পল্লী অঞ্চলের ৮৮ ভাগ মানুষ পাবে বিশুদ্ধ পানি
একনেকে সাত প্রকল্প অনুমোদন
ইত্তেফাক রিপোর্ট০২ ডিসেম্বর, ২০১৫ ইং
পল্লী অঞ্চলের ৮৮ ভাগ মানুষ পাবে বিশুদ্ধ পানি
দেশের প্রত্যন্ত জনগোষ্ঠীর নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে পল্লী অঞ্চলে পানি সরবরাহ প্রকল্পসহ সাতটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। গতকাল মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরস্থ এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এই সভায় প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন। অনুমোদিত ৭টি প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ৩৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল হতে ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ১১ কোটি এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল হতে ২৫ কোটি ৪৬ লাখ টাকা।

একনেক বৈঠক শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগে পানির স্তর ক্রমেই নিচে নেমে যাচ্ছে। সুপেয় পানির ক্রমবর্ধমান দুষ্প্রাপ্যতা মোকাবেলায় বৃষ্টির পানি ধরে রেখে তা প্রক্রিয়া করণের মাধ্যমে বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মেটাতে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। পানি সরবরাহ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের শতকরা ৮৮ ভাগ মানুষ বিশুদ্ধ খাবার পানির আওতায় চলে আসবে। ৮শ কোটি টাকা ব্যয়ে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে।

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে প্লাস্টিক শিল্পনগরী গড়ে তুলতে প্রায় ১৩৩ কোটি টাকা ব্যয়ে আরেকটি প্রকল্প অুনমোদন দেয়া হয়েছে একনেকে। এটি বাস্তবায়িত হলে ৩৬০টি শিল্প প্লট স্থাপন করা সম্ভব হবে। এর মধ্যে ১০ শতাংশ নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সংরক্ষণ করা হবে। ২০১৮ সালের জুনের মধ্যে বিশেষায়িত এ শিল্পনগরী স্থাপন করার লক্ষ্য রয়েছে।

বৈঠকে ৮৪ কোটি ৮৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও জনসেবার মানোন্নয়ন :ডেলিভারী সেবা দ্রুতকরণ’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। সভায় এসবি/সিআইডি ভবনের ৭ম থেকে ১১তম তলা পর্যন্ত ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। এছাড়া ৬১৫ কোটি ৫৩ লাখ টাকা ব্যয়ে মানিকগঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল স্থাপন শীর্ষক প্রকল্প, ২৯৭ কোটি টাকা ব্যয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প (২য় সংশোধিত) এবং সমন্বিত প্রযুক্তির মাধ্যমে দারিদ্র্য দূরীকরণের জন্য সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের (ইমপ্যাক্ট-ফেজ-২) সংশোধনী অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বৈঠকে একনেক সদস্যবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীবৃন্দ এবং সংশ্লিষ্ট সচিব ও পরিকল্পনা কমিশন সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২ নভেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১১:৪৮
আসর৩:৩৫
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:২৪সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
পড়ুন