মোস্তফা কামাল
বৈচিত্র্যময় আখ্যানের শৈল্পিক উপস্থাপক
মিল্টন বিশ্বাস২৯ মে, ২০১৫ ইং
বৈচিত্র্যময় আখ্যানের শৈল্পিক উপস্থাপক
সাংবাদিকতা পেশার ব্যস্ততার মধ্যে যাঁরা সৃষ্টিশীল কাজের ধারা বজায় রাখতে পেরেছেন তাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন মোস্তফা কামাল। তিনি দুই দশক ধরে গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ-নিবন্ধ, সায়েন্স ফিকশন, টিভি নাটক এবং শিশু-কিশোর উপযোগী রচনার নিয়মিত লেখক। চলতি বছর বইমেলায় প্রকাশিত তাঁর ‘চাঁদের আলোয় রাগিব আলী এবং সে’ একটি নতুন ধরনের উপন্যাস। অন্যদিকে ‘রুবীর কালো চশমা’ সত্য ঘটনা অবলম্বনে রচিত। নানা ধরনের কিশোর উপন্যাস লিখে মোস্তফা কামাল ইতোমধ্যে ব্যাপক পরিচিতি অর্জন করেছেন। এ ধরনের একটি গ্রন্থ ‘ডাকাতের কবলে ফটকুমামা’। বিশ্ববিখ্যাত গোয়েন্দা ফটকুমামা কিশোর ত্বকী হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটনে মাঠে নামলেন। দশ কিশোর গোয়েন্দা তাঁর সঙ্গী। তারা নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্ল­া এবং আখাউড়ার সীমান্ত এলাকা চষে বেড়িয়েছে। দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর তারা খুঁজে পেল দুই সন্দেহভাজনকে। তাদের নিয়ে রওয়ানা হল ঢাকার উদ্দেশে। কিন্তু রাতের আঁধারে ঘটলো অঘটন! একদল ডাকাত তাদের গাড়িতে হামলা চালালো। এভাবেই এগিয়ে যায় কাহিনি। মোস্তফা কামালের রঙ্গব্যঙ্গ সিরিজ বেশ জনপ্রিয়। এবছর প্রকাশিত হয়েছে ‘পাগলছাগল ও গাধাসমগ্র-৯’। আর সায়েন্স ফিকশন ‘বিমান রহস্য’ এবং ‘হাসির চার উপন্যাস’ সংকলন দুটিও দৃষ্টিনন্দন। এছাড়া কলকাতা থেকে প্রকাশিত হয়েছে ৬টি সায়েন্স ফিকশন ও ৫টি গোয়েন্দা উপন্যাসের সংকলন নিয়ে  তাঁর আরো দুটি গ্রন্থ।

মোস্তফা কামালের ‘জননী’ উপন্যাসটি ইতোমধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ২০১১ সালে তাঁর মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস ‘জনক জননীর গল্প’ প্রকাশিত হয়। এসব গ্রন্থের আগেও তিনি ‘সিরিয়াস’ ধারার উপন্যাস রচনায় দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। ‘বারুদ পোড়া সন্ধ্যা’(২০০৫), ‘হ্যালো কর্নেল’(২০১০) তার মধ্যে পাঠকের মনোযোগ আকৃষ্ট করেছে। এরপর তিনি লিখেছেন ‘জিনাত সুন্দরী ও মন্ত্রী কাহিনী’(২০১২), ‘কবি ও একজন নর্তকী’(২০১৩) প্রভৃতি বাস্তবধর্মী কাহিনির  উপন্যাস। অন্যদিকে তাঁর সংকলনগ্রন্থ ‘সায়েন্স ফিকশন সমগ্র’, ‘চার জয়িতা’, ‘চার অপরূপা’ এবং গবেষণাগ্রন্থ ‘আসাদ থেকে গণঅভ্যুত্থান’ (১৯৯৩) খ্যাতি অর্জন করেছে। ‘হ্যালো কর্নেল’(২০১০) তাঁর একটি ব্যতিক্রমী সৃষ্টি। বিশেষত এই উপন্যাসের কাহিনি বর্তমান পাকিস্তানের জঙ্গি তত্পরতা ও আফগানিস্তানের রাজনৈতিক পরিস্থিতি, তালেবানদের আক্রমণ সব মিলিয়ে সমকালীন ও প্রাসঙ্গিক। মূলত মোস্তফা কামাল সমকালীন রাজনৈতিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে একাধিক উপন্যাস রচনা করেছেন। তার মধ্যে স্থান-কালের বিন্যাসে বৈচিত্র্যময় আখ্যানের শৈল্পিক উপস্থাপনা হচ্ছে ‘হ্যালো কর্নেল’। মোস্তফা কামাল তাঁর কথাসাহিত্যে ম্যাজিক রিয়ালিটি সৃজনে দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। ‘চাঁদের আলোয় রাগিব আলী এবং সে’ উপন্যাসে ম্যাজিক রিয়ালিজম এসেছে বাস্তব থেকে স্বপ্ন এবং স্বপ্ন থেকে বাস্তবের আখ্যানের মধ্য দিয়ে। মোস্তফা কামালের অনেকগুলো গ্রন্থের মধ্যে ‘রুবীর কালো চশমা’ এবারের বইমেলার গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা। সত্য ঘটনা অবলম্বনে পারিবারিক ক্রাইসিসকে কেন্দ্র করে এর আখ্যান বিন্যস্ত হয়েছে।

মোস্তফা কামাল নাগরিক জীবনের পারিবারিক সংকটকে ব্যক্তির বহুমাত্রিক চেতনার সংস্পর্শে দৃশ্যমান করেছেন। বস্তুত মোস্তফা কামাল একজন নিবেদিত প্রাণ সাহিত্যকর্মী। জনপ্রিয় ধারার সফল কথাসাহিত্যিক হয়েও বৈচিত্র্যে তাঁর সৃজনকর্ম বহুমাত্রিক এবং জ্ঞানের সকল দিগন্তকে স্পর্শ করেছে। সৃষ্টিশীলতায় আমৃত্যু সক্রিয় থাকুক তিনি। আগামীকাল ৩০ মে তাঁর জন্মদিনে এই আমাদের প্রত্যাশা।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৯ মে, ২০২০ ইং
ফজর৩:৪৫
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪৩
এশা৮:০৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৮
পড়ুন