কিশোরগঞ্জে ধান সংগ্রহে অনিয়ম প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ
২৭ আগষ্ট, ২০১৫ ইং
g কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) সংবাদদাতা

কিশোরগঞ্জ উপজেলায় ইরি বোর ধান সংগ্রহে খাদ্যগুদাম কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার দুপুরে কৃষকরা ধান নিয়ে রংপুর-নীলফামারী সড়ক অবরোধ করে। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান মো. রশিদুল ইসলামের হস্তক্ষেপে অবরোধ তুলে নেন কৃষকরা।

উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ১ মে থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত ৩৫০ জন কৃষকের কাছ থেকে ২২৭ মেট্রিক টন ধান প্রতি কেজি ২২ টাকা দরে সংগ্রহের কথা রয়েছে। কিন্তু ২৫ আগস্ট পর্যন্ত ১শ’ মেট্রিক টন ধানও সংগ্রহ করতে পারেননি খাদ্যগুদাম কর্তৃপক্ষ।

উপজেলার নগরবন গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মো. শামসুল হকের ছেলে কৃষক মো. আব্দুল কাইয়ুম বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সিদ্দিকুর রহমান আমার নামে ৭শ’ কেজি ধান বরাদ্দ দেন খাদ্যগুদামে বিক্রির জন্য। কিন্তু খাদ্যগুদামে ধান নিয়ে গেলে খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা মো. জিয়াউর রহমান প্রতিবস্তা (৪২) কেজি ধানে অফিস খরচের নামে ১০০ টাকা করে দাবি করেন। প্রথমে দিতে রাজি না হলেও ৪ দিন ঘোরার পর হয়রানির ভয়ে দিতে রাজি হয়েছি। অগ্রিম ১৬০০ টাকা দেয়ার পর তিনি আমার নামে চেক বরাদ্দ দিয়েছেন। এরকম অনেক কৃষক অনুরূপ অভিযোগ করেন।

খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জিয়াউর রহমান বলেন, সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে। কারো কাছে টাকা চাওয়া ভিত্তিহীন।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মো. সামছুল হক জানান, কৃষকদের কাছ থেকে এ ধরনের অভিযোগের সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সিদ্দিকুর রহমান জানান, যে কৃষকরা আমার কাছে ধান নিয়ে এসেছিল আমি খাদ্যগুদাম কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়ে দিয়েছি।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪০
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পড়ুন