প্রণব মুখার্জির প্রশংসায় পঞ্চমুখ মোদী
নয়াদিল্লি প্রতিনিধি২৭ জুলাই, ২০১৬ ইং
ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির ভূয়সী প্রশংসা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, দিল্লির ক্ষমতার কেন্দ্রে তাকে আঙ্গুল ধরে চলতে শিখিয়েছেন ‘প্রণব মুখার্জি’। প্রণব মুখার্জিকে নিজের ‘অভিভাবক এবং গুরু’ আখ্যা দিয়ে নরেন্দ্র মোদী সোমবার বলেন, এই মহত্ত্ব একমাত্র প্রণব মুখার্জির মতো মানুষই দেখাতে পারেন। সোমবার প্রণব মুখার্জি তার প্রেসিডেন্ট পদের চার বছর পূর্ণ করলেন। ওইদিনই রাষ্ট্রপতি ভবনের সংগ্রহশালার নবনির্মিত দ্বিতীয় পর্যায়ের উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী পদে নিজের কার্যকালের শুরুর দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করেন। সেই প্রসঙ্গেই মোদী বলেন, ‘আমি দিল্লিতে তখন একদম নতুন। পরিবেশটাও আমার কাছে নতুন ছিল। অনেকগুলো বিষয়ে রাষ্ট্রপতি  একজন অভিভাবকের মতো, একজন গুরুর মতো আঙুল ধরে আমাকে পথ চিনিয়ে দিয়েছিলেন তখন। আমার মতো সৌভাগ্যবান খুব কম মানুষই হন।’

রাষ্ট্রপতি হিসেবে প্রণব মুখার্জি কী অসামান্য দায়বদ্ধতার পরিচয় দিয়েছেন, সে প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে মোদী জানান, তার সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প বেশ কয়েকটি রাজ্য সরকার রূপায়ণ করতে অনীহা দেখিয়েছে। কিন্তু প্রেসিডেন্ট’স এস্টেটে সেইসব প্রকল্প রাষ্ট্রপতি রূপায়ণ করিয়েছেন। মোদী বলেন, ‘অন্য রাজনৈতিক দলের এক ব্যক্তি সরকার চালাচ্ছেন, অথচ সরকারের প্রতিটি প্রকল্প রাষ্ট্রপতি ভবনের নিজস্ব প্রকল্প হয়ে উঠছে এই মহত্ত্ব একমাত্র প্রণব মুখার্জিই দেখাতে পারেন।’ রাষ্ট্রপতি ভবনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মোদী বলেন, তার রাজনৈতিক মতাদর্শ প্রণব মুখার্জির রাজনৈতিক থেকে আলাদা হওয়া সত্ত্বেও তার সান্নিধ্যে এলে তিনি প্রতিটা মুহূর্তে অনুভব করেন, গণতন্ত্রে আলাদা আলাদা রাজনৈতিক মতাদর্শের মানুষও এক সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে পারেন। কংগ্রেস নেতা হিসেবে প্রণব মুখার্জির যে ভূমিকা দেশ দেখেছে, মোদী ওইদিন সেই প্রশংসাতেও পঞ্চমুখ হন।

রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি বলেন, ‘আমি রাষ্ট্রপতি ভবনের কাছে ৪৩টি বছর কাটিয়েছি। কিন্তু রাষ্ট্রপতি ভবন সম্পর্কে কিছুই জানতাম না। এখানে আসার পর চিন্তা করলেন, এই ভবনকে জনবান্ধব হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। মানুষকে এখানে আসার এবং দেখার সুযোগ করে দিতে হবে’। প্রণব মুখার্জি বলেন, ‘আমি প্রেসিডেন্ট হয়েছি কংগ্রেস দল থেকে। নরেন্দ্র মোদী যখন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে আমার কাছে আসেন তখন বলেছিলেন, তার রাজনৈতিক মতাদর্শ আমার রাজনৈতিক মতাদর্শ থেকে ভিন্ন। কিন্তু সাংবিধানিক দায়িত্ব হিসেবে আমি সবসময় সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি’। এই সময় ভাইস প্রেসিডেন্ট হামিদ আনসারীও উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২৭ জুলাই, ২০২১ ইং
ফজর৪:০২
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৪৭
এশা৮:০৮
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:৪২
পড়ুন