রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপিডিএফের তিন কর্মী নিহত
রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপিডিএফের তিন কর্মী নিহত
রাঙ্গামাটির লংগদুর ভাইবোনছড়ায় সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে ইউপিডিএফ-এর তিন কর্মী নিহত হয়েছে।

রবিবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে ভাইবোনছড়া এলাকার গোল্লাছড়ি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় আরও একজনের নিহত হওয়ার খবর শোনা গেলেও এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। নিহতরা হলেন যুদ্ধমনি চাকমা (৩০), রূপময় চাকমা (২৮) ও সুমন চাকমা (৩৫) ।

ইউপিডিএফ নেতা মাইকেল চাকমা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি দাবি করেন সন্তু লারমার সশস্ত্র গ্রুপের সন্ত্রাসীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। স্থানীয় সূত্র জানায়, এই ঘটনায় অন্তত চারজন নিহত হয়েছে এবং একটি ঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। 

এলাকাবাসী ও ইউপিডিএফ সূত্র জানিয়েছে, গোল্লাছড়ি গ্রামের একটি বসতঘরে তাদের বেশ কয়েকজন কর্মী দলীয়কাজে গিয়ে রাতে অবস্থান করছিল। গতকাল ভোরে জেএসএস এর সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা সেখানে এসে আকস্মিকভাবে তাদের উপর হামলা চালায় এবং ব্রাশফায়ার করতে থাকে। এতে ঘটনাস্থলেই তিন ইউপিডিএফ কর্মী নিহত হয়। সন্ত্রাসীরা এরপর ঘরটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। ইউপিডিএফ নেতা মাইকেল চাকমা তিনজন নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করে জানিয়েছেন,   সন্তু লারমার সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা গ্রামে প্রবেশ করে ব্রাশফায়ার চালালে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় তাত্ক্ষণিকভাবে তিনজন নিহত হওয়ার কথা তিনি জানতে পেরেছেন বলে এই প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন। তিনি দাবি করেন, জেএসএস সন্ত্রাসীরা যে ঘরটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় সেটিতে বেশ কয়েকজন নারী ও শিশু ছিলো। তাদেরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

অপরদিকে এই ঘটনার সাথে জেএসএস জড়িত নয় বলে গণমাধ্যমকর্মীদের বলেছেন জেএসএস নেতা সজীব চাকমা। তিনি দাবি করেন, অন্তর্কোন্দলেই ইউপিডিএফ-এর কর্মীরা নিহত হয়েছে।

এই বিষয়ে রাঙ্গামাটি পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, লংগদুতে ব্রাশ ফায়ারে ৩ জন মারা যাওয়ার খবর শুনেছি। অনেক আগেই আমাদের পুলিশ ফোর্স গোল্লাছড়ি গ্রামের উদ্দেশে রওনা হয়েছে। তবে এলাকাটি দুর্গম হওয়ায় আমাদের পুলিশ ফোর্সের সেখানে পৌঁছাতে বিলম্ব হচ্ছে। না পৌঁছানো পর্যন্ত বিস্তারিত কিছু জানা যাচ্ছে না।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৫ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন