গাভী প্রতিপালন করে স্বাবলম্বী তাহেরা
০৮ ডিসেম্বর, ২০১৬ ইং
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

গাভী প্রতিপালন করে স্বাবলম্বী হয়েছেন নিকলী উপজেলার ছাতিরচর-পূর্বপাড়া গ্রামের তাহেরা বানু। তাহেরা বানুর নিজস্ব ভিটেবাড়ি বলতে কিছুই নেই। বিয়ের পর থেকেই স্বামীর সঙ্গে অন্যের বাড়িতে থাকেন। স্বামী শিশু মিয়ার পৈতৃক ভিটা নদী ভাঙনে অনেক আগেই বিলীন হয়ে যায়। শিশু মিয়া দরিদ্র দিনমজুর। শুধুমাত্র বোরো মৌসুমে হাতে কাজ থাকে, বছরের বাকি ছয় মাস বেকার জীবন-যাপন কিংবা নদী থেকে মাছ ধরে কোনো রকমে সংসার চলে তার। এভাবেই অন্যের বাড়িতে থেকে শিশু মিয়া ও তাহেরা বানুর খুবই কষ্টে দিন কাটছিল। ইতিমধ্যে তাদের অভাবের সংসারে যোগ হয় এক ছেলে ও দুই মেয়ে। এ অবস্থায় তাহেরা সিদ্ধান্ত নেন সংসারের কষ্ট লাঘবে গাভী প্রতিপালনের। এ ব্যাপারে প্রথমেই সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা পপির রীকল প্রকল্প। যুক্ত হন স্থানীয় একটি সিবিও’র সঙ্গে। ২০১১ সালে পপি তাকে একটি গাভী কেনার জন্য অনুদান হিসেবে আট হাজার আটশ টাকা দেয়। তিনি এর সঙ্গে আরো ১২শ টাকা যোগ করে ১০ হাজার টাকায় একটি গাভী কিনে লালন-পালন করতে থাকেন। কয়েক মাস পর সেই গাভী একটি বাছুর দেয়। দুধ বিক্রি করে সেই টাকা সংসারে ব্যয় করেন। এরপর গাভীটি আরো একটি বাছুর দেওয়ার পর তার উত্সাহ বাড়তে থাকে। কিন্তু অন্যের বাড়িতে থেকে গরু-বাছুর লালন-পালন সম্ভব না হওয়ায় তিনি ছাতিরচর-হেপসাপড়ায় ১৫ হাজার টাকায় একখণ্ড জমি বন্ধক নিয়ে সেখানে ঘর তুলে বসতি স্থাপন ও গরু লালন-পালন করতে থাকেন। বর্তমানে একটি গাভী থেকেই তার ছয়টি গরু-বাছুর হয়েছে। কয়েক মাস আগে একটি গাভী ১৭ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন। দুধ বিক্রি করেই তার সংসারে স্বচ্ছলতা ফিরে এসেছে। তাছাড়াও গোবর বিক্রির টাকাও তার আয়ের সঙ্গে যোগ হয়েছে। এতে সংসার খরচের পাশাপাশি ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ চালাতে তাকে এখন আর বেগ পেতে হয় না।

তাহেরা বলেন, আমি অনেক কষ্ট করছি, তবু গরুগুলান বেচি নাই। ওইগুলাই এখন আমার বড় সম্পদ। ভবিষ্যতে আমি দেশি গরু বিক্রি করে শংকর জাতের একটি গরুর খামার করতে চাই। গরুর আয় দিয়েই  ভবিষ্যতে নিজের বাড়ি বানানোর স্বপ্ন দেখছেন তিনি। তার আয়-উন্নতি দেখে গ্রামের অনেক নারীই গরু প্রতিপালনে উত্সাহিত হচ্ছেন।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৮ নভেম্বর, ২০২০ ইং
ফজর৫:০৭
যোহর১১:৫১
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩৩
সূর্যোদয় - ৬:২৭সূর্যাস্ত - ০৫:১০
পড়ুন