বকশীগঞ্জে সেতু না থাকায় দুর্ভোগে ১৫ গ্রামের মানুষ
২৭ আগষ্ট, ২০১৫ ইং
বকশীগঞ্জে সেতু না থাকায় দুর্ভোগে ১৫ গ্রামের মানুষ
g বকশীগঞ্জ (জামালপুর) সংবাদদাতা

বকশীগঞ্জে দীর্ঘ ১২ বছরেও একটি বিধ্বস্ত সেতু পুনর্নিমাণ না হওয়ায় ১৫টি গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার মানুষ যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। ১২ বছর যাবত্ ঝুঁকি নিয়ে নড়বড়ে বাঁশের সাঁকোর ওপর দিয়ে পারাপার হচ্ছেন এলাকাবাসী।

বকশীগঞ্জ সদর শহর থেকে সাত কিলোমিটার দক্ষিণে নিলাক্ষিয়া ইউনিয়নের বিনোদরচর গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে পাগলাঝোড়া খাল। ১৯৯৬ সালে স্থানীয় এলজিইডি বকশীগঞ্জ-পাগলাপাড়া সড়কের ওই খালের ওপর ৩টি ব্রিজ নির্মাণ করেন। ২০০৩ সালে বন্যায় মাঝখানের ৪৫ মিটার সেতুটি বিধ্বস্ত হয়ে যায়। প্রশাসনের পক্ষ থেকে উদ্যোগ না নেয়ায় ২০০৪ সালে এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে  সেখানে বাঁশের একটি সাঁকো তৈরি করে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করে আসছে। বর্তমানে সংস্কারের অভাবে বাঁশের সাঁকোটি নড়বড়ে হয়ে পড়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, সেতুর ওপর দিয়ে কোন রকমে ঝুঁকি নিয়ে পায়ে চলাচল করা গেলেও ভ্যান রিকশা ও মালামাল বহন করা যায় না। ফলে বকশীগঞ্জের ১৫ গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার মানুষের যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বিশেষ করে স্কুলগামী ছোট শিশু ও বৃদ্ধরা বেশি ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। এছাড়া কৃষকের উত্পাদিত কৃষি পণ্য বাজারে নিতে পারছে না। বাধ্য হয়ে তাদের উত্পাদিত কৃষি পণ্য বাজার মূল্যের চেয়ে অনেক কম দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। এছাড়া এ সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে না পারায় এলাকার হাজারো মানুষ শিক্ষা, স্বাস্থ্য সুবিধাসহ আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী একেএম হেদায়েত উল্লাহ জানান, ওই স্থানে সেতু নির্মাণের জন্য কর্তৃপক্ষকে প্রকল্প প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। প্রস্তাবটি পাস হলে চলতি বছরে সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু করা যাবে। 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪০
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পড়ুন