দুই হাজার ১৭০ কোটি টাকার সাত প্রকল্প
ইত্তেফাক রিপোর্ট২৩ অক্টোবর, ২০১৪ ইং
২ হাজার ১৭০ কোটি ৭৫ লাখ টাকার ৭টি প্রকল্প অনুমোদন করেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এর মধ্যে ৪টি নতুন এবং বাকি ৩টি সংশোধিত। প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সভাশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানান, ১৩২০ মেগাওয়াট আলট্রাসুপার ক্রিটিক্যাল টেকনোলজি ব্যবহারের মাধ্যমে কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণের জন্যে এক হাজার একর ভূমি অধিগ্রহণ ও ভূমি উন্নয়নে ল্যান্ড অ্যাকুইজেশন, ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট এন্ড প্রটেকশন ফর পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট থার্মাল পাওয়ার প্ল্যান্ট শীর্ষক ৭৮২ কোটি ৬২ লাখ টাকার প্রকল্পটি একনেক সভায় অনুমোদিত হয়। পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নকে প্রকল্প এলাকা হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে।

রাজধানীর উত্তরা এলাকার যানজট হ্রাস, পথচারী চলাচলের সুবিধা এবং জলাবদ্ধতা দূর করতে একনেক সভায় উত্তরা মডেল টাউনের ১, ৩-১৪ নং সেক্টরের রাস্তা, ড্রেন ও ফুটপাতের উন্নয়ন ও নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদিত হয়। সভায় জানানো হয় উত্তরা এলাকার আব্দুল্লাপুর ইন্টার সেকশন ঢাকার প্রবেশমুখ। দেশের উত্তরাঞ্চল এবং পূর্বাঞ্চল থেকে এ প্রবেশমুখ দিয়ে বিভিন্ন যানবাহন উত্তরায় প্রবেশ করছে, ফলে তীব্র যানজট সৃষ্টি হচ্ছে এবং দুর্ঘটনা বেড়ে যাচ্ছে। প্রকল্পের প্রধান কার্যক্রম নিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, এ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৩৬ কি.মি. রাস্তা উন্নয়ন, ৪৭ কি.মি. ড্রেন নির্মাণ এবং ২১ কি.মি. ফুটপাত নির্মাণ করা হবে। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকির সাথে সহনশীল পরিবহন নেটওয়ার্কের উন্নতি, কাজের সুযোগ সৃষ্টি ও জীবনমান উন্নয়নে আজকের একনেক সভায় ক্লাইমেট চেঞ্জ এডাপটেশন প্রজেক্ট নামের প্রকল্পটির অনুমোদন হয়। মোট ১৪১ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) জুলাই, ২০১৪ থেকে জুন, ২০১৬ মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। মোট ব্যয়ের অর্ধেক অর্থাত্ ৭০ কোটি ৫০ লাখ টাকা সরকার দেবে। বাকি অর্ধেক ডেনমার্কের উন্নয়ন সংস্থা ডানিডা অনুদান হিসেবে দিবে।

প্রকল্পটি নিয়ে একনেক সভায় জানানো হয় যে, উপকূলীয় ১৯টি জেলার ২৪৩টি ইউনিয়ন জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত রয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় উপকূলীয় ৫টি জেলায় ৩১৭ কি.মি. সড়ক/বাঁধ রি-সেকশনিং করা হবে। ২০কি.মি. গ্রামীণ সড়ক উন্নয়ন, ৮ কি.মি. ইউনিয়ন সড়ক পাকাকরণ এবং ৬ কি.মি. সিসি ব্লক রোড নির্মাণ করা হবে। ২০ কি.মি. খাল পুনঃখনন করা হবে। বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের জন্যে ২০টি পুকুর খনন করা হবে। ২০টি গ্রামীণ বাজার/গ্রোথ সেন্টার এ-প্রকল্পের অধীনে উন্নয়ন করা হবে। এছাড়াও ১৫ হাজার দুঃস্থ ও কর্মজীবী মহিলাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। প্রতিবন্ধীদের জন্যে সামাজিক ও পুনর্বাসন সেবা কার্যক্রম সম্প্রসারণ এবং এ ধরনের সেবা প্রদানকারী সরকারি সংস্থাসমূহের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে একটি সংশোধিত প্রকল্প একনেক সভায় অনুমোদিত হয়। সংশোধিত অন্য প্রকল্পগুলো হলো সিলেট বিভাগ ক্ষুদ্র সেচ উন্নয়ন প্রকল্প, পদ্মা নদীর ভাঙন হতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার আলাতুলি এলাকা রক্ষা প্রকল্প এবং কন্দাল ফসল উন্নয়ন প্রকল্প (২য় সংশোধিত) প্রকল্প।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৯
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পড়ুন