অবৈধ সম্পদের মামলায় মায়াকে খালাস সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায় বাতিল
ইত্তেফাক রিপোর্ট১৫ জুন, ২০১৫ ইং
অবৈধ সম্পদের মামলায় মায়াকে খালাস সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায় বাতিল
সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা এবং ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়াকে খালাস দেয়া সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায় বাতিল ঘোষণা করেছে। আপিল বিভাগ একইসঙ্গে হাইকোর্টকে মামলায় সম্পদ অর্জনের উপাদান আছে কিনা সেই বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে বলেছে।

প্রসঙ্গত: দুর্নীতি দমন কমিশন পুনর্গঠনের পূর্বেই অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিষয়ে মায়াকে নোটিস দেয়া হয়েছিলো। এই ইস্যুতে হাইকোর্ট মায়াকে খালাস দিয়েছিলো। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করে দিয়ে প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ৩ বিচারপতির বেঞ্চ গতকাল রবিবার উপরোক্ত আদেশ দেন। এ প্রসঙ্গে দুদক আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, আপিল বিভাগের এই রায়ের পর ধরে নিতে হবে নিম্ন আদালতের সাজার বিরুদ্ধে মায়ার আপিল হাইকোর্টে বিচারাধীন রয়েছে।  সে কারণে তার জামিন বহাল এবং সাজা স্থগিত থাকবে।

সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে সম্পদের তথ্য গোপন ও জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০০৭ সালের ১৩ জুন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক নূরুল আলম সূত্রাপুর থানায় ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মায়ার বিরুদ্ধে এই দুর্নীতির মামলা দায়ের করেন। মামলায় তার বিরুদ্ধে তথ্য গোপন ও অবৈধভাবে ২৯ লাখ টাকার সম্পত্তির মালিক হওয়ার অভিযোগ আনা হয়। ২০০৮ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত মায়াকে ১৩ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করে। সেই সঙ্গে তাকে পাঁচ কোটি টাকা জরিমানাও করে বিশেষ জজ আদালত। নিম্ন আদালতে বিচার চলাকালে আওয়ামী লীগের এই নেতা পলাতক ছিলেন। পরে তিনি নিম্ন আদালতের সাজার রায় বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আপিল করেন। ২০১০ সালের ২৭ অক্টোবর হাইকোর্ট সাজার রায় বাতিল ঘোষণা করে মায়াকে খালাস দেয়। খালাসের এই রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করে দুদক। আপিলে মায়ার পক্ষে অ্যাডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার ও দুদকের পক্ষে অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান শুনানি করেন। শুনানি শেষে আপিল বিভাগ হাইকোর্টের রায় বাতিল করে আপিল পুন:শুনানির নির্দেশ দেন।

খুরশীদ আলম খান বলেন, এর আগে দুদকের নোটিসের ওপর নির্ভর করে হাইকোর্ট রায় দিয়েছিল। রায়ে আসামিদের সাজা বাতিল করা হয়। আপিল বিভাগ ওই রায় বাতিল করে হাইকোর্টে মামলার মেরিটে পুন:শুনানির নির্দেশ দিয়েছেন। তবে আদালত কোনো সময়সীমা বা বেঞ্চ ঠিক করে দেননি বলে জানান তিনি।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৫ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন