মংলায় পুরনো বার্জে ঢুকে চীনা নাগরিকসহ দুইজনের মৃত্যু
বাগেরহাট প্রতিনিধি০৮ আগষ্ট, ২০১৬ ইং
বাগেরহাটের মংলায় মেঘনা সিমেন্ট মিলসের পুরনো বার্জ পরিদর্শনে এসে তার ভেতরে প্রবেশ করে বিষাক্ত গ্যাসের ক্রিয়ায় চীনা নাগরিকসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন চীনা নাগরিক জাং  (৫০) ও বসুন্ধরা গ্রুপের মেঘনা সিমেন্ট মিলসের টেকনিশিয়ান মাসুদ শেখ (৪২)। মাসুদ বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার ঝনঝনিয়া গ্রামের মজিদ শেখের ছেলে। তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে আরো দুজন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। গতকাল রবিবার দুপুরে মেঘনা সিমেন্ট মিলসের ঘাটে এ দুর্ঘটনা ঘটে।  বিকালে বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

চীনা নাগরিক জাং নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর কাজে এ দেশে এসেছেন। নদী শাসনের কাজে তিনি নিয়োজিত ছিলেন। মেঘনা সিমেন্ট মিলসের ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) গোলাম মোর্তুজা জানান, সম্প্রতি চীনা নাগরিক জাং বসুন্ধরা গ্রুপের মেঘনা সিমেন্ট মিলসের পুরনো একটি বার্জ নিলামে কেনেন। গতকাল তিনি তা দেখতে মেঘনা সিমেন্ট কারখানায় আসেন। এ সময় কারখানার তিন কর্মচারীকে নিয়ে বার্জটি দেখতে ঘাটে যান। সঙ্গীদের বাইরে রেখে তিনি একাই বার্জের ঢাকনা খুলে ভেতরে প্রবেশ করেন। বেশ কিছুক্ষণ হয়ে যাওয়ার পর তিনি ফিরে না আসায় তার সঙ্গে থাকা মাসুদও জাংকে খুঁজতে বার্জের ভেতরে ঢোকেন। তিনি ফিরে না আসায় বার্জের বাইরে থাকা সাঈদ ও বেলাল উদ্বিগ্ন হয়ে তাদের কারখানার ফায়ার সার্ভিসের একটি দল নিয়ে বার্জের ভেতরে গিয়ে তাদের অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে বন্দর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিত্সক জাং ও মাসুদকে মৃত ঘোষণা করেন।

মংলা থানার উপ-পরিদর্শক মনজুর এলাহী বলেন, নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মংলা বন্দর হাসপাতালের চিকিত্সক প্রকাশ মণ্ডল বলেন, জাং ও মাসুদকে হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছেন। বার্জের ঢাকনা দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় ভেতরে এক ধরনের বিষাক্ত গ্যাসের সৃষ্টি হয়েছে। ওই গ্যাসে তাদের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। তবে সঠিক কারণ জানতে ময়না তদন্তের প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
৮ আগষ্ট, ২০১৯ ইং
ফজর৪:০৯
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪১
মাগরিব৬:৪০
এশা৭:৫৯
সূর্যোদয় - ৫:৩১সূর্যাস্ত - ০৬:৩৫
পড়ুন