ব্রিটেনে রোজা রাখার সময় কমিয়ে আনার প্রস্তাব
ইত্তেফাক ডেস্ক১৫ জুন, ২০১৫ ইং
ব্রিটেনের শীর্ষস্থানীয় একটি মুসলিম ফাউন্ডেশন এ বছর ব্রিটেনে রোজা রাখার সময় কিছুটা কমিয়ে আনার সুপারিশ করেছে। গ্রীষ্মকালে লম্বা দিন হওয়ার কারণে ব্রিটিশ মুসলমানদের প্রতি এই আহবান জানিয়েছে ফাউন্ডেশনটি। খবর বিবিসি’র।

কুইলিয়াম ফাউন্ডেশনের একজন ওলামা ড. ওসামা হাসান বলেন, সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত রোজা রাখার অর্থ হচ্ছে কোনো ধরনের খাবার বা পানি ছাড়াই প্রায় ১৯ ঘন্টা কাটানো। ব্রিটেনে রোজা রাখার এই সময় মধ্যপ্রাচ্যে বা বিশ্বের যেকোনো মুসলিম দেশে রোজা রাখার সময়ের তুলনায় বেশি। ড.হাসান বলছেন, অনেকের জন্যই এতো দীর্ঘ সময় ধরে কিছু না খেয়ে থাকা সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। তিনি বলেন, এ কারণে রোজা রাখার সময়ের পরিবর্তন আনার মধ্যে যৌক্তিকতা আছে। তার মতে এই সময় কয়েক ঘন্টা কমিয়ে আনা যেতে পারে। তিনি বলেন, রোজার সময়সীমা নিয়ে মুসলমানদের মধ্যে কয়েকশ বছর ধরে বিতর্ক চলছে। ড.হাসান বলছেন, মক্কায় যেমন ১২/১৩/১৪ ঘন্টা রোজা রাখা হয় সেরকম রাখলেই হয়। এর চেয়ে বেশি সময় রোজা রাখার দরকার হয় না। আগামী বৃহস্পতিবার কিংবা শুক্রবার রোজা শুরু হচ্ছে। এটা নির্ভর করছে চাঁদ দেখার ওপর। তবে ব্রিটেনে বহু মুসলমান এই প্রস্তাবের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করেছেন। তারা মনে করেন, তারা যেদেশে বসবাস করছেন সেদেশে সূর্যোদয় আর সূর্যাস্তের সময় অনুসরণ করেই তাদেরকে রোজা রাখতে হবে। তাদের যুক্তি হলো যতক্ষণ ধরেই রোজা রাখা হোক না কেন একসময় মানুষের শরীর এতে অভ্যস্ত হয়ে যায়। কেউ কেউ বলেন, এজন্য আল্লাহও তাদেরকে সাহায্য করেন। ব্রিটেনের এই কুইলিয়াম ফাউন্ডেশনটি জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালিয়ে থাকে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৫ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন