কম ভাড়ায় ট্রাকের যাত্রী হয়ে প্রাণ গেল সড়কে!
গাইবান্ধায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১১
গাইবান্ধা প্রতিনিধি১১ মার্চ, ২০১৮ ইং
কম ভাড়ায় ট্রাকের যাত্রী হয়ে প্রাণ গেল সড়কে!
ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় গতকাল শনিবার সকালে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নারীসহ ১১ জন নিহত ও কমপক্ষে ২৩ জন আহত হয়েছেন। নিহতরা দিনমজুর ও নির্মাণ শ্রমিক বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে ৭ জন কম ভাড়ায় দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকের যাত্রী হয়ে ঢাকা থেকে নীলফামারী যাচ্ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার পরিদর্শক আবুল বাশার ও পলাশবাড়ী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোস্তাফিজার রহমান জানান, ঢাকা থেকে রংপুরগামী রড বোঝাই একটি ট্রাক উপজেলার জুনদহ ব্রিজের কাছে একটি বাইসাইকেলকে পাশ কাটাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পরে উল্টে যায়। এতে ওই ট্রাকের উপরে থাকা নারীসহ ৭ যাত্রী ঘটনাস্থলেই রড চাপায় নিহত ও ১১ জন আহত হন। ধারণা করা হচ্ছে কম ভাড়ায় দিনমজুররা এই ট্রাকের যাত্রী হয়ে ঢাকা থেকে নীলফামারী ফিরছিলেন।

নিহতরা হলেন: নীলফামারী সদরের অঙ্গারপাড়া গ্রামের জালাল উদ্দিনের স্ত্রী রেজিয়া খাতুন (৭০), একই গ্রামের হুদা মাহমুদের ছেলে মোতাহার হোসেন (৪৫) ও তার স্ত্রী মারুফা বেগম (৩৫), একই জেলার ডোমার উপজেলার জমির উদ্দিনের ছেলে মফিজুল ইসলাম (৫৫), একই উপজেলার শেউটগাড়ী গ্রামের আব্দুর রউফের ছেলে            আব্দুর ছাত্তার (৩৪), একই জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার উত্তর শিংগরগাড়ী গ্রামের সোনা মিয়ার ছেলে ফরহাদ হোসেন (২০) এবং পঞ্চগড় জেলার দেবিগঞ্জ উপজেলার সোনারহার সরকার পাড়ার আজিজ উদ্দিনের ছেলে রশিদুল ইসলাম (৩৫)।    

এদিকে রংপুর থেকে বগুড়াগামী একটি যাত্রীবাহী বাস উপজেলার নুনিয়াগাড়ী এলাকায় সরকার পাম্পের সামনে চাকা পাঙচার হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীতমুখী একটি যাত্রীবাহী ট্রলিকে (শ্যালো ইঞ্জিল চালিত পাওয়ার টিলার) চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তিনজন নিহত ও ১২ জন আহত হন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরেকজন মারা যান। এরা হলেন: জাকির হোসেন (২৫), খসরু মিয়া (৫৫), রাজু মিয়া (২৮) ও আবু বক্কর (৪০)। এরা সবাই ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রুদ্র নগর গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়, খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কয়েকটি ইউনিটের লোকজন উভয় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে। আহতদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৪ জনকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও বাকিদের পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। উভয় ঘটনায় পলাশবাড়ী থানায় পৃথক দু’টি মামলা হয়েছে। তবে কোন পরিবহনের চালক ও সহকারীদের আটক করা সম্ভব হয় নাই।

এদিকে বেলা তিনটার দিকে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ২০ হাজার করে টাকা অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন।

কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

কুমিল্লা প্রতিনিধি জানান, পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক কলেজ ছাত্রসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর এলাকায় একটি প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডিভাইডারের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে ২ জন নিহত হন। এরা হলেন- জেলার বুড়িচং উপজেলার এতবারপুর গ্রামের ফরিদ ভূঁইয়ার ছেলে ও কুমিল্লা ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্র নাছির উদ্দিন ইমন (২০) এবং তার প্রাইভেটকার চালক বুড়িচংয়ের কংশনগর এলাকার হরমুজ মিয়ার ছেলে রনি (২৩)। এছাড়া জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার বদরপুর নামক স্থানে ট্রাক্টরের সাথে সংঘর্ষে সিএনজি অটোরিকশার চালক শাহাদাত হোসেন (২২) নিহত হন। তিনি ওই উপজেলার মৌকারা ইউনিয়নের পরকরা গ্রামের শাহজাহানের ছেলে।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ মার্চ, ২০১৯ ইং
ফজর৪:৫৬
যোহর১২:০৯
আসর৪:২৭
মাগরিব৬:০৯
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৬:০৪
পড়ুন