রোহিঙ্গা ও ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে সংসদে আলোচনা হবে
ফারাজী আজমল হোসেন১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
বর্তমানে দেশের দুই আলোচিত ইস্যু মিয়ানমার থেকে পালিয়ে সে াতের মতো রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে প্রবেশ ও সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের কিছু পর্যবেক্ষণ। এই দুই ইস্যুতে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে সাধারণ আলোচনা ও প্রস্তাব গৃহীত হবে। সেক্ষেত্রে আজ সোমবার রোহিঙ্গা ইস্যু এবং আগামীকাল মঙ্গলবার ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে সংসদে সরব আলোচনা হতে পারে। গতকাল রবিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনের প্রথম দিনেই এ দুটি ইস্যুতে সাধারণ আলোচনার জোরালো দাবি উঠেছিল। জানা গেছে, এবারের অধিবেশন পাঁচ কর্মদিবস        হলেও উল্লিখিত দুই ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হবে।

গতকাল মাগরিবের নামাজের বিরতির পর ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে অধিবেশন শুরু হয়। এ সময় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ রোহিঙ্গা সংকট এবং ষোড়শ সংশোধনী বাতিল নিয়ে সর্বোচ্চ আদালতের পর্যবেক্ষণ নিয়ে জাতীয় সংসদে আলোচনা ও সিদ্ধান্তের দাবি জানিয়ে বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা ও ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে সংসদে আলোচনা হওয়া উচিত।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গা ইস্যুতে যেসব পদক্ষেপ নিয়েছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়। তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে রায় ও পর্যবেক্ষণ দিয়েছে তা দেশ ও জাতিকে বিস্মিত করেছে। এটা আমরা সংসদে তুলে ধরতে চাই। তাই বিষয় দুটি নিয়ে নোটিস দিয়ে আলোচনা হতে পারে। সেক্ষেত্রে আগামীকাল (সোমবার) রোহিঙ্গা এবং পরদিন মঙ্গলবার ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে এই সাধারণ আলোচনা হতে পারে। জবাবে স্পিকারের আসনে থাকা ডেপুটি স্পিকার বলেন, বিষয়টি বিবেচনা করে স্পিকার সংসদ নেতার (প্রধানমন্ত্রী) সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন। সেখানে আপনারা যে প্রস্তাব দেবেন এবং নামের তালিকা দেবেন, সেই অনুযায়ী আলোচনা হবে।

এর আগে পয়েন্ট অব অর্ডারে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজী মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা প্রবেশ প্রসঙ্গে বলেন, বাংলাদেশের মানুষের বিবেক জাগ্রত। আর এক পশুশ্রেণি মানুষের তাণ্ডবে আমরা হতবাক। পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমার। এটা এক সময় ছিল আরাকান স্বাধীন রাজ্য। কালের পরিক্রমায় আবার পরাধীন হয়ে যায়। সেখানে মুসলমানরা থাকেন। সেই মুসলমানদের ওপর বার বার আঘাত করা হচ্ছে। একথা বলার পরই ডেপুটি স্পিকার তার মাইক বন্ধ করে বলেন, ‘আপনি বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষের বিবেক জাগ্রত। আপনি জাগ্রত মানুষের পক্ষে। তাই যদি বিধি অনুযায়ী রোহিঙ্গা ইস্যুতে আলোচনা করতে একটা নোটিস দেন। নিশ্চয়ই সেটা গ্রহণ করা হবে।

স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে সর্বোচ্চ আদালতের রায় ও পর্যবেক্ষণ নিয়ে পয়েন্ট অব অর্ডারে কথা বলতে চাইলে ডেপুটি স্পিকার তাকেও বাধা দেন। তিনি বলেন, সর্বোচ্চ আদালতের এই রায় নিয়ে আপনি শঙ্কিত হয়েছেন, আমরাও বিস্মিত হয়েছি। এই সংসদ সার্বভৌম। তাই আপনিও এ ব্যাপারে নোটিস দিলে সংসদে তা নিয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

স্পিকারের সঙ্গে সরকারি ও বিরোধী দলের সিনিয়র নেতাদের বৈঠক

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা ও ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের কিছু পর্যবেক্ষণ এই দুটি ইস্যুতে সংসদে আলোচনার কৌশল নির্ধারণে গতকাল রবিবার রাতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে তার সংসদ ভবনের কার্যালয়ে বৈঠক করেছেন সরকার ও বিরোধী  দলের সিনিয়র নেতারা। সূত্র জানায়, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, জাসদের মইন উদ্দীন খান বাদল, বিদ্যুত্ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদসহ কয়েক সংসদ সদস্য এ ব্যাপারে স্পিকারের সঙ্গে কথা বলেন। জানা গেছে, এরপর স্পিকার ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া রায় নিয়ে সংসদে সাধারণ আলোচনার  বিষয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করেন। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৪:২৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:২৩
মাগরিব৬:১০
এশা৭:২৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৫
পড়ুন