আরও ৪৮ জঙ্গিসহ গ্রেফতার ২১৩২
পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান
বিশেষ প্রতিনিধি১৩ জুন, ২০১৬ ইং
দেশব্যাপী বিশেষ অভিযানের (সাঁড়াশি অভিযান) দ্বিতীয় দিনে ৪৮ জঙ্গি গ্রেফতার করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এছাড়াও এ অভিযানে গ্রেফতার হয়েছে ওয়ারেন্টভুক্ত ১ হাজার ৪৯৬ জন ও নিয়মিত মামলার এজাহারভুক্ত ৫৮৮ জন আসামি। গতকাল রবিবার পুলিশ সদর দফতর থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এ নিয়ে শুক্র ও শনিবার সারাদেশ থেকে ৮৫ জঙ্গিসহ ৫২৮৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে সাঁড়াশি অভিযানের প্রথম দিনে গ্রেফতার হয় ৩৭ জঙ্গিসহ মোট ৩ হাজার ১৫৫ জন । গত এক বছরে লেখক, প্রকাশক, অনলাইন অ্যাক্টিভিস্টদের হত্যার পাশাপাশি বিদেশি, হিন্দু পুরোহিত, খ্রিষ্টান যাজক, বৌদ্ধ ভিক্ষু আক্রান্ত হওয়ার পর সম্প্রতি  চট্টগ্রামে একই কায়দায় এক পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী খুন হওয়ার পর এই  সাঁড়াশি অভিযানের  ঘোষণা আসে। তবে অভিযান শুরুর পর শুক্রবার সকালে পাবনা মানসিক হাসপাতালের প্রধান ফটকে ঠাকুর অনুকূল চন্দ্রের আশ্রমের সেবক নিত্যরঞ্জন পাণ্ডেকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

পুলিশ সদর দফতরের জনসংযোগ কর্মকর্তা  এ কে এম কামরুল আহছান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় (শনিবার সকাল থেকে রবিবার সকাল) জঙ্গিবাদের সঙ্গে জড়িত অভিযোগে ৪৮ জনসহ মোট ২ হাজার ১৩২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরমধ্যে ৪৭ জন জেএমবি, একজন আনসার উল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য। ঢাকার টাঙ্গাইলে একজন, ময়মনসিংহে দু’জন, জামালপুরের মাদারগঞ্জে একজন, শেরপুরে একজন, রাজশাহীতে তিনজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় চারজন, নওগাঁয় ছয়জন, পাবনায় একজন, সিরাজগঞ্জে একজন, বগুড়ায় পাঁচজন, জয়পুরহাটে ছয়জন, খুলনায় একজন, নড়াইলে একজন, সাতক্ষীরায় দু’জন, রংপুরে একজন, গাইবান্ধায় একজন, নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে একজন, দিনাজপুরে একজন, ঠাকুরগাঁওয়ে একজন, পঞ্চগড়ে দু’জন, হবিগঞ্জে একজন,     কুমিল্লায় একজন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একজন, রাজশাহী নগরীতে একজন, চট্টগ্রাম নগরীতে একজন জেএমবি সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আনসার উল্লাহ বাংলা টিমে (এবিটি) জড়িত অভিযোগে বরগুনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া দেশব্যাপী গত ২৪ ঘণ্টায় গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিল, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, মাদক উদ্ধার ও অন্যান্য মামলায় মোট ২০৮৪ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে  পরোয়ানা মূলে ১৪৯৬ জন, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার মামলায় ৪১ জন এবং মাদক উদ্ধার মামলায় ৩৯১ জন এবং অন্যান্য মামলায় ১৫৬ জন রয়েছেন।

 গ্রেফতারকৃত জঙ্গিদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে  দু’টি শুটারগান, একরাউন্ড গুলি, ৫০০ গ্রাম গান পাউডার, ১৭টি ককটেল, ২টি ১২ বোরের বন্দুকের কার্তুজ, ৯টি চাপাতিসহ অন্যান্য ধারালো অস্ত্র এবং বিপুল পরিমাণ জেহাদি বই। এছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৮১টি মোটরসাইকেল আটক করা হয়েছে। ব্যুরো অফিস, প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর-

