রাবির ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি রাবি ও ঢাবির তিন শিক্ষার্থীর জেল
রাজশাহী অফিস২৩ অক্টোবর, ২০১৪ ইং
গতকাল বুধবার শেষ হওয়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষ অনার্সে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির মাধ্যমে অংশগ্রহণের দায়ে রাবি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীসহ চারজনকে একবছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার ও বুধবার পৃথক ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের কারাদণ্ড দেন। দণ্ডিতরা হলেন: রাবির হিসাববিজ্ঞান বিভাগের বিবিএ চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী দেবাশীষ কর্মকার, সমাজবিজ্ঞান চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ইমরান আলী, ঢাবির সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আখতারুল ইসলাম এবং ঢাকার তেজগাঁও কলেজের শিক্ষার্থী নেছার আহমেদ। এদিকে ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ উপায়ে শেষ হওয়ায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ দিয়েছেন রাবির উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান।

রাবির প্রক্টর অধ্যাপক তারিকুল হাসান জানান, বুধবার ‘বি’ ইউনিটের (আইন অনুষদ) বিজোড় রোলের পরীক্ষার সময় রবীন্দ্র ভবনের ১৪৮ নম্বর কক্ষ থেকে ঢাবির শিক্ষার্থী সমাজবিজ্ঞান চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আখতারুল ইসলামকে হল পরিদর্শকরা আটক ও প্রক্ট্রোরিয়াল বডিতে হস্তান্তর করেন। তিনি ভর্তিচ্ছু অরিন্দম কুমার বর্ধনের ছবি পরিবর্তন করে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন।

 মঙ্গলবার ‘ডি’ ইউনিটের (বিজোড় রোল) পরীক্ষায় প্রথম বিজ্ঞান ভবনের পরিদর্শকরা রাবির হিসাব বিজ্ঞান চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী দেবাশীষ কর্মকারকে আটক করেন। তিনি ভর্তিচ্ছু মাসুদ আলমের ছবি পরিবর্তন করে খাগড়াছড়ির ভর্তিচ্ছু চার্চিল চাকমাকে সহযোগিতা করছিলেন। রাবির সমাজবিজ্ঞান চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ইমরান আলী মঙ্গলবার ‘ই’ ইউনিটের (বিজোড়) পরীক্ষায় তৃতীয় বিজ্ঞান ভবনের ৪২৬-ডি নম্বর কক্ষে ভর্তিচ্ছু সাকিব ফেরদৌসের ছবি পরিবর্তন করে এবং নেছার আহমেদ একই সময় ও ইউনিটের পরীক্ষা চলাকালে দ্বিতীয় বিজ্ঞান ভবনের ২৮০ নম্বর কক্ষে ভর্তিচ্ছু আশিক রহমানের ছবি পরিবর্তন করে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন।

মতিহার থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, দু’দিনে ভ্রাম্যমাণ আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত চার শিক্ষার্থীকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর দু’জনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৯
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পড়ুন