ভাই-বোনের মৃত্যু
বাবা-মা আটক, সন্দেহ করা হচ্ছে পরিবারকেই
ইত্তেফাক রিপোর্ট০৩ মার্চ, ২০১৬ ইং
বাবা-মা আটক, সন্দেহ করা হচ্ছে পরিবারকেই
রাজধানীর রামপুরার বনশ্রীতে দুই ভাই-বোনকে শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় পরিবারকেই সন্দেহ করছে তদন্ত টিমগুলো। পুলিশ ও র্যাবের গোয়েন্দারা বলছেন, পারিবারিক কলহের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিশেষ করে হত্যাকাণ্ড ঘটার পর থেকেই নিহত দুই শিশুর মা মাহফুজা মালেক জেসমিনের আচরণ ছিল রহস্যজনক। এসব কারণে তাদের ব্যক্তিগত বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গতকাল বুধবার জামালপুর থেকে নিহতদের বাবা আমানুল্লাহ, মা জেসমিন ও খালা আফরোজাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে র্যাব। এদিকে নিহত আলভী আমানের স্কুল ‘হলি ক্রিসেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজে’ তার মৃত্যুতে গতকাল মিলাদ মাহফিল হয়েছে। নিহত আলভী ওই স্কুলের নার্সারির ছাত্র ছিল।

র্যাব সূত্র জানায়, শিশু দুটির মা জেসমিনের কথার মধ্যে গরমিল রয়েছে। জেসমিন ও দারোয়ান পিন্টুর বক্তব্যের মধ্যে কোনো মিল পাচ্ছে না র্যাব। জেসমিন র্যাবকে জানিয়েছেন, তারা তিনজন একসঙ্গে ঘুমিয়েছিলেন। ঘুম থেকে সোয়া ৫টার দিকে উঠে তিনি দেখতে পান তাদের সন্তান নুসরাত আমান অরণী ও আলভী আমান মেঝেতে পড়ে আছে। তাত্ক্ষণিকভাবে তিনি তার স্বামী আমানউল্লাহ ও বোন আফরোজা মিলাকে ফোনে বিষয়টি জানান।

অপরদিকে বাড়ির দারোয়ান পিন্টু র্যাবকে জানিয়েছেন, ঘটনার দিন সোমবার বিকাল পৌনে ৬টার দিকে শিশুর খালা মিলাকে বাসা থেকে বের হতে দেখেছেন তিনি। অর্থাত্ ওই সময় মিলা ওই বাসাতেই ছিলেন, অথচ সেটা গোপন করা হয়েছে। একইভাবে ওই দিন বিকালে তাদের গৃহশিক্ষিকা শিউলী আক্তার ৩টা থেকে সোয়া ৪টা পর্যন্ত অরণীকে পড়ান। র্যাবের কাছে দেয়া বক্তব্যে শিউলী জানিয়েছেন, তিনি যখন অরণীকে পড়াতে যান তখন ওই বাসায় জেসমিন ছাড়াও একজন নারীকে তিনি দেখেছেন।

এ ব্যাপারে র্যাব-৩-এর এএসপি রবিউল করিম জানান, ব্যক্তিগত ও পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এতে কিছু ক্ষেত্রে বক্তব্যের গরমিল রয়েছে বলে তিনি জানান ।

এদিকে দুই শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় জব্দ করা আলামত ডিএনএ প্রোফাইলিং ও রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য পুলিশকে অনুমতি দিয়েছে আদালত। গতকাল ঢাকার মহানগর হাকিম কাজী কামরুল ইসলাম এ অনুমতি দেন। জব্দ করা আলামতের মধ্যে রয়েছে বালিশ, বিছানার চাদর, বালিশের কভার, টিস্যু ও কম্বল। আর রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য সংগ্রহ করা হয়েছে চায়নিজ রেস্টুরেন্টের খাবার পানি। এ বিষয়ে আদালতে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য বিচারক পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) রাসায়নিক গবেষণা ও বিশ্লেষণ বিভাগের প্রধানকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৩ মার্চ, ২০২১ ইং
ফজর৫:০৪
যোহর১২:১১
আসর৪:২৪
মাগরিব৬:০৫
এশা৭:১৮
সূর্যোদয় - ৬:১৯সূর্যাস্ত - ০৬:০০
পড়ুন