২০১৮ নতুন বছরে নতুন ভাবনা
২৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
২০১৮ নতুন বছরে নতুন ভাবনা
হাটি হাটি পা পা করে ২০১৭ শেষ। শেষ হলো একটি অধ্যায়ের। সূচনা হতে যাচ্ছে নতুন একটি বছরের। নতুন বছর মানে নতুন ভাবনা। নতুন কোনো উদ্যমে এগিয়ে যাওয়া। ৩৬৫ দিনের এ বছরটির প্রতিটা মুহূর্ত ছিল শিক্ষার্থীদের কাছে রঙ্গে-রাঙ্গা। কোনো না কোনো কারণে স্মরণীয়। ছিল ভিন্নতার ছোঁয়া। শিক্ষার্থীরা ভাবছেন ২০১৭-র ভুল-ত্রুটিগুলোকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাবেন সামনের দিকে। কি পেলাম আর কি পেলাম না এইসব নিয়ে না ভেবে সাজাতে চান ২০১৮ কে নিজের মত করে। শিক্ষার্থীরা কেমন ছিলেন ২০১৭-তে আর ২০১৮-ই বা কেমন হবে ইত্যাদি নানান বিষয়াদি নিয়ে কথা হয় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সাথে। তাদের নিয়ে লিখেছেন মো. আল-আমিন

সাদিকা আফরিন আনন্দী

শিক্ষার্থী, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, আহসানউল্লাহ

ইউনিভার্সিটি অফ সাইন্স এন্ড টেকনোলজী

 

২০১৭ সাল আমার কাছে আনন্দের একটি বছর। কারণ এ বছরই আমি আমার শিক্ষাজীবনের সবচেয়ে আনন্দের ধাপটি পার করেছি। আমি এ বছর গ্র্যাজুয়েশন শেষ করলাম। আমি এখন একটি প্রাইভেট জব করছি। ২০১৭-তে আমি অনেক সময় পেয়েছি। আমরা বন্ধুরা একসাথে নতুন নতুন জায়গায় ঘুরতে গিয়েছি। আনন্দ করেছি অনেক। নতুন বছরকে সামনে রেখে আমার অনেক পরিকল্পনা রয়েছে। আমি আরো বেশি শিক্ষিত হতে চাই। ২০১৮-তে আমি এমবিএ করবো এবং যতদূর পড়াশোনা করা সম্ভব আমি করবো। চেষ্টা করবো ২০১৭-তে যে ভুলগুলো করেছি তা যেন ২০১৮-তে আর পুনরাবৃত্তি না নয়।                           

 

সানজিদা আহমেদ স্মৃতি

শিক্ষার্থী, এলএলবি, সাউথ ইষ্ট ইউনিভার্সিটি

 

শিক্ষাজীবন মানেই পড়াশোনার চাপ। পরীক্ষা, ক্লাস ভাইবা- এভাবেই চলছে আমার শিক্ষাজীবন। তবুও আনন্দ। তবুও ইনজয় করি জীবনটাকে। বন্ধুদের সাথে আড্ডা, ক্লাসের ফাঁকে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার মজাই আলাদা। ২০১৭-তে আমরা সবাই অনেক মজা করেছি। সময় ভালো কেটেছে আমার। কিছু চড়াই-উত্রাইও ছিল। তবুও আমার সময় অনেক ভালো কেটেছে এ বছর। ২০১৮ নিয়ে আমি খুব খুশি। ২০১৮-তে আমার অনেক পরিকল্পনা রয়েছে। আমি এ বছর গ্র্যাজুয়েট হবো। চাকরিতে যোগ দেবো। স্বাবলম্বী হবো ভাবতেই ভালো লাগে। ২০১৭-তে যে ভুল-ত্রুটিগুলো ছিল তা যেন আর নতুন বছরে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবো।    

 

রোকসানা নাসরিন রতনা

শিক্ষার্থী, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

 

প্রতিটা বছরই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। বছরের প্রতিটা মুহূর্ত থাকে রঙ্গে-রাঙ্গা। পরীক্ষা, ক্লাস, পড়াশোনা সবকিছুর মাঝেই আনন্দ আছে। ২০১৭ সাল আমার কাছে আনন্দের। কারণ এ বছর আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাষ্টার্স পরীক্ষা শেষ করেছি। সবচেয়ে আনন্দের বিষয় হচ্ছে এ বছরই আমার ছোট বোন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। আমি বের হয়ে যাচ্ছি ঠিকই কিন্তু আমার বোন এখানে পড়াশোনা করবে এটা আনন্দের। ২০১৮-তে অনেক পরিকল্পনা আমার। পড়াশোনা শেষ। এবার চাকরি করতে হবে। বিসিএস এর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। সবমিলিয়ে ২০১৮ জব প্রস্তুতির উপর থাকতে হবে।

 

নাজমুস সাকিব

শিক্ষার্থী, পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং, চুয়েট

 

বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের প্রতিটা মুহূর্ত আনন্দের। ক্লাস, পড়াশোনা পরীক্ষা সবকিছুর মাঝে আনন্দ থাকে। সময় পেলেই সবাই একসাথে গান, গল্প, কবিতা আর আড্ডার আসর বসে। এক এক করে তিনটি বছর পার করলাম। ২০১৭-তে এসে চতুর্ষ বর্ষে পড়ছি। এখন ক্যাম্পাসটিকে আরো বেশি আপন মনে হয়। ২০১৭ সাল আমার আনন্দ উত্সবে কেটেছে। পুরো বছর জুড়েই ছিল পড়াশোনার চাপ। তবুও ছিল আনন্দ। নতুন বছর নিয়ে আমার অনেক প্লান। জীবনটাকে সাজাতে হবে সুন্দর করে। পিছনের ভুল-ভ্রান্তির কথা চিন্তা না করে এগিয়ে যেতে হবে সামনের দিকে। ক্যারিয়ারটাকে কিভাবে সুন্দর করা যায় সেদিকে খেয়াল রাখবো।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ নভেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৫:১৮
যোহর১২:০০
আসর৩:৪৪
মাগরিব৫:২৩
এশা৬:৪১
সূর্যোদয় - ৬:৩৯সূর্যাস্ত - ০৫:১৮
পড়ুন