রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পদক্ষেপে বিদেশিদের সমর্থন
বিশেষ প্রতিনিধি১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পদক্ষেপে বিদেশিদের সমর্থন
চলমান রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক মহল বাংলাদেশের পক্ষে আছে বলে দাবি করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী। রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারের এ পর্যন্ত গৃহীত পদক্ষেপে বিদেশিদের সমর্থন রয়েছে। তারা বাংলাদেশের প্রচেষ্টার প্রশংসাও করছেন বলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় রবিবার বিকালে পশ্চিমা দেশগুলোর রাষ্ট্রদূত ও মিশন প্রধান, জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধি এবং আরব দেশগুলোর মিশন প্রধানদের রোহিঙ্গা ইস্যুতে ব্রিফিং দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। দুই দফা ব্রিফিং শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। ব্রিফিং-এ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিকদের ব্রিফিং-এ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে গত ২৫ আগস্ট শুরু হওয়া সহিংসতার ফলে বাংলাদেশে তিন লাখ মিয়ানমারের নাগরিক তথা মুসলিম রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ঘটেছে। আগে ছিল চার লাখ। সব মিলিয়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছে। তাদের আশ্রয়, চিকিত্সা, খাবারসহ মানবিক সব ব্যবস্থাই করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক মহল এজন্য প্রশংসা করছে। রাখাইনে যা হচ্ছে সেটা ‘গণহত্যা’ ছাড়া কিছু নয়। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ও তাই বলছেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মিয়ানমারের সঙ্গে আমরা যুদ্ধে জড়াব না। এতে সব অর্জন নষ্ট হয়ে যাবে। যুদ্ধ কোনো সমাধান নয়। এই সমস্যা আমাদের জন্য একটি জাতীয় সমস্যা। মিয়ানমার এই সমস্যার সৃষ্টি করেছে। তাদেরই এর সমাধান করতে হবে। যে কোনো কারণেই নিরীহ, নিরস্ত্র মানুষকে নির্যাতন, হত্যা সমর্থনযোগ্য নয়।

তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে যা যা করণীয় করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক মহল মিয়ানমারের উপর চাপ সৃষ্টি করছে।

কূটনীতিকদের ব্রিফিং-এ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ২৫ আগস্টের পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার রোহিঙ্গাকে হত্যা করেছে। পশ্চিমা কূটনীতিকরা রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে কফি আনান কমিশনের রিপোর্ট বাস্তবায়নের উপর জোর দেন।

দুই দফা ব্রিফিং-এ অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপীয় দেশগুলোর রাষ্ট্রদূত ও মিশন প্রধান, ইইউ প্রতিনিধি, জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী, বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি, সৌদি আরব, মিসর, ইরাক, ইরান, কুয়েত, কাতার, আরব আমিরাতসহ আরবদেশগুলোর মিশন প্রধানরা যোগ দেন।

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং
ফজর৪:২৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:২৩
মাগরিব৬:১০
এশা৭:২৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৫
পড়ুন