‘কর্ম’ হউক ভালো
০৬ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
পত্রিকার পাতায় কিংবা কর্মজগতের সাপ্তাহিকী হইতে চাকরির সন্ধান, অতঃপর ডাকযোগে আবেদনপত্র পাঠাইয়া নিয়োগকর্তাদের উত্তরের অপেক্ষায় বসিয়া থাকা- এমন ধূসর সময় ক্রমশ অপসৃয়মান। ক্রমশ জাঁকিয়া বসিতেছে চাকরির ই-সার্চিং যুগ। স্মার্টফোন আর ল্যাপটপের যুগে এখন ঘরে বসিয়াই স্ব স্ব যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরির আবেদন করা যায়।

বর্তমানে প্রতি বত্সর ২০ লক্ষ তরুণ বাংলাদেশের জব মার্কেটে প্রবেশ করিতেছে। ইহার মধ্যে অনানুষ্ঠানিক চাকরির ক্ষেত্রে নিয়োগ হইতেছে ৮৬ শতাংশ। কোনো সন্দেহ নাই, সংখ্যাটি বিপুল। এই অনানুষ্ঠানিক খাতে অনলাইনে চাকরির খোঁজে নূতন দিগন্ত প্রসারিত করিতেছে চমকপ্রদ সব পোর্টাল। সম্প্রতি বাংলাদেশিদের জন্য চাকরি সন্ধানের অ্যাপ উন্মুক্ত করিয়াছে গুগল। গুগল জানাইয়াছে যে, ‘কর্ম’ নামের গুগলের এই অ্যাপটি চাকরিপ্রার্থীদের সাইন আপ করিবার পর তাহাদের সিভি তৈরি ও উপযুক্ত চাকরির জন্য আবেদন করিতে পারিবে। দক্ষতা ও ব্যক্তিগত উন্নয়ন বাড়াইতে এই অ্যাপে বিষয়ভিত্তিক কন্টেন্টও থাকিবে। অন্যান্য ‘জব ম্যাচিং’ এবং ‘জব লিস্টিং’ সাইট হইতে গুগলের ‘কর্ম’ অ্যাপটির পাথর্ক্য হইল, ইহা নিয়মিতভাবে ব্যবহারকারীদের সহিত যোগাযোগ রক্ষা করিবার মাধ্যমে ‘জব ম্যাচিং’ প্রোফাইল সমৃদ্ধ করিতে থাকিবে। ইহার মাধ্যমেই একপর্যায়ে পরিপূর্ণ করিবে চাকরির পোস্ট। এই প্রক্রিয়ার মধ্যে রহিয়াছে ইন্টারভিউতে উপস্থিতি, সফল নির্বাচন, সনদ প্রদান এবং চাকরিপ্রার্থীর অভিজ্ঞতা সংগ্রহ প্রভৃতি। সময়ের সহিত ‘কর্ম’ স্বয়ংক্রিয়ভাবে চাকরিপ্রার্থীর অভিজ্ঞতা ও দক্ষতার ভিত্তিতে সিভি তৈরি করিয়া দিবে।

অনলাইনে চাকরি-সন্ধানের ইতিহাস খুব বেশি পুরাতন নহে। এইক্ষেত্রে ১৯৯৫ সালে পথপ্রদর্শকের ভূমিকা পালন করে ‘ক্যারিয়ারবিল্ডার ডট কম’ নামের একটি ওয়েবসাইট। ইহার পর ১৯৯৯ সালে বাজারে আসিয়া হইচই ফেলিয়া দেয় ‘মনস্টার ডট কম’। কাছাকাছি সময়ে ভারতে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় ‘নোকরি ডট কম’ ওয়েবপোর্টাল। ২০০৩ সালে তৈরি হয় ‘লিঙ্কড্ইন’ নামের একটি কর্মজগত-ভিত্তিক যোগাযোগ মাধ্যম। এইখানে চাকরি-সন্ধানের চাইতে কর্মজগতে নেটওয়ার্ক গড়িয়া তোলা হয়। পরোক্ষভাবে ইহা নূতন সম্ভাবনার চাকরিরও সন্ধান দিয়া থাকে। বাংলাদেশেও বিভিন্ন সময় চাকরির সন্ধানের জন্য নানা ধরনের ওয়েবপোর্টাল বিকশিত হইয়াছে। তাহাদের অনেকগুলিই যথেষ্ট জনপ্রিয়। তবে টেকজায়ান্ট গুগলের যেকোনো প্রকল্পই অনেকবেশি ব্যবহার-বান্ধব, সহজবোধ্য ও সর্বাধিক মানুষের নিকট পৌঁছাইবার সামর্থ্য রাখে। জানা যায়, গুগল-এর এরিয়া ১২০ ইনকিউবেটরের পরীক্ষামূলক জব মার্কেটপ্লেস ‘কর্ম’। এই প্ল্যাটফর্মটি মূলত ইনফরমাল চাকরির বাজারে কাজ করিবে।

‘কর্ম’ দুইটি ভাগে বিভক্ত—ইহার একটি ‘চাকরিপ্রার্থী অ্যাপ’ এবং অন্যটি ‘চাকরিদাতা অ্যাপ’। একপক্ষের দরকার যোগ্যতা অনুযায়ী উপযুক্ত কর্ম, অন্যপক্ষের জন্য কাজ অনুযায়ী উপযুক্ত চাকরিপ্রার্থী। ইহাতে সুবিধা পাইবে উভয়পক্ষই। অনানুষ্ঠানিক খাতে এই দুইপক্ষের সেতুবন্ধন হিসাবে ‘কর্ম’ আশা করা যায় আমাদের অর্থনীতিতেও প্রাণচাঞ্চল্য বৃদ্ধি করিবে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৬ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৬
যোহর১১:৪৭
আসর৪:০৩
মাগরিব৫:৪৫
এশা৬:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৫১সূর্যাস্ত - ০৫:৪০
পড়ুন