বৃষ্টিধোয়া ম্যাচ ড্র
বৃষ্টিধোয়া ম্যাচ ড্র
সকাল বেলায় স্টেডিয়াম সংশ্লিষ্ট একজন ফোনে বলেছিলেন– কোনো সুযোগ নেই।

আসলে যেমন অন্ধকার করে বৃষ্টি এসেছিলো, সারা দিনে যে আর খেলা হবে, এমন বিশ্বাস করার কোনো কারণ ছিলো না। কিন্তু প্রকৃতির রসিকতা বলে কথা! সেই বৃষ্টি মিলিয়ে গিয়ে রোদ ঝলমল করে উঠলো। বেলা পৌনে একটা থেকে নির্বিঘ্নে খেলাও হলো। আর সেটুকু সময়ের মধ্যেই বাংলাদেশ ‘দুই দিনের টেস্ট’ ম্যাচে ফলোঅনের লজ্জাতেও পড়লো!

ভারতের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ফলোঅন এড়াতে গেলে ২৬২ রান করতে হতো বাংলাদেশ দলকে। ইমরুল কায়েসের ৭২ রানের ইনিংসের পরও প্রথম ইনিংসে ২৫৬ রানে অলআউট হয়ে ৬ রানের জন্য ফলোঅনে পড়লো স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য বাংলাদেশ বিনা উইকেটে ২৩ রান তুলে ফেলার পর দু’ দল ড্র মেনে নিলো।

৬ উইকেটে ৪৬২ রান তুলে তৃতীয় দিনের ‘ওভার নাইট’ স্কোরে ইনিংস ঘোষণা করে দিয়েছিলো ভারত। জবাবে চতুর্থ দিন যে সামান্য সময় খেলা হয়েছিলো, তাতে বাংলাদেশ ৩ উইকেটে ১১১ রান তুলেছিলেন। তামিম, মুমিনুলের আশা জাগিয়ে আউট এবং মুশফিকের সেট হতেই না পারাটা হতাশার ছিলো; শঙ্কার নয়। গতকাল ফিরলো সেই শঙ্কাটা।

গতকাল পৌনে একটায় শুরু হলো পঞ্চম দিনের খেলা। হাতে ৭ উইকেট নিয়ে এটুকু সময় দিব্যি শেষ করে ফেলার কথা বাংলাদেশের; এর মধ্যে ইমরুল ৫৯ রান করে ও সাকিব রানের খাতা না খুলে দিন শুরু করেছিলেন। এরপর সৌম্য, লিটন ও শুভাগত ছিলেন ব্যাটিংয়ের অপেক্ষায়। শুরুতে দুটো বাউন্ডারি মেরে সাকিব আভাষ দিচ্ছিলেন, দিনটা তারা নিজেদেরই করে রাখবেন। কিন্তু কোথায় কী! রবিচন্দন অশ্বিনের অফস্পিন যেন কালান্তক হয়ে উঠলো।

আগের দিন ২ উইকেট নেয়া অশ্বিন গতকাল নিলেন আরও ৩ উইকেট। আর এই অফস্পিনারের ৫ উইকেট শিকারে মুখ থুবড়ে পড়লো বাংলাদেশের ইনিংস।

সাকিব ৯ রান করে ফিরে এলেন। এরপর অবশ্য সৌম্য সরকারকে নিয়ে আরেকটা জুটি করে এগোনোর চেষ্টা করছিলেন ইমরুল। কিন্তু ১৯৯ বলে ১২টি চারে সাজানো ইমরুলের ইনিংস শেষ হলো ৭২ রানে। আর সঙ্গে সঙ্গেই কার্যত পতন শুরু হয়ে গেলো বাংলাদেশি ব্যাটিংয়ের। ইমরুলের পরপরই সৌম্যও বিদায় নেন ৩৭ রান করে। তারপর আর গল্প বলতে ছিলো শুধু এক প্রান্তে লিটন দাসের আগ্রাসী প্রতিরোধ। অভিষিক্ত এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ৪৪ রানের ইনিংস খেলে ফেরেন। তারপরও আটকানো যায়নি বাংলাদেশের পতন।

মাত্র ৬ রানের জন্য ফলোঅনে পড়ে বাংলাদেশ। যদিও দ্বিতীয় ইনিংসে কোনো উইকেট না হারিয়ে ২৩ রান তোলার পর দু’ দল ড্র মেনে নেয়। কিন্তু এই ড্র নিশ্চয়ই ব্যাটিং ব্যর্থতায় প্রলেপ হতে পারে না।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৫ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন