প্রিঅ্যাকটিভেট সিমের বিরুদ্ধে অভিযান চালাবে বিটিআরসি
 ইত্তেফাক রিপোর্ট১৩ জুন, ২০১৬ ইং
প্রিঅ্যাকটিভেট সিম ও রিম ব্যবহার বন্ধ করতে বিশেষ অভিযান চালাবে বিটিআরসি। তাদের সঙ্গে র্যাব ও পুলিশকে অভিযান চালানোর জন্য অনুরোধ জানিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠি দিয়েছে টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের টেলিযোগাযোগ বিভাগ। প্রিঅ্যাকটিভেট সিম বলতে গ্রাহকদের অগোচরেই আগে থেকে চালু করা সিম বোঝায়।

গতকাল রবিবার বিকালে টেলিযোগাযোগ বিভাগ থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোজাম্মেল হক খান বরাবর ওই চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠিতে সই করেছেন টেলিযোগাযোগ বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব এম রায়হান আখতার।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ের পর থেকে সব অনিবন্ধিত সংযোগ বন্ধ করে দেয়ার জন্য মোবাইল অপারেটরদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বর্তমানে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন ব্যতীত কোনো মোবাইল সিম-রিম ক্রয়-বিক্রয় বা ব্যবহারের আইনগত সুযোগ নেই। ওই চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম-রিম নিবন্ধন/পুনর্নিবন্ধনের ফলে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। ভেরিফায়েড সিম-রিমের মাধ্যমে ১ জুন থেকে মোবাইল ফোন সংশ্লিষ্ট অপরাধ তদন্ত করা হচ্ছে। এ অপরাধ তদন্তের সুফল সম্পর্কে আগামী ১ জুলাই টেলিযোগাযোগ বিভাগকে জানাতে সংশ্লিষ্ট আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানানোর অনুরোধ করা হয়েছে।

গত ১৬ ডিসেম্বর থেকে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম/রিম নিবন্ধন শুরু করা হয়। ৩১ মে পর্যন্ত নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে ১১ কোটি ৬০ লাখ সংযোগ জাতীয় পরিচয়পত্রের সঙ্গে যাচাই করে পুনর্নিবন্ধন করা হয়েছে।

এর আগে খুচরা সিম বিক্রেতা ও বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম যাচাইয়ের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের সম্পর্কে তথ্য দিতে মুঠোফোন অপারেটরদের নির্দেশ দিয়েছে সরকার। টেলিযোগাযোগ বিভাগের কর্মকর্তারা বলেছেন, সিম পুনর্নিবন্ধনের পর রাজধানী থেকে প্রিঅ্যাকটিভেট সিম আটকের পর সরকার তাত্ক্ষণিকভাবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ জুন, ২০২১ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১১:৫৯
আসর৪:৩৯
মাগরিব৬:৪৯
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৪
পড়ুন