একমাসের মধ্যেই অনেক পরিবর্তন দেখবেন :মওদুদ
ইত্তেফাক রিপোর্ট০৬ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, পাঁচটি দাবিতে দেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই উপযুক্ত কর্মসূচি দেয়া হবে। এমন কর্মসূচি দেয়া হবে যে, তার মাধ্যমে এই সরকারের পরিবর্তন আসবে। পরিস্থিতি বলে দেবে কী ধরনের কর্মসূচি দিতে হবে। গণমাধ্যম কর্মীদের কৌতুহলের জবাবে জানাচ্ছি, আগামী এক মাসেই আপনারা অনেক পরিবর্তন দেখতে পারবেন। আওয়ামী লীগ একতরফাভাবে যতই প্রচারণা চালাক, তাতে কোনো লাভ নাই।

গতকাল রাজধানীতে সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) কার্যালয় মিলনায়তনে চেতনায় বাংলাদেশ নামক সংগঠনের উদ্যোগে ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : কোন পথে বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় মওদুদ একথা বলেন। সংগঠনের সভাপতি ও দোহার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা রহিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা: ফরহাদ হালিম ডোনার, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল আজীম, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কামরুজ্জামান রতন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, স্বৈরাচারি সরকারকে অপসারণ করতে হলে ঐক্যের বিকল্প নাই। সরকারে থাকলে সবসময় মনে হয় ‘আমরা বোধহয় চিরদিনের  জন্য সরকারে থাকছি’। কিন্তু রাজনীতি একটি গতিশীল প্রক্রিয়া। এক মিনিটের ব্যবধানে আপনারা বাধ্য হবেন সংলাপে বসতে, বাধ্য হবেন আমাদের দাবি মেনে নিতে।

মওদুদ আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের ভয়েস অব আমেরিকাকে এক সাক্ষাতকারে বলেছেন, বাংলাদেশে নির্বাচনের জন্য খুব সুন্দর পরিবেশ রয়েছে। কথাটা সত্য নয়। বাংলাদেশে কোনো সাধারণ নির্বাচন করার ন্যূনতম পরিবেশ নেই। রাজধানীর হাতিরঝিলের একটা মামলায় আমাকেসহ দলের শীর্ষ পর্যায়ের সকল নেতাকে আসামি করা হয়েছে। যে ঘটনা ঘটেনি তার কাল্পনিক রূপ দাঁড় করিয়ে এক একটা মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সত্য কথা বলেন না। তার কথা দেশের কেউই এখন আর বিশ্বাস করে না। আওয়ামী লীগ ঠিক আগের মতো একটা নির্বাচন করতে চায়। আমি দৃঢ়তার সাথে বলতে চাই, বাংলাদেশের মাটিতে এটা আর হতে দেয়া হবে না।

ইভিএম ফাঁকি দেয়ার যন্ত্র:মওদুদ আহমদ বলেছেন, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ফাঁকি দেয়ার যন্ত্র। যে দেশের কেন্দ ীয় ব্যাংক থেকে হ্যাকিং করে আটশ’ কোটি টাকা মেরে দেয়া যায়, সেখানে এটা তো সামান্য একটি মেশিন। এই মেশিনে আপনি গিয়ে টিপ দিলেন আর ভোটটা কোথায় গেলো আপনার কোনও খবর নাই। এটা নতুন একটি ষড়যন্ত্র। ভোট বিতর্কিত হলে আমাদের দেশে ব্যালট পুনর্গণনার আইন আছে। ব্যালট পেপার সব ঢেলে পুনর্গণনা করা হয়। কিন্তু ইভিএমে আপনি কিভাবে এটা করবেন? যত দেশে এটার ব্যবহার করা হয়েছে সবাই প্রত্যাখ্যান করেছে।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৬ অক্টোবর, ২০২১ ইং
ফজর৪:৩৬
যোহর১১:৪৭
আসর৪:০৩
মাগরিব৫:৪৫
এশা৬:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৫১সূর্যাস্ত - ০৫:৪০
পড়ুন