পরিচালকের ইচ্ছেতে অনেক আরাম নিয়েই কাজ করেছেন মোশাররফ করিম। দেশে ফিরে মোশাররফ করিম তার পুরোনো সিডিউলে ফিরলেও নিয়ম বেঁধে কাজ করার চেষ্টা করছেন। যে ইউনিটেই কাজ করছেন তিনি। তার সুস্থতার দিকে বিশেষ মনোযোগ রাখছেন প্রত্যেক ইউনিটের সবাই। এরইমধ্যে তারিনের সঙ্গে নতুন একটি খণ্ড নাটকের কাজ করেছেন তিনি। অবশ্য পরিচালকের কাছ থেকে জানা যায়, আগামী ঈদের নাটকের কাজ তিনি এখনই শুরু করেছেন। কারণ ঈদ যত ঘনিয়ে আসে মোশাররফ করিমের ব্যস্ততা ততই বেড়ে যায়। তবে এবারের ঈদে অন্যান্য ঈদের মতো চাপ নিয়ে কাজ করবেন না বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন মোশাররফ করিম। তাই তিনি নিজেও চেষ্টা করছেন ঈদের নাটকের কাজগুলো অনেক আগে থেকেই গুছিয়ে আনতে। ফাঁকে ফাঁকে ধারাবাহিক নাটক এবং অন্যান্য বিশেষ দিবসের কাজগুলোও শেষ করবেন। দেশে ফেরার পর মোশাররফ করিম শামীম জামানেরই নির্দেশনায় ঈদের বিশেষ নাটক ‘ক্যারিয়ার’-এর কাজ করলেন। ফজলুল সেলিমের রচনায় এই নাটকে তারিনের সঙ্গে অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিম। শামীম জামানের নির্দেশনায় ‘ভণ্ড প্রেমিক’ নাটকে প্রায় পাঁচবছর আগে একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন মোশাররফ করিম ও তারিন। এরপর শামীম জামানের নির্দেশনায় তাদের দুজনের আর একসঙ্গে কাজ করা হয়ে ওঠেনি। তবে ভিন্ন পরিচালকের নির্দেশনায় তারা কাজ করেছেন। এতে মোশাররফ করিম ও তারিন স্বামী-স্ত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। তাদের সন্তানের ভূমিকায় অভিনয় করেছে শিশুশিল্পী শব্দ। নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে মোশাররফ করিম বলেন, ‘আমরা যারা একটু যত্ন করে অভিনয় করতে চাই, একটু মনোযোগ দিয়ে অভিনয় করতে চাই, তাদের চাওয়া একটাই থাকে। আর তা হলো অভিনয় করার মতো একটি পরিবেশ। সেই জরুরি পরিবেশটাই দারুণভাবে পেয়ে থাকি বন্ধু শামীম জামানের নাটকের কাজ করতে গেলে। ক্যারিয়ার নাটকের কাজ করতে গিয়ে সেই পরিবেশই পেয়েছি আমি। আর এ নাটকে আমার সহশিল্পী তারিন সম্পর্কে যদি মূল্যায়ন করতে হয়, তাহলে একটি কথাই বলব, সে অনেক গুণী একজন শিল্পী, আমার পছন্দের একজন শিল্পী। সে সবসময়ই অভিনয়টা মন দিয়ে যত্ন নিয়ে করতে চায়। এটা সবার ক্ষেত্রে হয় না। তারিন পারে বলেই তারিন অন্য অনেকের চেয়ে আলাদা।’ তারিন বলেন, ‘একটি পরিবারে সন্তানের মানসিক বিকাশে যৌথ পরিবারের ভূমিকা অনেক। স্বামী-স্ত্রীর একার পক্ষে একটি সন্তানকে ভালোভাবে মানসিক বিকাশের মধ্যদিয়ে মানুষ করে তোলা কঠিন। কিন্তু যৌথ পরিবারে সন্তানরা সুস্থভাবে, ভালোভাবে মানসিক বিকাশের মধ্যদিয়ে মানুষ হয়ে ওঠে। ক্যারিয়ার নাটকের বিষয়বস্তু এমনই এবং সময়োপযোগী একটি গল্পের নাটক। মোশাররফ ভাই সুস্থ হয়ে দেশে ফেরার পর তার সঙ্গে এটা আমার প্রথম কাজ। তার সহশিল্পী হিসেবে এবং দর্শক হিসেবেও তার অভিনয় সবসময়ই আমি দারুণ উপভোগ করি। মোশাররফ ভাইয়ের মতো একজন গুণী শিল্পীকে সুস্থ কাজের পরিবেশ দিয়ে তাকে সুস্থ রাখার দায়িত্ব আমাদের সকলের। এমন গুণী শিল্পীদের নিয়ে নাট্য রচয়িতাদের, নির্মাতাদের ভাবা উচিত।’ মোশাররফ করিম ও তারিন অভিনীত সর্বশেষ দর্শকপ্রিয় নাটক হলো সাগর জাহানের ‘চুপ! ভাই কিছু বলছে’। এতে মোশাররফ করিম ও তারিনের অনবদ্য অভিনয় দর্শককে মুগ্ধ করেছে। এটি গত বছর ঈদে প্রচারিত হয়। সাগর জাহান পরিচালিত মোশাররফ করিম ও তারিন অভিনীত ‘ল্যাম্পপোস্ট’ ধারাবাহিকটি এই সময়ের আলোচিত একটি নাটক। এদিকে তারিন গতকাল থেকে নবাবগঞ্জে গোলাম সোহরাব দোদুলের নির্দেশনায় নতুন ধারাবাহিক নাটকের কাজ শুরু করেছেন। দোদুলের নির্দেশনায় তিনি গত ঈদে চঞ্চল চৌধুরীর সঙ্গে ‘প্রিয় রঞ্জনা’য় অভিনয় করেছিলেন। সহশিল্পী অনেকেই নির্দেশনায় এসেছেন, আপনাকে কী এই আঙ্গিনায় দেখা যাবে? প্রশ্নটা ছিল মোশাররফ করিমের কাছে। এমন প্রশ্নের জবাবে মোশাররফ করিম বলেন, ‘নাটক প্রযোজনা করেছি, তবে নির্দেশনা নিয়ে কখনো কখনো ভাবি, আবার ভাবিও না। ইচ্ছে করে নির্দেশনা দেওয়ার। হয়তো দিতেও পারি। আবার এমনও হতে পারে হয়তো কোনোদিনই দেওয়া হবে না। অভিনয়টাই মনোযোগ দিয়ে করে যাই আপাতত।’

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২১ নভেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৫:১৬
যোহর১১:৫৭
আসর৩:৪১
মাগরিব৫:২০
এশা৬:৩৭
সূর্যোদয় - ৬:৩৬সূর্যাস্ত - ০৫:১৫
পড়ুন