কালিয়াকৈরে ইয়াবা সেবন বাড়ছে
০৫ এপ্রিল, ২০১৮ ইং
ছয় মাসে ১৫৫ ব্যবসায়ী গ্রেফতার, মামলা ১৩০ 

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) সংবাদদাতা

ফেনসিডিল, গাঁজা, হেরোইনসহ অন্যান্য মাদককে ছাড়িয়ে মাদকসেবী যুবক ও তরুণদের নেশার তালিকায় যুক্ত হয়েছে ইয়াবা। দেশজুড়ে লাখো যুবকের পাশাপাশি কালিয়াকৈরে কিশোর, তরুণ ও যুবকদের নেশার জায়গাটি দখল করে নিচ্ছে ইয়াবা।

কালিয়াকৈর ছায়া মাদকাসক্তি চিকিত্সা ও নিরাময় কেন্দ্রের পরিচালক নির্মল চন্দ্র ঘোষ বলেন, ‘আমাদের এখানে বর্তমানে যারা চিকিত্সা নিচ্ছে, তাদের বেশির ভাগই ইয়াবায় আসক্ত। মরণ নেশা ইয়াবার বিষে উপজেলার হাজারো পরিবারের যুবকের সম্ভাবনাময় জীবন নষ্ট হচ্ছে। আমরা প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি চিকিত্সাসেবা ও যথাযথ কাউন্সিলিং দিয়ে এদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে।’

বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা কালিয়াকৈর উপজেলা শাখার সভাপতি মো. শাহজাহান মিয়া বলেন, ‘এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীদের দৌড়াত্ম আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে। বিভিন্ন এলাকায় এক রকম প্রকাশ্যেই বিক্রি হচ্ছে ইয়াবাসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য। মাদকসেবীদের কারণে অনেক সময় মানবাধিকার লঙ্গিত হচ্ছে।’

উপজেলার ঢালজোড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. আকতারুজ্জামান বলেন, ‘মাদক ব্যবসায়ীদের মূল টার্গেট এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উঠতি বয়সের তরুণ। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাধকাসক্তের মাধ্যমে মাদক ব্যবসায়ীরা হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। ধ্বংস হচ্ছে এলাকার ভবিষ্যত্ প্রজন্ম।’

কালিয়াকৈর থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘গত ছয় মাসে এলাকার চিহ্নিত ১৫৫ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তাদের নামে কালিয়াকৈর থানায় ১৩০টি মাদকের মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

মাদক ব্যবসায়ীদের কোনো প্রকার ছাড় দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না বরং আমরা মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

গাজীপুর জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এসএম রাসেল ইসলাম নুর বলেন, ইয়াবা এখন জাতীয় সমস্যা। দেশের তরুণ ও যুব সমাজকে ইয়াবা গ্রাস করছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিবের নির্দেশে ইয়াবা নিয়ন্ত্রণের জন্য গাজীপুরে প্রতিমাসে দু’বার বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৫ এপ্রিল, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১২:০২
আসর৪:৩০
মাগরিব৬:১৯
এশা৭:৩২
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৬:১৪
পড়ুন