বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি
নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে পানিবন্দি মানুষের দুর্ভোগ বাড়ছে ভাঙনের তীব্রতাও বেড়েছে
ইত্তেফাক ডেস্ক২৭ জুলাই, ২০১৬ ইং
বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি
প্রবল বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পানিতে পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, বগড়া, সিরাজগঞ্জ ও জামালাপুরের বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। পানিতে তলিয়ে গেছে ফসলি জমি। পানিবন্দি মানুষের দুর্ভোগ ক্রমেই বাড়ছে। অনেক এলাকায় ভাঙনের তীব্রতাও বেড়েছে। এদিকে বন্যার পানিতে ডুবে ছয়জন শিশু ও  এক মহিলা মারা গেছেন।

পঞ্চগড় প্রতিনিধি জানান, করতোয়া ও মহানন্দা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তেতুলিয়া উপজেলার চারটি ইউনিয়নের সহস্রাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়া এসব মানুষের খাদ্য ও খাবার পানির সংকট এখন প্রবল।

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি জানান, কুড়িগ্রামে বন্যা পরিস্থিতি’র আরো অবনতি ঘটায় নয় দিন ধরে বন্যা কবলিত মানুষের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। জেলা প্রশাসনের তথ্য মতে ৯ উপজেলার ৫৫ ইউনিয়নের ৭১২ গ্রাম এখন পানির নিচে। এতে পানিবন্দি হয়েছে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৭৬টি পরিবারের ৫ লাখ ৪৩ হাজার ৮৩ জন মানুষ। নদী ভাঙনে বসতভিটা হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছে ৫ হাজার ৬০০ পরিবার। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত ধরলা নদীর পানি ১০২ সেন্টিমিটার ও ব্রহ্মপূত্রের পানি বিপদসীমার ৮৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

গাইবান্ধা প্রতিনিধি জানান, গাইবান্ধার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হওয়ায় জেলার বন্যা কবলিত সাঘাটা, ফুলছড়ি, সদর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার প্রায় দুই লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়ে বিশুদ্ধ পানি, পশু খাদ্যের সংকটে পড়েছেন। মঙ্গলবার ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমার ৫৬ সে. মি. এবং  ব্রহ্মপুত্র ও যমুনার পানি ৫৭ সে. মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় তিস্তার পানি ২১ সে.মি. ও করতোয়ার পানি তিন সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়েছে।

রংপুর প্রতিনিধি জানান, তিস্তায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী তীরবর্তী চরাঞ্চলের গঙ্গাচড়া, কাউনিয়া ও পীরগাছা উপজেলার প্রায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে নদী ভাঙ্গন। ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা পেতে অনেকেই ঘরবাড়ি অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছেন। আবার অনেকেই আশ্রয় নিয়েছেন বাঁধ কিংবা উঁচু স্থানে।

পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) সংবাদদাতা জানান, লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার ছয় ইউনিয়ন ও ১ পৌরসভায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে উপজেলা দিয়ে বয়ে চলা তিস্তা, ধরলা, সানিয়াজান, শিংগীমারী নদীর পানি ফুঁসে উঠেছে।

সারিয়াকান্দি (বগুড়া) সংবাদদাতা জানান, সারিয়াকান্দিতে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। গতকাল সারিয়াকান্দি পয়েন্টে যমুনার পানি ১১ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৬১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। 

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে মঙ্গলবার সকালে সিরাজগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ৪০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। সিরাজগঞ্জের ৫ উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ার কারণে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

জামালপুর প্রতিনিধি জানান, জামালপুরে বন্যার পরিস্থিতি অবনতি হয়েছে। যমুনার পানি বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে গত ২৪ ঘন্টায় ১৭ সে.মি. বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৮৫ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) সংবাদদাতা  জানান, গত ২৪ ঘন্টায় আরো প্রায় ১৬ সে.মি. বৃদ্ধি পেয়ে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপদসীমার ৩৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ভাঙনও অব্যাহত রয়েছে।

বন্যার পানিতে ডুবে নিহত ৭

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, গতকাল মঙ্গলবার শাহজাদপুরে বন্যার পানিতে ডুবে এক মহিলা ও  তিন শিশুর করুন মৃত্যু হয়েছে । এরা হলো,  উপজেলার খুকনী ইউনিয়নের খুকনী গ্রামের খোরশেদ আলীর কন্যা সুরাইয়া (২) ও ফুলচানের কন্যা ফাহিমা (২)। এরা বাড়ির পাশে বন্যার পানিতে ডুবে মারা গেছে। এ ছাড়া চরকৈজুরী গ্রামের রুবেল ফকিরের কন্যা রুমানা (৩) বাড়ির পাশে খেলা করতে গিয়ে বন্যার পানিতে ডুবে মারা গেছে। অপর এক খবরে জানা গেছে, খুকনী গ্রামের শাহদতের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (২৫) বন্যার পানিতে গোসল করতে নেমে বিদ্যুত্স্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন।

ছাতক (সুনামগঞ্জ)সংবাদদাতা জানান, সুনামগঞ্জের ছাতকে বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়া দু’শিশুর লাশ মঙ্গলবার উদ্ধার করা হয়েছে। এরা হলো তৌহিদুজ্জামান রাসান (১২) ও হামিদুজ্জামান আবিদ (৮)। রবিবার দুপুরে বাড়ির পাশে বন্যার পানিতে সাতাঁর কাটতে গিয়ে তারা স্রোতে তলিয়ে যায়।

এদিকে মঙ্গলবার বন্যার পানি ডুবে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় দোলন মিয়া (২) নামে এক শিশু মারা গেছে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ জুলাই, ২০২১ ইং
ফজর৪:০২
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৪৭
এশা৮:০৮
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:৪২
পড়ুন