গাজীপুর: গাজীপুরের ৬টি থানা থেকে ৮৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় একটি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। এরমধ্যে জয়দেবপুরে ৩১ জন, টঙ্গীতে ১৪ জন, কালিয়াকৈরে ১১ জন, শ্রীপুরে নয়জন, কাপাসিয়ায় ১৩ জন ও কালীগঞ্জে আটজন রয়েছেন।

টাঙ্গাইল: ১০ বছর সাজাপ্রাপ্ত মির্জাপুরের জেএমবি সদস্য আকরামুল ইসলামসহ (২৬) জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ৫২ জনকে আটক করা হয়েছে। এরমধ্যে সখীপুরে ধর্ষণ মামলার পাঁচ আসামিও রয়েছেন।

ময়মনসিংহ: জেলার ফুলবাড়িয়ায় মোতালেব নামে এক জামায়াত নেতা, মুক্তাগাছায় মোখলেসুর রহমান (৪৫) ও ত্রিশালে মাহবুবুর রহমান নামে দুই জেএমবি সদস্য ও ভালুকায় জেএমবি সন্দেহে একজনসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

নরসিংদী: শিবপুরের সদ্য নির্বাচিত ইউপি সদস্য জামায়াত নেতা ছোলাইমান হোসেনসহ (২৭) দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

খুলনা: খুলনা মহানগরীর আট থানা থেকে ৩৩ জনসহ জেলায় ১০১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে মহানগর শিবিরের সাবেক সভাপতি হারুনার রশীদ, মহানগর খেলাফত মসলিসের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নূর আলম শিকদার রয়েছেন। জেলার ৯ উপজেলায় গ্রেফতার ৬৮  জনের মধ্যে ৯ জন জামায়াত ও ৩ জন বিএনপি কর্মী রয়েছেন। 

সিলেট: গতকাল সিলেটে ৫ তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ও ১৫ জামায়াত-শিবির কর্মীসহ ৬৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রংপুর:       জেলার ৮ উপজেলা থেকে ৯৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে জাহিদ হাসান (২০) নামে এক জেএমবি সদস্য রয়েছে।

দিনাজপুর: কাহারোল থেকে মফিজউদ্দীন (৫০) এক জঙ্গি গ্রেফতার করে আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। তিনি গত বছর ১২ নভেম্বর কালি মন্দিরে বোমা বিস্ফোরণ, মূর্তি ভাংচুর ও মন্দিরের তিনজনকে আহতর ঘটনায় অন্যতম আসামি। এছাড়া জেলার ১৩ উপজেলা থেকে ৬৫ জনকে আটক করা হয়েছে।

বাগেরহাট: জেলার ৯টি থানায় অভিযান চালিয়ে ৫৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে জামায়াত-বিএনপির তিনকর্মী রয়েছেন ও ১২ জন বিভিন্ন মামলার আসামি।

বগুড়া: বগুড়ায় পাঁচ জেএমবি সদস্য ও জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মীসহ মোট ৮৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জেএমবি সদস্যরা হলেন- সাইদুল (৩৯), মোসাদ্দের ওরফে মিজু ওরফে জিপু (২৮), একরামুল হক (২৮), গোলাম মোস্তফা ঝুমুর (২৯) ও রফিকুল ওরফে পলাশ (২৬)।

নোয়াখালী: জেলায় জামায়াত ও ছাত্র শিবিরের ১২ জন ও এক অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীসহ  ৫৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গাইবান্ধা: জেলার সাত উপজেলায় ৩৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে মো. আল আমিন (২৫) নামে এক জেএমবি সদস্য রয়েছে।

