হালনাগাদ হচ্ছে মডেল পিএসসি ১৬ বিদেশি কোম্পানির আগ্রহ
তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ অনুসন্ধান
মাহবুব রনি০৮ আগষ্ট, ২০১৬ ইং
দেশে তেল, গ্যাস ও খনিজ সম্পদ অনুসন্ধানে বিদেশি কোম্পানিগুলোকে আকৃষ্ট করতে মডেল উত্পাদন অংশীদারি চুক্তির (এমপিএসসি) কারিগরি ও আর্থিক শর্তগুলোকে হালনাগাদ করার উদ্যোগ নিয়েছে পেট্রোবাংলা। ইতিমধ্যে পেট্রোবাংলার আহ্বানে ১৬টি আন্তর্জাতিক কোম্পানি এমপিএসসি হালনাগাদকরণে পরামর্শক হিসেবে কাজ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ সূত্র জানায়, মিয়ানমার ও ভারতের সাথে সমুদ্রসীমা বিরোধ নিষ্পত্তির পর বাংলাদেশ এখনো গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানের কৌশলও নির্ধারণ করতে পারেনি। অথচ ভারত ও মিয়ানমার এই সময়ে অনুসন্ধান কার্যক্রমে সাফল্য পেয়ে উত্পাদন কার্যক্রমও শুরু করে দিয়েছে। এক্ষেত্রে দুইটি দেশই বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণ করতে তাদের উত্পাদন অংশীদারি চুক্তির পথনকশা (এমপিএসসি) ঢেলে সাজিয়েছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে দেরিতে হলেও বাংলাদেশ নিজস্ব মডেল পিএসসিকে আরো আকর্ষণীয় করার কাজে হাত দিয়েছে।

পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান ইসতিয়াক আহমেদ বলেন, সমুদ্রসীমা বিরোধ নিষ্পত্তির ফলে সমৃদ্ধির একটি বড় দরজা আমাদের জন্য খুঁলে গেছে। তবে গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে অনেক বড় বিনিয়োগ দরকার। বিদেশি কোম্পানিগুলোর কাছে বাংলাদেশের জলসীমার সম্পদ ও সম্ভাবনাকে আরো আকর্ষণীয় ও সুনির্দিষ্ট করে তুলতে মডেল পিএসসিকে হালনাগাদ করার বিকল্প নেই। তিনি বলেন, স্থলভাগে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানের অভিজ্ঞতা থাকলেও গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে পেট্রোবাংলার পূর্ব অভিজ্ঞতা নেই। তাই মডেল পিএসসি হালনাগাদকরণে অভিজ্ঞ ও স্বনামধন্য আন্তর্জাতিক কোম্পানির পরামর্শ গ্রহণ করা হবে।

পাওয়ার সেলের পল্লী বিদ্যুতায়ন ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় এবং বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে এমপিএসসি হালনাগাদকরণ করা হবে। গত ১৪ জুন পাওয়ার সেল বাংলাদেশে তেল ও গ্যাস অনুসন্ধানে মডেল পিএসসির কারিগরি ও রাজস্ব সংক্রান্ত শর্তাবলী হালনাগাদকরণ বিষয়ে পরামর্শক সেবার জন্য আগ্রহপত্র চেয়ে একটি আন্তর্জাতিক বিজ্ঞপ্তি জারি করে। এ ধারাবাহিকতায় ১৬টি আগ্রহপত্র পায় পাওয়ারসেল।

এ প্রসঙ্গে পাওয়া সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইন বলেন, আগ্রহপত্র জমা দেয়া ১৬টি কোম্পানির কাছ থেকে প্রস্তাবনা পাঠানোর অনুরোধ জানানো হবে। ওই প্রস্তাবনাগুলো যাচাই করে যে কোনো একটি কোম্পানিকে পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হবে।

পেট্রোবাংলার ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, বিদ্যমান মডেল পিএসসি বড় বিনিয়োগকারী টানতে পারছে না। এ কারণে সমুদ্রে গ্যাস অনুসন্ধানও কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় পৌঁছায়নি, গ্যাস সংকটও বাড়ছে। বর্তমান পিএসসিতে গ্যাসের যে মূল্যহার ও মূল্য নির্ধারণ পদ্ধতি রয়েছে তাতে বিনিয়োগকারীরা আকৃষ্ট হয় না। নতুন পিএসসিতে এ মূল্যহার বাড়ানো হতে পারে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৮ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:০৯
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪১
মাগরিব৬:৪০
এশা৭:৫৯
সূর্যোদয় - ৫:৩১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৫
পড়ুন