রাজশাহীর বাজারে ঝাঁজ ছড়াচ্ছে পেঁয়াজ, অস্থির বেগুন
৩০ এপ্রিল, ২০১৮ ইং
স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী

রাজশাহীর বাজারে অস্থির হয়ে উঠেছে দেশি পেঁয়াজের দাম। লাগামহীনভাবে বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় এ পণ্যটির দাম। গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে পণ্যটির দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ থেকে ১২ টাকা। বর্তমান বাজারে এ পণ্যটি বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা কেজি দামে। বাজার ঘুরে দেখা যায়, দেশি পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেলেও আমদানিকৃত পিঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা দামে। প্রতিবছর রমজান মাসকে সামনে রেখে আপনাআপনি বেড়ে যায় পেঁয়াজের দাম। এ ছাড়া সপ্তাহের ব্যবধানে মাংসের দাম বেড়েছে ১০ থেকে ২০ টাকা। তবে মাছের দাম স্থিতিশীল রয়েছে।

শনিবার নগরীর মাস্টারপাড়া সবজি বাজার ঘুরে দেখা যায়, সবজির দাম ঊর্ধ্বমুখী। গত সপ্তাহের তুলনায় কিছু কিছু সবজির দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ থেকে ১৫ টাকা পর্যন্ত। গত সপ্তাহে ৫০ টাকায় বিক্রি হওয়া বেগুন বর্তমান বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা দামে। এছাড়া গত সপ্তাহে ৫০ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হওয়া সাজনা বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকা দামে। এভাবে কমবেশি প্রতিটি সবজির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে গত সপ্তাহের তুলনায়। এছাড়া টমেটো ২০ টাকা থেকে দাম বেড়ে ২৫ টাকা, করলা ৩৫ টাকা থেকে বেড়ে ৪০ টাকা, কাঁকরোল ৫০ টাকা থেকে বেড়ে ৬০ টাকা, গাঁজর ২৫ থেকে বেড়ে ৩০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।

সবজি ব্যবসায়ী হারুন-আর- রশিদ বলেন, রমজানকে কেন্দ্র করে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও সবজির দাম কিছুটা বেড়েছে। শীতের সবজি শেষ হয়েছে। গরমের সবজি বাজারে আছে। সরবরাহ কম থাকায় দাম কিছুটা বেশি। তবে রমজানকে কেন্দ্র করে দাম আরো বাড়তে পারে বলেও জানান তিনি।

আরেক সবজি ক্রেতা আনুয়ার হোসেন বলেন, সবজির দাম গত সপ্তাহের তুলনায় অনেক বেড়েছে। প্রতি সপ্তাহে সবজির দাম বাড়তেই আছে। রমজান আসতে এখনো ২০ দিন বাকি। এরমধ্যে সবজি বাজারে যেভাবে দাম বাড়ছে তাতে রমজান আসতে আসতে দাম ধরা-ছোঁয়ার বাইরে চলে যাবে।

মাংসের বাজার ঘুরে দেখা যায় মাংসের দাম ঊর্ধ্বমুখী। দুই সপ্তাহের ব্যবধানে মাংসের দাম কোনো কোনো ক্ষেত্রে বেড়েছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা। গত সপ্তাহে ২২০ টাকা দামে বিক্রি হওয়া সোনালি মুরগি শনিবার ২৪০ টাকা দামে বিক্রি হয়েছে।

এ ছাড়া গত সপ্তাহে ১২৫ টাকা দামে বিক্রি হওয়া ব্রয়লার মুরগি ১৩৫ টাকা, ১৫০ টাকার কক ১৬০ টাকা দামে বিক্রি হয়েছে। এ ছাড়া দাম স্থিতিশীল রয়েছে গরু, মহিষ ও খাসির মাংসের দাম।

মাংসের দাম বাড়ানো সম্পর্কে ব্যবসায়ীরা বলেন, চাহিদার তুলনায় মুরগির যোগান কম হওয়ার কারণে দাম বেড়েছে। এ ছাড়া গ্রীষ্মকালীন সময়ে খামারে মুরগির অনেক ক্ষতি হওয়ায় খামারিরা দাম বেশি নিচ্ছে।

এ ছাড়া রোজাকে কেন্দ্র করে প্রতিবারই মুরগির দাম কিছুটা বাড়ে। তবে গত সপ্তাহের সাথে সামঞ্জস্য রয়েছে মাছের দাম। শনিবার বাজারে রুই মাছ ২২০ থেকে ২৮০ টাকা, কাতল মাছ ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা, পুঁটি মাছ ২০০ থেকে ১৬০ টাকা, গ্লাসকার্প ১৫০ থেকে ১৮০ টাকা দামে বিক্রি হয়েছে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩০ এপ্রিল, ২০২১ ইং
ফজর৪:০৪
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩২
মাগরিব৬:২৯
এশা৭:৪৭
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৪
পড়ুন