আকাশ থেকে পড়ল কি!
১৩ জুন, ২০১৬ ইং
অনেক সময় পৃথিবীতে এমন আজব জিনিস ঘটে থাকে যার কোনো সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা মেলে না। জলবায়ুর স্বাভাবিক নিয়ম অনুযায়ী বায়ুমণ্ডলের ভেতরে আকাশ থেকে পৃথিবীর বুকে ঝরবে বৃষ্টি, শিলা, তুষার; অন্যকিছু নয়। কিন্তু এই নিয়মকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে বিভিন্ন সময়ে এমন কিছু জিনিস পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়েছে যা শুনলে বিস্ময়ে চোখ কপালে ওঠার যোগাড় হয়। এমন কিছু ‘আশ্চর্য পতনের’ কথা তুলে ধরেছেন- আশেক খান আলেখীন

আলাস্কায় পড়েছিল বিশাল বিশাল সামুদ্রিক বাইন

২ ০১৫ সালের জুনের এক বিকেলে যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কার একটি শহরে হঠাত্ আকাশ থেকে পড়তে শুরু করে বিশাল বিশাল সব সামুদ্রিক অদ্ভুতদর্শন মাছ। এমন আজব কাণ্ড দেখে সবাই অবাক তো হয়ই, সেই সঙ্গে আতঙ্কে ছুটাছুটি শুরু করে দেয়। ধারালো করাতের মতো দাঁতালো মাছগুলো দেখলে ভয় লাগারই কথা। রাস্তায়, লোকজনের বাগানে পড়ছিল গাদা গাদা এই বিদঘুটে চেহারার মাছ। এগুলোর অধিকাংশই ছিল মৃত, তবে বেশকিছু মাছ বেঁচেও ছিল।

 

চিনির বৃষ্টি

যু ক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার লেক কাউন্টিতে ঘটেছিল এই আজব ঘটনাটি। ১৮৫৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ২ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত লেক কাউন্টির বিভিন্ন স্থানে হয়েছিল চিনির বৃষ্টি। বড় বড় চিনি দানায় ভরে গিয়েছিল রাস্তাঘাট, বাড়ি-ঘর। বাড়ির গিন্নিদের কেউ কেউ আবার ফাও পাওয়া সেই চিনি কুড়িয়ে নিয়ে নানারকম মিষ্টান্ন বানাতে শুরু করে দেয়।

 

রক্তের বৃষ্টি

ক লম্বিয়ার লা সিয়েরা চোকো শহরে ২০০৮ সালে ঘটেছিল এই সৃষ্টি ছাড়া ঘটনাটি। একদিন হঠাত্ লাল রঙের বৃষ্টির ফোটা পড়তে শুরু করলো শহরটিতে। এক সময়ে অঝোর ধারায় ঝরতে থাকলো রক্তলাল বৃষ্টি। অনেকেই ভিজে রক্তলাল হয়ে গেল। পুরো শহরে ছড়িয়ে পড়লো আতঙ্ক। প্রথমে অনেকে ভেবেছিল বৃষ্টির রঙটাই লাল, কোনোভাবেই তা রক্ত হতে পারে না। কিন্তু ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করে দেখা গেল আসলে ওটা রক্তই। তখন লোকজন আরও আতঙ্কিত হয়ে পড়লো। এক ধর্মযাজক তো বলেই বসলেন কলম্বিয়ানদের ক্রমবর্ধমান সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে বিরক্ত হয়ে সৃষ্টিকর্তা তাদেরকে সুপথে আনার জন্যই এই ‘রক্তবৃষ্টি’র বার্তা পাঠিয়েছেন।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন