পৌর নির্বাচন আদৌ কী সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে--------------- বিএনপি
ইত্তেফাক রিপোর্ট০২ ডিসেম্বর, ২০১৫ ইং
দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করা বিএনপি পৌর নির্বাচনের ভোটের জন্য প্রস্তুতি শুরু করলেও নির্বাচন আদৌ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি না তা নিয়ে দলটি শঙ্কা প্রকাশ করেছে। গতকাল মঙ্গলবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) সুষ্ঠু নির্বাচন করার সামর্থ্য অনেক আগেই হারিয়েছে। কারণ, নির্বাচন কমিশন সরকারের ক্ষমতার কাছে নতজানু হয়েছে। দেশি-বিদেশি মহলের কাছে ইসি নিজেদের অক্ষমতার পরিচয় দিয়েছে।

তিনি বলেন, পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের গণগ্রেপ্তার করা হচ্ছে। আমাদের প্রশ্ন, নির্বাচন আদৌ কী সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। আমরা আশঙ্কা করছি, ক্ষমতাসীনরা ৫ জানুয়ারির মতো আরো একটি নির্বাচন জাতিকে উপহার দিতে যাচ্ছে। কারণ, পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থীদের হত্যা ও গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। কিন্তু এসব দেখে সিইসি যদি চোখ ও কান বন্ধ রাখেন তাহলে নির্বাচন আদৌ প্রতিযোগিতামূলক হবে না।

রিপন বলেন, আমরা পৌর নির্বাচন ১৫ দিন পিছিয়ে দেয়ার দাবি জানিয়েছিলাম। কিন্তু ইসি আমাদের দাবিকে নাকচ করে দিয়েছে। কারণ হিসাবে ইসি তাবলিগ জামাত ও পরীক্ষার কথা বলেছে। তাবলিগের কথা গ্রহণযোগ্য কিন্তু পরীক্ষার কথা অগ্রহণযোগ্য। নির্বাচন কমিশনের স্বদিচ্ছা থাকলে নির্বাচন ১৫ দিন কেনো এক মাসও পেছানো সম্ভব ছিল। তিনি অভিযোগ করেন, পৌর নির্বাচনের তারিখ পিছিয়ে দিলে নতুন ৫০ লাখ ভোটার ভোট প্রদানে সুযোগ পেত। কিন্তু নির্বাচন কমিশন আমাদের দাবির তোয়াক্কা করছে না।

একাত্তরে পাকিস্তান কোনো গণহত্যা করেনি- পাকিস্তানের এমন দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, মিথ্যা বলে সত্যকে আড়াল করা যাবে না।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, আব্দুল লতিফ জনিসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২ নভেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১১:৪৮
আসর৩:৩৫
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:২৪সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
পড়ুন