অবৈধ এলপিজি ব্যবসায়ীদের এক মাস সময় দিলেন জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী
চূড়ান্ত অনুমোদন ছাড়াই ১১ কোম্পানির ব্যবসা
৩০ এপ্রিল, ২০১৮ ইং
ইত্তেফাক রিপোর্ট

দেশে ক্রমবর্ধমান গ্যাসের চাহিদা পূরণ করতে ৫৫টি কোম্পানিকে এলপিজির (তরল প্রাকৃতিক গ্যাস) প্রাথমিক অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এর মধ্যে মাত্র ৫টি কোম্পানিকে গ্যাস বাজারজাত করতে চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। চূড়ান্ত অনুমোদন ছাড়া বিপণনের সুযোগ নেই। কিন্তু এই অনুমোদন না নিয়েই ১১টি কোম্পানি ব্যবসা পরিচালনা করছে। এ কোম্পানিগুলোকে বিপণন বন্ধ রেখে আগামী এক মাসের মধ্যে চূড়ান্ত অনুমোদন নিতে বলা হয়েছে। তা না হলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শনিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পেট্রোম্যাক্স এলপি গ্যাসের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিদ্যুত্, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এ কথা বলেন।

নসরুল হামিদ বলেন, এলএনজির (তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস) প্রথম চালান বাংলাদেশে পৌঁছে গেছে। এ গ্যাস ঘাটতি দূর করতে সহায়ক হবে। আগামী ২৬ মে নাগাদ এলএনজি জাতীয় গ্যাস পাইপলাইনে সরবরাহ করা যাবে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য মাহফুজুর রাহমান মিতা ও ডা. মো. হাবিবে মিল্লাত, পেট্রোম্যাক্স এলপিজির চেয়ারম্যান রেজাকুল হায়দার, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফিরোজ আলম এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, পেট্রোম্যাক্স এলপিজি লিমিটেডের বিনিয়োগে মোংলা বন্দর এলাকায় প্রায় ৫ হাজার ৫০০ টনের বেশি মজুদ ক্ষমতাসম্পন্ন ও বার্ষিক প্রায় ৯০ লাখ সিলিন্ডার বোতলজাতকরণ ক্ষমতাসম্পন্ন এলপিজি প্ল্যান্ট স্থাপন করা হয়েছে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩০ এপ্রিল, ২০২১ ইং
ফজর৪:০৪
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩২
মাগরিব৬:২৯
এশা৭:৪৭
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৪
পড়ুন