আলমডাঙ্গায় বাল্যবিয়ে বন্ধের প্রধান প্রতিবন্ধক কাজী আটক
১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
আলমডাঙ্গা (চুয়াডাঙ্গা) সংবাদদাতা

আলমডাঙ্গা অঞ্চলের বাল্যবিয়ে কিছুতেই বন্ধ করা যাচ্ছে না। সংবাদ পেয়ে প্রশাসন বিয়ে ভেঙে দিলেও গোপনে অন্য গ্রামে গিয়ে বাল্য বর-কনের বিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর এই সকল গোপন বিয়ের ব্যবস্থা করেন কাজি জহুরুল ইসলাম। তার কাছে গেলে টাকার বিনিময়ে কাগজপত্র ছাড়াই তিনি বিয়ে পড়িয়ে দেন।

এরকম বহু অভিযোগের ভিত্তিতে গত শুক্রবার রাতে একটি গোপন বিয়ে অনুষ্ঠানস্থল থেকে কাজি জহুরুলকে আটক করে পুলিশ। ডাউকি ইউনিয়নের বক্সিপুর গ্রামের আব্দুল গনি তার স্কুল পড়ুয়া মেয়ের সঙ্গে কুষ্টিয়ার ইবির মাগুরা গ্রামের আছের আলীর ছেলে আলী হোসেনের বিয়ের দিন ধার্য করেন শুক্রবার। ছোট্ট মেয়ের বিয়ের ঘটনা জানাজানি হলে কনের বাবা মেয়েকে গোপনে নিয়ে যান পার্শ্ববর্তী মাজু গ্রামে সমেজ আলীর ছেলের বাড়িতে। এখানে তড়িঘড়ি করে বিয়ে পড়াতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হন কাজি জহুরুল। থানার সেকেন্ড অফিসার জিয়াউর রহমান জানান, কয়েকটি অভিযোগ পেয়ে তাকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালায়। কিন্তু কোথায় বিয়ে হচ্ছে তা ঠিক করতে পুলিশের কয়েকটি গ্রাম ঘুরতে হয়েছে। শেষে মাজু গ্রামে কাজি জহুরুলকে পাওয়া যায়।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন