রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে শিশু সুরক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ার আহবান
১২ নভেম্বর, ২০১৮ ইং
g ইত্তেফাক রিপোর্ট

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় শিশুর সুরক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ। আগামী সপ্তাহে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর প্রাক্কালে ওয়ার্ল্ড ভিশন ঢাকা অফিস থেকে গতকাল পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

সংস্থাটি জানায়, দুই দেশের সরকারের সমন্বয়ে গঠিত জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের ঘোষণা অনুযায়ী নভেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময়ে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হবে। এর অংশ হিসেবে আগামী ১৫ নভেম্বর ২ হাজার ২০০ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে প্রত্যাবাসনের খবরে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য ও বাংলাদেশের রোহিঙ্গা শিবিরে কর্মরত মানবিক সহায়তাকারী সংস্থাসমূহ ও সুশীল সমাজ গভীরভাবে উদ্বিগ্ন হয়।

উল্লেখ্য, গত বছর আগস্ট মাসে মিয়ানমারে ঘটে যাওয়া সহিংসতার পর বাংলাদেশে পালিয়ে আসা প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী এদেশের বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরে অবস্থান করছে।

ওয়ার্ল্ড ভিশনসহ বাংলাদেশ ও মিয়ানমারে কর্মরত ৪২টি উন্নয়ন সংস্থা যৌথ বিবৃতিতে বলছে, ‘জীবনের নিরাপত্তা যেখানে চরম ঝুঁকিতে, সেখানে মিয়ানমারে অ-স্বেচ্ছামূলক প্রত্যাবাসন আন্তর্জাতিক শরণার্থী সুরক্ষার মৌলিক নীতির লঙ্ঘন মাত্র। জোরপূর্বক মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের ফলে শরণার্থীদের ভাগ্যে আবার কী ঘটবে সে বিষয়ে রোহিঙ্গারা আতঙ্কগ্রস্ত বলে ওয়ার্ল্ড ভিশন ও বিভিন্ন সংস্থার প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। দুই দেশের সরকার ও জাতিসংঘের কাছে নিজেদের নিরাপত্তার বিষয়ে পরিপূর্ণ নিশ্চয়তা চায় শরণার্থীরা। তারা বলছে, যে ভয়াবহ মানবাধিকার লঙ্ঘন তাদের ওপর হয়েছে তা বন্ধ করে এই সহিংসতার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। ’

সংস্থাটির বাংলাদেশ প্রধান ফ্রেড উইটিভেন জানান, ‘শরণার্থী শিশুরা প্রত্যাবাসনের বিষয়ে আলোচনা শুনেছে এবং তারা আতঙ্কিত। শরণার্থী শিবিরের বেশির ভাগ শিশুই ভয়াবহ সহিংসতার সাক্ষী এবং সেই স্মৃতি এখন তাদের কাছে জীবন্ত। উদ্বিগ্ন শিশুরা প্রত্যাবাসনে নিজেদের ভবিষ্যত্ নিয়ে আমাদের কর্মীদের কাছে জানতে চাচ্ছে, কিন্তু আমাদের কাছে এর কোনো সদুত্তর নেই। আমরা দুই দেশের সরকারের কাছে আহ্বান জানাই যেন যে কোনো অবস্থাতেই শিশুরা সুরক্ষিত থাকে এবং প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া যেন নিরাপদ, স্বেচ্ছায় এবং সম্মানজনক হয়।’

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১২ নভেম্বর, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পড়ুন