শিবালয় (মানিকগঞ্জ): তিন জামায়াত নেতাসহ মানিকগঞ্জে ১৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এরমধ্যে শিবালয়, হরিরামপুর ও সদর উপজেলার দক্ষিণের জামায়াতের তিন আমির ও ঘিওর উপজেলা জামায়াতের রোকন, সাটুরিয়ায় শিবিরের সাবেক সভাপতি রয়েছেন।

জয়পুরহাট: জেলা সদর থানা থেকে ছয়জন ও ক্ষেতলাল থেকে দুইজন মোট আট জেএমবি সদস্যসহ জেলা থেকে ৪৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নওগাঁ: জেএমবির ছয় ক্যাডারসহ বিভিন্ন মামলার ৮৭ জন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার জেএমবিরা হচ্ছেন- রাণীনগরের কাদের খাজা (৪৫) ও আত্রাইয়ের আবুল হোসেন (৩২), ধামইরহাটের ময়েন উদ্দিন (৪৮), মো. ওসমান আলী (৫২), মো. আব্দুল গফফার (৪৩), জেলা সদরের আনিছুর রহমান (৩৬)।

বান্দরবান: জেলা শিবিরের বায়তুলমাল সম্পাদক সোহেবুল ইসলাম শাহীনসহ  (২২) চার নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মেহেরপুর: গাংনীতে আবু তালেব নামে জেএমবি’র এক সদস্যসহ  জেলার তিনটি থানা থেকে ২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নীলফামারী:জলঢাকা পৌর এলাকা থেকে আমজাদ হোসেন (৪৫) নামে এক জেএমবি সদস্যসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে।

সাতক্ষীরা: জামায়াত-শিবিরের তিনকর্মীসহ জেলার আট থানায় ৪৮ জনকে আটক করা হয়েছে। এরমধ্যে জেলা সদর থানায় ১৯ জন, শ্যামনগর, কলারো ও তালায় পাঁচজন করে, কালীগঞ্জ, আশাশুনি ও পাটকেলঘাটায় চারজন করে দেবহাটায় দু’জন রয়েছে।

নেত্রকোনা: জেলার ছয় থানায় ১৫ জন জামায়াত-শিবির ও বিএনপি নেতা-কর্মীকে আটক করা হয়েছে। এরমধ্যে খালিয়াজুরী জামায়াত সেক্রেটারি গিয়াস, কেন্দুয়া বিএনপির নেতা মোস্তফা কামাল রয়েছেন।

 চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চার ককটেলসহ এক জেএমবি সদস্য, এক জামায়াত ও এক শিবির কর্মীসহ জেলায় ৪২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। সদর উপজেলা থেকে আটক জেএমবি সদস্যের নাম শাহীন আলী (২৫)।

ঝিনাইদহ: জেলা শহরের পবহাটি থেকে শাহীন মোহাম্মদ কিংকং নামে এক জেএমবি সদস্য ও ১১ জামায়াত নেতাকর্মীসহ ৩৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ: জেলার লাখাইয়ে মশিউর রহমান নামে এক জেএমবি সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

মাগুরা: জেলা থেকে বিভিন্ন মামলার ১৪ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পঞ্চগড়: দেবীগঞ্জ থেকে আবু বক্কর সিদ্দিক (২৯) ও আয়নাল হক (৩০) নামে দুজন জেএমবি’র সন্দেহভাজন সদস্যসহ জেলায় ২২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুঠিয়া (রাজশাহী): উপজেলায় সিরাজুল ইসলাম (৩৬) ও মন্টু শেখ (৩৮) নামে দুই জেএমবি সদস্য আটক করা হয়েছে।

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর):উপজেলায় বিএনপির নেতাসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা): উপজেলার কনকাপৈত ইউপির জামায়াত সমর্থিত সাবেক চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন মজুমদারসহ তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মাদারগঞ্জ (জামালপুর): উপজেলার জাঙ্গালিয়া গ্রাম থেকে আকতারুজ্জামান নামে এক জেএমবি সদস্য আটক করা হয়েছে।

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া): উপজেলার মরিচা ইউপির চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা মাহাবুল হকসহ ১২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন