চট্টগ্রামে আরো এক মামলায় তিন আইনজীবীর জবানবন্দি
চট্টগ্রাম অফিস২৭ আগষ্ট, ২০১৫ ইং
চট্টগ্রামে আরো এক মামলায় তিন আইনজীবীর জবানবন্দি
জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে র্যাবের হাতে গ্রেফতার তিন আইনজীবী চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে দায়ের হওয়া একটি মামলায় আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। এরা হলেন- জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট হাসানুজ্জামান লিটন ও অ্যাডভোকেট মাহফুজ চৌধুরী বাপন। চট্টগ্রাম জেলা আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শহীদুল আলম গতকাল বুধবার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তিন আইনজীবীকে চট্টগ্রাম কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, টাকা প্রদানের বিষয়টি তিন আইনজীবী স্বীকার করলেও সরাসরি জঙ্গি কার্যক্রমে টাকা দেয়ার কথা তারা তিনজনই অস্বীকার করেছেন। র্যাব ৭ অধিনায়ক লে. কর্নেল মিফতাহ উদ্দিন আহমেদ ইত্তেফাককে জানান, জবানবন্দিতে তিন আইনজীবী কী ধরনের বক্তব্য দিয়েছেন তা আমরা এখনো জানতে পারিনি। জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে দায়ের হওয়া অন্য কোনো মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানোর আবেদন করা হবে কী না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এসব বিষয় পরবর্তীতে বিবেচনা করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার মাদ্রাসাতুল আবু বকর থেকে জঙ্গি সংগঠন শহীদ হামজা ব্রিগেডের সদস্য সন্দেহে ১২ জনকে আটক এবং ল্যাপটপ, সিডি ও জিহাদি পুস্তকসহ বিপুল পরিমাণ প্রশিক্ষণ সামগ্রী উদ্ধার করে র্যাব। এ ঘটনায় হাটহাজারী থানায় ২০০৯ সালের সন্ত্রাস দমন আইনে দায়ের হওয়া মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তিন আইনজীবীকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নেয় র্যাব। এর মধ্যে শাকিলা ফারজানাকে ৪৮ ঘন্টার এবং  অপর দুই আইনজীবীর ৭২ ঘন্টার রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত। গতকাল বুধবার দুপুর ২টায় শাকিলার রিমান্ড শেষ হওয়ার কথা থাকলেও সকাল ১০টার দিকে তাকে আদালতে নেয়া হয়। জবানবন্দি দেবেন কী না তা ভেবে দেখার জন্য বিচারক শাকিলাকে ৩ ঘন্টা সময় প্রদান করেন। দুপুর একটায় শাকিলার জবানবন্দি শুরু হয়। তার জবানবন্দি চলাকালীন অ্যাডভোকেট হাসানুজ্জামান লিটন ও অ্যাডভোকেট মাহফুজ চৌধুরী বাপনকে আদালতে উপস্থিত করা হয়। শাকিলার পর অপর দুই আইনজীবী জবানবন্দি প্রদান করেন বলে আদালত সূত্র জানায়। বেলা আড়াইটার দিকে জবানবন্দি শেষ হয়।

প্রসঙ্গত, জঙ্গি সংগঠন শহীদ হামজা ব্রিগেডকে অর্থায়নের অভিযোগে গত ১৮ আগস্ট রাত ১১টায় ঢাকার ধানমন্ডি এলাকা থেকে ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানাকে তার দুই সহযোগীসহ গ্রেফতার করে র্যাব। গ্রেফতারের পর তিন আইনজীবীকে চট্টগ্রামের বাঁশখালী থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে দায়ের হওয়া একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে চারদিনের রিমান্ডে নেয় র্যাব। রিমান্ড শেষে তিন আইনজীবী গত ২৩ আগস্ট বাঁশখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাজ্জাদ হোসেনের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। 

র্যাবের দাবি, তিন আইনজীবী শহীদ হামজা ব্রিগেডের একটি সামরিক শাখার প্রধান মনিরুজ্জামান ডনসহ কয়েকজনের অ্যাকাউন্টে নগদে এক কোটি আট লক্ষ টাকা জমা দিয়েছেন। তবে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা এ অভিযোগ অস্বীকার করে আদালতে বক্তব্য দিয়েছেন। তারা বলেন, শাকিলা হেফাজতে ইসলামের মামলা পরিচালনা করতেন। মামলা সংক্রান্ত টাকা তিনি মক্কেলের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ফেরত দিয়েছেন। অন্যদিকে শাকিলার পরিবারের দাবি, রাজনৈতিক কারণে শাকিলাকে বিভিন্ন জঙ্গি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:২০
যোহর১২:০১
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:২৫
এশা৭:৪০
সূর্যোদয় - ৫:৩৮সূর্যাস্ত - ০৬:২০
পড়ুন