ফুলবাড়ীতে সেতু আছে সড়ক নেই
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
ফুলবাড়ীতে সেতু আছে সড়ক নেই
অনিল চন্দ্র রায়, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা 

ফুলবাড়ী উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের বারোমাসিয়ার ছড়ার ওপর নির্মিত সেতুটির দুই পাশের সংযোগ সড়ক ভেঙে গেছে। ফলে সেতুটি থেকেও কাজে আসছে না। বন্যায় সেতুর দুই পাশে রাস্তা ভেঙে যাওয়ায় এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগে পড়েছে।

নবির উদ্দিন, আসাদুল ইসলাম, আছমত আলী ও শাহার উদ্দিনসহ আরো এলাকাবাসী জানান—দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবি ছিল এই সেতুটি। এই সেতু দিয়ে চর-গোরকমন্ডল এলাকার লোকজন সহজেই বালারহাট বাজার হয়ে ফুলবাড়ী সদরের পৌঁছেন। সে কারণে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সেতু/কালর্ভাট নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ওই বারোমাসিয়া ছড়ার ওপর দিয়ে ৪০ ফুট দৈর্ঘ্য সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে।  সেতুটি নির্মাণ হওয়ায় উপজেলার আনন্দবাজার, চর-গোরকমন্ডল, কলির চর, খোরচর, চর-খারুয়া কান্দাপাড়া, জাউকুটি, জামাকুটি, চর, পেঁচাই, বাঘের চর এলাকাবাসীর একমাত্র যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হয়। তাই ওই সব এলাকার লোকজন ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা সেতু দিয়ে চলাচল করে আসছে। এমন কি ওই এলাকার কোনো রোগী অসুস্থ হলে তাকে দ্রুত সময়ে ফুলবাড়ী হাসপাতালে আনা যেত। সাম্প্রতিক ভয়াবহ বন্যায় সেতুর দুই পাশে সমস্ত রাস্তাঘাট ভেঙে গেছে। বর্তমানে দাঁড়িয়ে আছে সেই কাঙ্ক্ষিত সেতুটি। বন্যায় রাস্তা ঘাট ভেঙে যাওয়ার প্রায় ৬ থেকে ৭ মাস অতিক্রম হয়েছে। এখনো ওই এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাঘাট সংস্কার হচ্ছে না।

নাওডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান মুসাব্বের আলী মুসা বলেন, ‘অনেক চেষ্টার পর সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে। এবারের ভয়াবহ বন্যায় এভাবে রাস্তা-ঘাট ভেঙে যাবে এটা কল্পনার অতীত। বর্তমানে ওই এলাকার মানুষজন অনেক কষ্টে নিচ দিয়ে চলাফেরা করছে। ইউনিয়নে এখনো প্রায় আট কিলোমিটার সড়ক ভাঙা। বন্যার পর পরেই প্রশাসনকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। খুব শিগগির ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তার সংস্কার কাজ শুরু হবে বলে প্রশাসন থেকে জানানো হয়।’

এ প্রসঙ্গে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সবুজ কুমার গুপ্ত বলেন, ‘ওই সময় সেতুটি নির্মাণ করে দিয়েছে একটি ঠিকাদান প্রতিষ্ঠান। এবারের বন্যায় সেতুর সংযোগ সড়কটি দুই পাশে ভেঙেছে। বিষয়টি তালিকা করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। বর্তমানে কোনো বরাদ্দ নেই। সামনে কাবিখা ও কাবিটা বরাদ্দ আসলে পূর্ণ সংস্কারের ব্যবস্থা করা হবে।’

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন