মেডিক্যালসহ বিভিন্ন বিষয়ে স্কলারশিপে চীনে পড়াশোনার সুযোগ
২৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
মেডিক্যালসহ বিভিন্ন বিষয়ে স্কলারশিপে চীনে পড়াশোনার সুযোগ
আমিনুর রহমান

 

আফিমের নেশায় বু’দ চীনা জাতির উত্থান বিষ্ময়কর। অর্থনৈতিক দিক থেকে চীন এখন দ্বিতীয় বৃহত্ শক্তি। অচিরেই হারিয়ে দেবে প্রথম স্থানে থাকা আমেরিকাকে, এমনই অভিমত অর্থনীতিবিদদের। ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্প-কলকারখানা, রাস্তা-ঘাট, বড় বড় স্থাপনা সকল ক্ষেত্রেই চীনের উন্নতি অভূতপূর্ব। এসবের পেছনে প্রধান শক্তি আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর উন্নত মানের শিক্ষা। চীন হতে পারে ছাত্রদের উচ্চশিক্ষার নতুন গন্তব্য স্থান। পড়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের স্কলারশিপ নিয়ে বিনা টিউশন ফিতে পড়ার অপূর্ব সুযোগ দিচ্ছে চীনের কেন্দ্রীয় এবং আঞ্চলিক  সরকার ছাড়াও, বিশ্ববিদ্যালয়  পৌরসভা এবং  স্কলারশিপ দেওয়ার জন্য বিশেষ বিশেষ কর্মসূচি। বাংলাদেশে সরকারি বা বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ খেকে পাশ করা MBBS ডাক্তারগণ উচ্চ শিক্ষার জন্য খুব কমই সুযোগ পেয়ে থাকেন। তারা যেতে পারেন চীনের নামি মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটিতে, বিনা টিউশন ফিতে করতে পারেন মাষ্টার্স  এবং পিএইচডি। এর সঙ্গে রয়েছে, বিনা পয়সায় থাকা এবং মাসিক ৪৫,০০০ টাকার স্টাইপেন্ড। প্রায় একই রকম সুযোগে পড়াশোনা করা যাবে ইঞ্জিনিয়ারিং, ম্যানেজমেন্ট, কৃষি, বন, মেরিন, শিল্পকলার সকল শাখা (নৃত্য, কণ্ঠসঙ্গীত, যন্ত্রসঙ্গীত, ফাইন আর্ট, ফটোগ্রাফি, প্রিন্টিং, সিরামিক, সিনেমা ও মাল্টিমিডিয়া ইত্যাদি)। পড়াশোনর সকল ক্ষেত্রেই রয়েছে বিভিন্ন ধরনের স্কলারশিপ। পড়াশোনা শেষে চীনে চাকরিরও সুযোগ রয়েছে। MBBS ও BDS করা যাবে নামি মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটিতে, সেক্ষেত্রে টিউশন ফি লাগবে বার্ষিক ৩০ হাজার-RMB (1 RMB= আমাদের দেশীয়: টাকায় প্রায় ১৩ টাকা) বা তার বেশি। ভাল রেজাল্ট করলে সেখানেও রয়েছে স্কলারশিপ নিয়ে পড়ার ভাল সুযোগ। আর যদি চীনা ভাষায় পড়া যায় তবে টিউশন ফি হবে অনেক কম, ১৫ হাজার RMB (বার্ষিক দুই লক্ষ টাকার কিছু বেশি)। সম্প্রতি জিয়াংশু প্রভিন্সিয়াল সরকার বিদেশি ছাত্রদের আকর্ষণ করার জন্য শুরু করেছেন Talent Search Program। এর আওতায় মেধাবী ছাত্ররা বিভিন্ন বিষয়ে উচ্চতর ক্ষেত্রে পড়াশোনা ও গবেষণার সুযোগ পাবেন সম্পূর্ণ ফ্রি। সঙ্গে রয়েছে ফ্রি থাকা ও স্টাইপেন্ড। উল্লেখ্য, চীনের মোট ৩৩টি প্রভিন্সের মধ্যে সবচেয়ে উন্নত জিয়াংশু প্রভিন্সের আয়তন ১,০২,৬০০ বর্গ কিলোমিটার (বাংলাদেশের আয়তন ১,৪৭,৫৭০ বর্গ কিলোমিটার); লোক সংখ্যা ৭৯,৮০০,০০০ জন, মাথাপিছু আয়: ১৪,৩৪১ ডলার, সরকারি ইউনিভার্সিটি রয়েছে ৮৮টি। প্রায় সব ইউনিভার্সিটিতেই মাস্টার্স ও পিএইচডি করা যায় স্কলারশিপ নিয়ে। বাংলাদেশি ছাত্র যারা যেন-তেন প্রকারে ইউরোপের সেনজেনভূক্ত দেশে যেতে মরিয়া। যারা চেষ্টা করে ভিসা পায় তাদের সামান্য অংশ। পড়ার নাম করে যেতে এবং ভিসা পেতে খরচ হয় সময় ও অর্থ। দেশেও আর পড়া হয় না। আর যারা ভিসা পেয়ে ইউরোপে যায় তাদের শতকরা নব্বই ভাগই পড়াশোন করে না। অবৈধ হয়ে ইউরোপে থেকে সামান্য রোজগার করে বেঁচে থাকার চেষ্টা করে। তাদের গন্তব্য হওয়া উচিত্ চীন। স্কলারশিপ নিয়ে পড়াশোনা করে ভাল ক্যারিয়ার গঠন করে প্রতিষ্ঠা হওয়ার নিশ্চিত সুযোগ। এসব বিষয়ে বিস্তারিত ও সঠিক তথ্য পাওয়ার জন্য জীবনবৃত্তান্ত এবং মার্কশিটের স্ক্যান কপি ই-মেইলে [email protected] পাঠালে (অথবা মোবাইলে ০১৫৫২৪১৭৫৩১ নম্বরে যোগাযোগ করলে) আগ্রহী ছাত্ররা জানতে পারবে বিস্তারিত তথ্য।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ নভেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৫:১৮
যোহর১২:০০
আসর৩:৪৪
মাগরিব৫:২৩
এশা৬:৪১
সূর্যোদয় - ৬:৩৯সূর্যাস্ত - ০৫:১৮
পড়ুন