মুদ্রায় আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের (স) নাম
সৈয়দ রশিদ আলম০২ অক্টোবর, ২০১৫ ইং
মুদ্রায় আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের (স) নাম
আ ল্লাহ পাক ও তাঁর হাবিব হযরত মুহাম্মদকে (স) নানাভাবে স্মরণ করা হয়। স্মরণ করা হয় কখনো জিকির-আজকারে আবার কখনো বইয়ের পাতায় পাতায়। প্রাচীন যুগ থেকে এখন পর্যন্ত তাঁদেরকে স্মরণ করার পদ্ধতি হিসেবে ধাতব মুদ্রাকেও বেছে নেয়া হয়েছে। উমাইয়া খলিফা আলওয়ালি ইবনে আব্দুল্ল­াহ মালিক তার শাসনামলে চুরানব্বই হিজরীতে স্বর্ণনির্মিত হাফ ডিনারের ধাতব মুদ্রা প্রবর্তন করেন। এটির ওজন ছিল ২.১২ গ্রাম। এই মুদ্রায় একটি পিঠে আরবিতে লেখা ছিল ‘বিসমিল্ল­াহির রাহমানির রাহিম’ ও অপর পিঠে লেখা ছিল ‘লাইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু’। এই মুদ্রাটি একটি দুর্লভ মুদ্রা হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। আব্বাসীয় খলিফা আবু আহমেদ আব্দুল্লাহ আল মুস্তাসিম বিল্লাহ ইবনে আল মুস্তানসির স্বর্ণ দ্বারা নির্মিত দিনার প্রবর্তন করেন যার ওজন ছিল ৭.৩৪ গ্রাম। এটির এক পিঠে লেখা ছিল ‘আলহামদু লিল্ল­াহ, মুহাম্মাদুর রাসূলুল্ল­াহ, সাল্ল­াল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্ল­াম’। অপর পৃষ্ঠায় লেখা ছিল ‘আল ঈমাম, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারীকালাহু, আল মুস্তাসিম বিল্লাহ, আমিরুল মুমেনিন’। আব্বাসীয় খলিফা আবু জাফর আব্দুল্ল­াহ আল মানসুর ইবনে মুহাম্মদও স্বর্ণ দ্বারা নির্মিত দিনারের মুদ্রা প্রবর্তন করেন। এটির ওজন ছিল ৪.২৩ গ্রাম। এর এক পৃষ্ঠায় লেখা ছিল ‘মুহাম্মাদুর রাসূলুল্ল­াহ’। অপর পিঠে লেখা ছিল ‘লাইলাহা ইল্ল­াল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারীকালাহু’।

আবু ইয়াহিয়া আবু বকর ইবনে আব্দুল হকের শাসন কাল ৬৪২-৬৫৬ হিজরী। তার সময় স্বর্ণ নির্মিত  দিনারের ওজন ছিল-৪.৬৭ গ্রাম। এটির এক পৃষ্ঠায় লেখা ছিল ‘আল ওয়াহিদু আল্ল­াহ, মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ, আল কুরআনু কালামুল্ল­াহ’। আরেক পৃষ্ঠায় লেখা ছিল ‘আশ-শুকরু লিল্লাহ, ওয়াল হাউলু, ওয়াল কুয়াতু বিল্ল­াহ’। খালাফ ইবনে আহমেদ মোহাম্মদ ইবনে খালাফের শাসনকাল ৩৭০-৩৯৩ হিজরী। তার সময় স্বর্ণ নির্মিত দিনারের ওজন ছিল ৪.৬৪ গ্রাম। এর এক পৃষ্ঠায় লেখা ছিল সূরা ইখলাস-‘কুলহু আল্ল­াহু আহাদ, আল্লাহুস সামাদ, লামইয়ালিদ ওলাম ইউলাদ, ওলাম ইয়া কুল্ল­াহু কুফুআন আহাদ’। অপর পৃষ্ঠায় লেখা ছিল, ‘লাইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুুল্ল­াহ...’।

বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যাংকে নোটে আতিয়া জামে মসজিদ, কুসম্বা জামে মসজিদ, ষাট গম্বুজ জামে মসজিদ, তারা মসজিদ ও বায়তুল মোকাররম মসজিদের ছবি  মুদ্রিত হয়েছে। তবে সেগুফতা বখত স্বাক্ষরিত বাংলাদেশের দশ টাকার নোটে প্রথমবারের ন্যায় ‘আল­াহু আকবার’ মুদ্রিত হয়। চলতি মাসের ৫ অক্টোবর টাকা জাদুঘর (রাজধানী ঢাকার মিরপুরে অবস্থিত) তার দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করতে যাচ্ছে। এই জাদুঘর পরিদর্শন করলেও বিভিন্ন মুসলিম মুদ্রায় আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের (স) নাম দেখতে পাওয়া যাবে স্বচক্ষে।

লেখক: মুদ্রা সংগ্রাহক ও গবেষক, সাধারণ সম্পাদক, টাকা জাদুঘর ডোনার ক্লাব, ঢাকা

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২ অক্টোবর, ২০২০ ইং
ফজর৪:৩৬
যোহর১১:৪৯
আসর৪:০৬
মাগরিব৫:৪৮
এশা৭:০১
সূর্যোদয় - ৫:৫০সূর্যাস্ত - ০৫:৪৩
পড়ুন