গোপালগঞ্জে পৃথক সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ৭৫
বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর
২৬ আগষ্ট, ২০১৮ ইং
 গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি ও কোটালীপাড়া সংবাদদাতা

গতকাল শনিবার গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার নিজড়া, কোটালীপাড়া উপজেলার হিরণ ও কান্দি গ্রামে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় পুলিশসহ ৭৫ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালে ৮/১০টি বাড়িঘরে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালে চিকিত্সাধীন আহতরা জানিয়েছেন, শুক্রবার সদর উপজেলার নিজড়া ইউনিয়নের দুয়ানী পাড়া মাঠে বটবাড়ি ও উত্তরপাড়া গ্রামের মধ্যে ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উত্তরপাড়া গ্রামের সমর্থক রাসেল শেখের একটি মন্তব্যকে কেন্দ্র করে উত্তরপাড়া ফুটবল দলের খেলোয়াড় রফিক শেখ ও তারা শেখ তাকে মারধর করে। এ নিয়ে শনিবার সকালে দু’গ্রামের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে অন্তত ২৫ জন আহত হয়। মারাত্মক আহত সিরাজ খান, লিটন উকিল, কুটু মিনা, হাসান খান, টিটো খানসহ ১৩ জনকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি মোঃ মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছেন, এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

এদিকে শুক্রবার বিকালে কোটালীপাড়া উপজেলার বর্ষাপাড়া মাঠে বর্ষাপাড়া ও হিরণ গ্রামের মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। ফুটবল খেলার সময় দু’ দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে গতকাল শনিবার বর্ষাপাড়া গ্রামের মাদ্রাসা ছাত্র হাসান শেখকে হিরণ গ্রামের লোকজন মারপিট করে। এ নিয়ে সকাল ৮টার দিকে দু’গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। কোটালীপাড়া থানা পুলিশ সকাল ৯টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় কোটালীপাড়া থানার এসআই মুজাহিদ ও মোশারফসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৪০ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে কয়েকজনকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া মারাত্মক আহত ৫ জনকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যরা কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিক চিকিত্সা নিয়েছেন। হিরণ গ্রামের লোকজন অভিযোগ করেছেন, সংঘর্ষ চলাকালে বর্ষাপাড়া গ্রামের লোকজন হিরণ গ্রামের ১টি বাড়ির ৮টি ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। কোটালীপাড়া থানার ওসি কামরুল ফারুক দু’এসআই আহত হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

অন্যদিকে গতকাল সকালে কোটালীপাড়া উপজেলার কুশলা ইউনিয়নের কান্দি গ্রামের হাসমত শেখ সরকারি জায়গায় ঘর তোলেন। এ নিয়ে ওই গ্রামের ইস্রাফিলের সাথে হাসমতের কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে দু’ পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়। মারাত্মক আহত ৫ জনকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৬ আগষ্ট, ২০২১ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৬
এশা৭:৪১
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২১
পড়ুন