কানাডার আদালতের রায়ের পর বিশ্ব ব্যাংক এখন কি বলে দেখি------ওবায়দুল কাদের
বিশেষ প্রতিনিধি১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭ ইং
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিশ্ব ব্যাংককে চ্যালেঞ্জ করে বাংলাদেশ সারা বিশ্বের কাছে এখন সম্মান নিয়ে ফিরেছে। কানাডার আদালতের রায়ে প্রমাণ হয়েছে বাঙালি বীরের জাতি, চোরের জাতি না। তিনি বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ কানাডার আদালত খারিজ করে দেওয়ার পর বিশ্ব ব্যাংক এখন কী বলে দেখি। তাদের কি বলার আছে জানতে চাই। বিশ্ব ব্যাংকের জবাবের অপেক্ষায় আছি।

গতকাল সোমবার রাজধানীর খামারবাড়িস্থ কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে ‘কৃষিবিদ দিবসে’র অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কত অপমান, কত অসম্মান! দুর্নীতির অভিযোগ দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। হতাশায় নিমজ্জিত হয়েছিলাম। অনেকে টিটকিরি করেছে, বিদ্রূপ করেছে। আবার কিছু কিছু পত্রিকায় সমালোচনাও করেছে। বাদ যায়নি টিভিতে সুশীলদের কথাও। আজ প্রমাণিত হয়েছে সেই পদ্মা সেতু স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিল। আঠারো (২০১৮) সালের শেষের দিকে একই রকম স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে শেষ হবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মাসেতু আজ আমাদের সক্ষমতার প্রমাণ, বাঙালির সম্মান। প্রধানমন্ত্রী চ্যালেঞ্জ দিয়েছিলেন বিশ্বব্যাংককে। আমরা বলেছিলাম নিজস্ব অর্থায়নে আমরা পদ্মাসেতু নির্মাণ করবো এবং করছি। সেতুমন্ত্রী বলেন, আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের কমপক্ষে ২৫টি সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান পাকিস্তানের উপরে। বাংলাদেশ আজ পাকিস্তানের চেয়ে অনেক উপরে। পদ্মাসেতুর অগ্রগতি এখন ৪০ ভাগ।

কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের সভাপতি এ এম এম সালেহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের সাবেক সভাপতি ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ইনস্টিটিউশনে মহাসচিব খায়রুল আলম প্রিন্স প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, পদ্মাসেতু প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাংক দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তোলার পর সৈয়দ আবুল হোসেন মন্ত্রিত্ব হারানোর পর ওই দায়িত্বে আসেন ওবায়দুল কাদের।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ইং
ফজর৫:১৬
যোহর১২:১৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৫:৫৭
এশা৭:১০
সূর্যোদয় - ৬:৩২সূর্যাস্ত - ০৫:৫২
পড়ুন