দক্ষিণাঞ্চলে প্রতিবন্ধীদের গ্রামীণ পুনর্বাসন কেন্দ্রের প্রশিক্ষণ বন্ধ
০৮ ডিসেম্বর, ২০১৬ ইং
চিতলমারী (বাগেরহাট) সংবাদদাতা

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একমাত্র শারীরিক প্রতিবন্ধীদের গ্রামীণ পুনর্বাসন কেন্দ্রটি(আরআরসি) ফকিরহাটে অবস্থিত। দীর্ঘ পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে এ পুনর্বাসন কেন্দ্রটির সকল কর্মকাণ্ড। প্রতিবন্ধীদের জন্য নির্মিত জীর্ণ-শীর্ণ আবাসিক ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণার কারণে প্রতিষ্ঠানটিতে নেই কোনো প্রশিক্ষণার্থী।

সমাজসেবা অধিদপ্তর নিয়ন্ত্রিত শারীরিক প্রতিবন্ধীদের গ্রামীণ পুনর্বাসনের দুটি কেন্দ্র রয়েছে বাংলাদেশে। একটি গাজীপুর জেলার টঙ্গীতে, অপরটি বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার মুলঘর গ্রামে। ৩.৫৯ একর  জায়গা নিয়ে ১৯৮১-৮২ অর্থবছরে ফকিরহাটের মুলঘরে স্থাপন করা হয় শারীরিক প্রতিবন্ধীদের গ্রামীণ পুনর্বাসন কেন্দ্রটি। ১৯৮৭ সালের জুন মাসে ১৬ জন পঙ্গু এবং ১৩ জন বধির শারীরিক প্রতিবন্ধীকে নিয়ে পুনর্বাসন কার্যক্রম শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। দর্জি বিদ্যা, ওয়ার্কশপ এবং গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগি পালনের মতো তিনটি কোর্সে প্রতিবছর সেখানে সর্বোচ্চ ৩০ জন শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রশিক্ষণের সুযোগ পেতো। পুনর্বাসন কেন্দ্রটি পরিচালনার জন্য ১১টি পদের বিপরীতে বর্তমানে খাতা-কলমে  রয়েছেন ১০ জন। কিন্তু বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিতে দায়িত্ব পালন করছেন ছয়জন।

সেখানে কর্মরত জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার মো. রুহুল আমিন বলেন, নিবাস ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণার পর ২০১১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর ছাত্র ভর্তি ও প্রশিক্ষণ বন্ধ করে। ওই সময় প্রশিক্ষণার্থী ১০ জনকে তাদের পরিবারের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এরপর আর ছাত্র ভর্তি কিংবা প্রশিক্ষণ চালু হয়নি।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৮ নভেম্বর, ২০২০ ইং
ফজর৫:০৭
যোহর১১:৫১
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩৩
সূর্যোদয় - ৬:২৭সূর্যাস্ত - ০৫:১০
পড়ুন