শ্রদ্ধা, ভালোবাসায় সিক্ত মাহবুবুল হক শাকিল
জানাজায় জনতার ঢল
বিশেষ প্রতিনিধি০৮ ডিসেম্বর, ২০১৬ ইং
শ্রদ্ধা, ভালোবাসায় সিক্ত মাহবুবুল হক শাকিল
সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী, সাবেক ছাত্রনেতা মাহবুবুল হক শাকিল। গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে শাকিলের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় মন্ত্রিসভার সদস্যবৃন্দ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মী ও শুভানুধ্যায়ীসহ সর্বস্তরের মানুষের ঢল নামে। জানাজা শেষে মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

এরপর রাজনৈতিক সহকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ মাহবুবুল হক শাকিলের কফিনে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান। প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী শাকিলের মরদেহে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম ও ডেপুটি প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন। পরে একে একে সর্বস্তরের মানুষ কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

কবি, লেখক এবং ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা মাহবুবুল হক শাকিলের (৪৮) মরদেহ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর গুলশান দুই নম্বরে সামদাদো জাপানিজ কুইজিন রেস্তোরাঁ থেকে উদ্ধার করা হয়। বুধবার সকাল আটটায় বারডেম থেকে শাকিলের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নেওয়া হয়। সেখান থেকে বেলা ১১টায় দিকে জানাজার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে নেওয়া হয়। জানাজা ও সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বেলা ১১টা ২০ মিনিটে মাহবুবুল হক শাকিলের মরদেহ ময়মনসিংহে নিয়ে যাওয়া হয়।

বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত মাহবুবুল হক শাকিলের প্রথম নামাজে জানাজায় অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবীর নানক, বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জোনায়েদ আহমেদ পলক, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক এবং প্রধানমন্ত্রীর সাবেক প্রেস সচিব আবুল কালাম আজাদ, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, এ কে এম এনামুল হক শামীম, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, দপ্তর সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অসীম কুমার উকিল, দেলোয়ার হোসেন, সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস, নাজমুল হাসান পাপন, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শেখর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য আকতারুজ্জামান, মির্জা আজম, এমএম কামাল হোসেনসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ও শাকিলের রাজনৈতিক সহকর্মী, বন্ধু, স্বজনেরা।

জানাজার আগে মাহবুবুল হক শাকিলের ছোট ভাই মাহমুদুল হক রিপন বলেন, ‘আমার ভাই আমাদের চেয়ে আপনাদের সঙ্গে বেশি সময় কাটিয়েছেন। তার চলার পথে কোনো ভুল-ত্রুটি থাকলে আপনারা ক্ষমা করে দেবেন। কোনো দেনা-পাওনা থাকলে আমি পরিশোধ করে দেবো। আমার ভাইকে আপনারা সবাই মাফ করে দেবেন।’

মাহবুবুল হক শাকিল ১৯৬৮ সালের ২০ ডিসেম্বর টাঙ্গাইলে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ময়মনসিংহ জিলা স্কুল থেকে এসএসসি ও আনন্দমোহন কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে তিনি স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০০৮ সালে নবম সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় যাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিবের দায়িত্ব পান শাকিল। চার বছর পর তাকে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী (মিডিয়া) করা হয়। এরপর ২০১৪ সাল থেকে অতিরিক্ত সচিব মর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারীর দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর শোক

আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি এক শোক বিবৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাহবুবুল হক শাকিলের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বিবৃতিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম প্রয়াত মাহবুবুল হক শাকিলের পবিত্র রুহের মাগফিরাত কামনা এবং তার শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। 

দাফন সম্পন্ন

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি জানান, ময়মনসিংহের কাচিঝুলি আঞ্জুমানে ঈদগাহ মাঠে মাগরিবের নামাজ শেষে সন্ধ্যা ৫টা ৫৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিলের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাকে শহরের ভাটিকাশর গোরস্থানে সন্ধ্যা ৭টায় চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

বুধবার বিকাল ৪ থেকে ৫টায় ময়মনসিংহ শহরের টাউন হলের মাঠে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন। ফুলে ফুলে ভরে যায় মরহুমের কফিন ও আশপাশের এলাকা। লাশ আসার আগে ও পরে পাহারায় ছিল র্যাব-পুলিশ।

জানাজা নামাজের পূর্বে ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মরহুমের পিতা অ্যাডভোকেট জহিরুল হক বক্তব্য রাখেন।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৮ নভেম্বর, ২০২০ ইং
ফজর৫:০৭
যোহর১১:৫১
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩৩
সূর্যোদয় - ৬:২৭সূর্যাস্ত - ০৫:১০
পড়ুন