সাতকানিয়ায় পাহাড়ের পাশে ও ফসলি জমিতে ইট ভাটা!
সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ইং
সাতকানিয়ায় পাহাড়ের পাশে ও ফসলি জমিতে ইট ভাটা!
সাতকানিয়ার বিভিন্ন ইউনিয়নে বনাঞ্চলের পাশে গড়ে ওঠা ও চাষাবাদের জমিতে ১২টি অবৈধ ইট ভাটার প্রভাবে পরিবেশ, প্রকৃতি ও জীববৈচিত্র্য হুমকিতে পড়েছে। স্থানীয় প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে এসব ভাটায় পাহাড়ের মাটি ব্যবহার ও বনের কাঠ পোড়ানোর কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। সাতকানিয়া-বাঁশখালী সীমান্তের এ এলাকায় গড়ে ওঠা ইট ভাটাগুলোর চারদিকে রয়েছে সবুজ পাহাড়। আর এসব পাহাড়ে রয়েছে সরকারি-বেসরকারিভাবে গড়ে ওঠা গাছের বাগান। অন্যদিকে ইট ভাটাগুলো স্থাপন করা হয়েছে অসংখ্য পাহাড় ও টিলা কেটে। এসব ভাটার মধ্যে দুটি স্থাপন করা হয়েছে নিষিদ্ধ প্রযুক্তির ড্রাম চিমনি দিয়ে। আর ভাটাগুলোতে দেদারসে পোড়ানো হচ্ছে পার্শ্ববর্তী বনাঞ্চলের কাঠ। ভাটার চিমনি থেকে নির্গত কালো ধোঁয়ার প্রভাবে বনাঞ্চলের গাছগুলো মরতে শুরু করেছে। আর নির্বিচারে পাহাড়ী এলাকার গাছ নিধনের ফলে বন্য প্রাণিরা বনাঞ্চল ছেড়ে লোকালয়ে হানা দিচ্ছে। এতে জানমাল ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। এদিকে প্রতিবছর নতুন নতুন ইটভাটা গড়ে ওঠায় সাতকানিয়ায় কমে যাচ্ছে কৃষি জমির পরিমাণ। আর অধিকাংশ ভাটার কোনো বৈধ লাইসেন্স নেই।

সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদউল্যাহ জানান, আমরা অতীতেও এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ ইট ভাটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। দুই একদিনের মধ্যে অবৈধভাবে পাহাড় কাটা ও ফসলি জমির টপ সয়েল কাটা বন্ধের জন্য অভিযান চালানো হবে।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ইং
ফজর৫:১০
যোহর১২:১৩
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০১
এশা৭:১৪
সূর্যোদয় - ৬:২৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৬
পড়ুন